২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, শনিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৮ , ২:৫৭ পূর্বাহ্ণ

rabbhaban

দুই গ্রুপ আওয়ামী আইনজীবীদের আইনী লড়াইয়ে চেয়ারম্যান আলমাসের জামিন


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৩ পিএম, ১১ জুলাই ২০১৮ বুধবার


দুই গ্রুপ আওয়ামী আইনজীবীদের আইনী লড়াইয়ে চেয়ারম্যান আলমাসের জামিন

নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জে আইপিএল ক্রিকেট নিয়ে জুয়া খেলার জের ধরে মারামারিতে ছুরিকাঘাতে নিহত রুবেল হত্যা মামলায় জামিন পেয়েছেন মুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ আলমাস। এর আগে গত ১০ জুন তিনি আদালতে আত্মাসমর্পন করলে শুনানির সময় অসুস্থ্য হয়ে পড়লে আসামিকে আইনজীবীর জিম্মায় গত ২৭ জুন পর্যন্ত জামিন দেন আদালত। পরবর্তীতে জামিন শুনানি পিছিয়ে বুধবার ১১ জুলাই অনুষ্ঠিত হলে আদালত আসামিকে জামিন দেন।

চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ আলমাসের জামিনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ জাকির।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমানের আদালতে রূপগঞ্জের রুবেল হত্যা মামলায় আলমাসের জামিন শুনানি হয়। জামিন শুনানি শেষে বিকেলে আদালত চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ আলমাসের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। তবে দুপুরে আদালতে বাদী ও আসামিপক্ষের বেশকজন আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন যারা সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িত।

আসামি পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য জেলা আইনজীবী সমিতির অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু, মহানগর আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুর রশিদ ভূইয়া ও সমিতির সাবেক সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট হাবিব আল মুজাহিদ পলু, অ্যাডভোকেট মামুন সিরাজুল মজিদ সহ বেশকজন আইনজীবী।

বাদী পক্ষে জামিনের বিরোধিতা করে শুনানিতে ছিলেন সমিতির বর্তমান সভাপতি অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ মোহসীন মিয়া, ক্রীড়া সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল বাশার রুবেল, অ্যাডভোকেট মেজবাহ উদ্দীন, অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুল হক সুমনসহ বেশকজন আইনজীবী।

গত ১০ জুন শুনানি শেষে কাঠগড়ায় আলমাস অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে আদালতের এজলাসের চেয়ারে তিন ঘণ্টা শুয়ে রেখে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। কিছুটা সুস্থ্য হলে তিন ঘণ্টা পর আদালত আসামির জামিন আবেদন ২৭ জুন পর্যন্ত আসামীকে আইনজীবীর জিম্মায় দেন।

প্রসঙ্গত রূপগঞ্জের আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ আলমাস গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগের এমপি গাজী গোলাম দস্তগীর বীর প্রতীকের বলয়ে রাজনীতি করেন। এখানে আরও একটি গ্রুপ রয়েছে যার নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূইয়া ও কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক।

জানা গেছে, গত ২৭ মে রবিবার রাত ৯টার দিকে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ আইপিএল জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী সুরুজ, নয়ন, কাজলসহ কয়েকজন মিলে হোসেন আহাম্মেদ রুবেলকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। নিহত হোসেন আহাম্মেদ রুবেল মুড়াপাড়া নগড় এলাকার মৃত আজমত আলীর ছেলে। পর দিন ২৮ মে সোমবার গভীর রাতে নিহত হোসেন আহাম্মেদ রুবেলের ভাই মোমেন মিয়া বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় মামলাটি করা হয়। ওই সময় চেয়ারম্যান আলমাস সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেছিলেন, রাজনৈতিক দ্বন্ধের জের ধরেই তাকেসহ বেশকজনকে হয়রানি করতেই মামলায় আসামি করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে কলেজ শিক্ষার্থী হোসেন আহাম্মেদ রুবেল হত্যার ঘটনায় মুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ আলমাসকে প্রধান আসামি করে ১৪ জনকে নামীয় ও অজ্ঞাত আরো ১০ থেকে ১২ জনকে আসামি করে একটি মামলা করা হয়।

মামলার অন্যান্য আসামিরা হলো মঙ্গলখালীর সুরুজ মিয়া, মুড়াপাড়া নগরের নয়ন মিয়া, মঙ্গলখালীর নুরা, কাজল, মাসুদা, আকাশ, সিনেমার পাশের বেয়াদব সুমন, মঙ্গলখালীর শিপলু, সফিউল, হোসেন, সরকারপাড়ার সুমন, বানিয়াদির খোকন ও মাছিমপুরের ফরিদ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শহরের বাইরে -এর সর্বশেষ