দিনমজুরকে পেটানোর মামলার আসামীরা গ্রেফতার হয়নি

বন্দর করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৭:৫৯ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সোমবার



দিনমজুরকে পেটানোর মামলার আসামীরা গ্রেফতার হয়নি

মোবাইল ফোন চুরির ঘটনার প্রতিবাদ করার জের ধরে দিনমজুর আলিমউদ্দিনকে (৫০) মোবাইল চোরের আত্মীয় স্বজনরা হত্যার উদ্দেশ্যে হ্যামার (হাতুড়ি) দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করার ঘটনার ১৭ দিন পরে থানায় মামলা দায়ের হলেও অদ্যাবধি আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বরং মামলা দায়েরের পর থেকে চোরের স্বজনেরা অব্যাহতভাবেই হুমকী দিয়ে আসছে আহত দিনমজুর ও তার পরিবারকে। এতে করে ওই দিনমজুরের পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।

জানা গেছে, বন্দর উপজেলার চাঁপাতলী এলাকার দিনমজুর আলিম উদ্দিন মিয়ার ছেলে ইসলামের একটি মোবাইল ফোন বাড়ী থেকে চুরি করে নিয়ে যায় একই এলাকার আলমগীর মিয়ার ছেলে চোর ফয়সাল। পরবর্তি সময়ে মোবাইল চুরির বিষয়টি ইসলামের বাবা দিনমজুর আলিম উদ্দিন জানতে পেয়ে ৫ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টায় একই এলাকার ফয়সালের নিকট মোবাইল ফেরত চায়। এতে চাঁপাতলীস্থ দুলু মিয়ার বাড়ি সামনে চোর ফয়সাল ও তার পিতা পটল আলমগীর, একই এলাকার বাহাউদ্দিন মিয়ার ছেলে মাসুদ, হোসেন মিয়ার ছেলে মোসলিম ও কাশেমের পুত্র সেলিম ক্ষিপ্ত হয়ে হামাড় দিয়ে পিটিয়ে দিনমজুরকে জখম করে। স্থানীয় এলাকাবাসী আহত দিনমজুরকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আহত দিনমজুরের ছেলে ইসলাম বাদী হয়ে পরদিন দুপুরে ৫ জনকে আসামী করে বন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। ঘটনার প্রায় ১৭ দিন পরে গত ২২ সেপ্টেম্বর বন্দর থানা পুলিশ মামলাটি রেকর্ড করে। তবে মামলা রেকর্ডের ২ দিন পেরিয়ে গেলেও মামলার আসামীদের কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বরং মামলার আসামী ও তাদের স্বজনরা মামলা তুলে নিতে বাদী ও তার পরিবারকে উপর্যুপরি প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে আসছে। এতে করে অসহায় পরিবারটি চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে। তারা এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য পুলিশ সুপারসহ উর্ধ্বতনদের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

বন্দর থানার ওসি শাহীন মন্ডল জানান, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও