২৯ কার্তিক ১৪২৫, মঙ্গলবার ১৩ নভেম্বর ২০১৮ , ১:৩৭ অপরাহ্ণ

UMo

ভূমি কর্মকর্তাকে হাতকড়া পড়িয়ে নির্যাতন!


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২০ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০১৮ রবিবার


ভূমি কর্মকর্তাকে হাতকড়া পড়িয়ে নির্যাতন!

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ইউনিয়ন ভূমি উপ সহকারী ফরিদ আহমেদকে হাতকড়া পড়ানোসহ মারধরের চেষ্টা ও অকথ্য ভাষায় গালমন্দের অভিযোগে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবুল ফাতে মোহাম্মদ শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের অধীনে কর্মরত বিভিন্ন ভূমি অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীরা। এসময় তারা রূপগঞ্জ ইউএনও এর অপসারণ দাবিতে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়ার কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

রোববার ২৮ অক্টোবর দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে বিক্ষোভ করেন তারা। পরে জেলা প্রশাসক তাদের অভিযোগ শোনেন এবং আগামী ৪ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে সুষ্ঠু সমাধানের আশ্বাস দেন। তবে রূপগঞ্জ ইউএনও দাবি করেছেন, সম্প্রতি রূপগঞ্জে বিভিন্ন হাউজিং সোসাইটির দখলে থাকা সরকারী খাস জমি উদ্ধার করা নিয়ে বিরোধে তার বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে। তিনি বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসককে দুর্নীতিবাজ ভূমি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন।

ঘটনার বিবরণে রূপগঞ্জের ইউনিয়ন ভূমি উপ সহকারী ফরিদ আহমেদ জানান, গত শুক্রবার সকালে সচিব পদমর্যাদার একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা তার রূপগঞ্জের পূর্বাচলের প্লট দেখতে আসেন। রূপগঞ্জের এসিল্যান্ড সাহেবের সন্তান অসুস্থ থাকায় তিনি আসতে না পারায় আমাকে সেখানে থাকার জন্য নির্দেশনা দেন। সে কারণে আমি শুক্রবার সকালেই নারায়ণগঞ্জ শহর থেকে সিএনজিযোগে রওয়ানা দেই। পথিমধ্যে ভূইগড়ে পৌছলে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আমার মুঠোফোনে কল দেন। কিন্তু সিএনজিতে প্রচন্ড আওয়াজের কারণে আমি তার কথা ঠিকমতো শুনতে পাচ্ছিলাম। আমি স্যারকে (ইউএনও) বলেছিলাম আমি রাস্তায় আছি।

পরে আমি নির্ধারিত সময়ের আগেই ওই প্লটের সামনে পৌছাই। সেখানে মনোহরদীর ইউএনও স্যারকে দেখতে পাই। তিনি আমাকে বলেন, তোমার নাকি সচিব স্যারকে নাস্তা খাওয়ানোর কথা। কিন্তু এ বিষয়ে আমি আগে থেকে কিছুই জানতাম না। এর কিছুক্ষণ পরেই আমাকে রূপগঞ্জের ইউএনও স্যার মুঠোফোনে কল করে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে বলতে থাকেন তোমাকে বালু নদীর কাছে থাকতে বলেছিলাম তুমি কই। তখন আমি বলি আমি প্লটের সামনে রয়েছি।

তিনি আমাকে রাস্তার উল্টোদিকে এসে দাঁড়াতে বলেন। আমি রাস্তার উল্টো দিকে দাড়ানোর কিছু সময় পরে তিনি (রূপগঞ্জ ইউএনও) ওই প্লটে আসে। পরে আমি রাস্তা পার হয়ে প্লটের সামনে আসামাত্রই ইউএনও স্যার আবারো আমাকে গালমন্দ করে বলতে থাকেন অতিথিদের বিদায় করে নেই তারপর তোমার খবর আছে।

অতিথিরা বিদায় হওয়ার পরে তিনি (রূপগঞ্জ ইউএনও) আমাকে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করতে করতে মারধর করতে উদ্যত হন। তখন ঘটনাস্থলে উপস্থিত অন্যান্য লোকজন তাকে নিরস্ত করেন। এরপর তিনি দৌড়ে তার গাড়িতে থাকা লাঠি নিয়ে এসে আবারো আমাকে মারধর করতে উদ্যত হন। তখনও ঘটনাস্থলে উপস্থিত অন্যান্য লোকজন তাকে নিরস্ত করেন।

আমি হাতজোড় করে স্যারকে বলেছিলাম, ‘স্যার সিএনজিতে থাকার কারণে আমি ঠিকমতো শুনতে পাইনি। এজন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী। কিন্তু তিনি (ইউএনও) তাতে কর্ণপাত না করে ঘটনাস্থলে উপস্থিত প্রটোকলের দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তাকে বলেন আমাকে হাতকড়া পড়াতে। কিছুক্ষণ আমাকে হাতকড়া পড়ানো অবস্থায় রাখার পরে আমার হাতকড়া আবার খুলে দেয়া হয়। এরপর আমাকে চোর ঘুষখোর বলে গালাগাল করতে থাকেন।

এদিকে শুক্রবারের ওই ঘটনার প্রতিবাদে রোববার সকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে জড়ো হন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন ভূমি অফিসে কর্মরত ভূমি অফিসার্সেস কল্যাণ সমিতি, সার্ভেয়ার্স এসোসিয়েশন, কাকস, কানুনগো সমিতির নেতারা। পরে তারা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জসিম উদ্দিন হায়দারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তাদের অভিযোগ তুলে ধরেন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের কক্ষ থেকে বের হয়ে রূপগঞ্জ ইউএনও এর অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ করতে থাকেন তারা। এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, আমাদের দাবি মানা না হলে আমরা কর্মবিরতি কিংবা সকল কর্মকর্তা কর্মচারী একযোগে ছুটি নিব। দুপুরে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া অফিসে আসলে তার সঙ্গে দেখা করে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন বিক্ষোভকারীরা। পরে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া তাদেরকে ৪ দিনের মধ্যে সুষ্ঠু পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবুল ফাতে মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, সম্প্রতি রূপগঞ্জে বিভিন্ন হাউজিং সোসাইটির দখলে থাকা সরকারী খাস জমি উদ্ধার করাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করায় একটি চক্র তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। তিনি বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসকের কাছে দুর্নীতিবাজ ভূমি কর্মকর্তাদের বিষয়ে নালিশও করেছিলেন। এরই প্রেক্ষিতে আমার বিরুদ্ধে এ ধরনের অপপ্রচার করা হচ্ছে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রেজাউল বারী জানান, জেলা প্রশাসকের কাছে ভূমি কর্মকর্তারা একটি অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শহরের বাইরে -এর সর্বশেষ