এসপির আল্টিমেটামেও কেউ টেটাবল্লম জমা দেয়নি, আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:১৯ পিএম, ১২ নভেম্বর ২০১৮ সোমবার



এসপির আল্টিমেটামেও কেউ টেটাবল্লম জমা দেয়নি, আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বক্তাবলীর আকবরনগরবাসীকে টেটাবল্লম জমা দিতে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিলেও এক মাসেও এখনো তা কেউ জমা দেয়নি। আল্টিমেটামের সময়সীমা শেষ হওয়া সত্বেও পুলিশ টেটাবল্লম উদ্ধারের অভিযানও চালায়নি। কিন্তু পুলিশ সুপার হুশিয়ারী করে দিয়েছিলেন টেটাবল্লম জমা না দিলে চিরুনী অভিযান চালানো হবে। আর টেটাবল্লম যুদ্ধ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে আকবরনগরবাসী। তবে আকবরনগরে সামেদ আলী হাজী ও রহিম হাজী গ্রুপের মধ্যে টেটাবল্লম যুদ্ধ সংঘঠিত হয়ে থাকে। প্রশাসনিক ভাবে এই দু’গ্রুপের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হলে ঐ এলাকায় শান্তিশৃংখলা বজায় থাকতো বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

এদিকে আকবরনগরে প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের মধ্যে টেটাবল্লম যুদ্ধে প্রতিপক্ষ গ্রুপের টেটার আঘাতে টেটাবিদ্ধ হয়ে জয়নাল আবেদনী নিহতের ঘটনায় এখনো এলাকা থমথম অবস্থা বিরাজ করছে। আর জয়নাল হত্যাকান্ডের পর সামেদ আলী হাজী গ্রুপের লোকজন এলাকা ছেড়ে অন্যত্র বসবাস করতে বাধ্য হচ্ছে। এখনো পালিয়ে বেড়াচ্ছে হত্যা মামলায় আসামী না এমন সব নারী-পুরুষ ও স্কুল কলেজের লোকজন।

জানা গেছে, গত ১৩ অক্টোবর শনিবার বক্তাবলীর কানাইনগর স্কুল মাঠে বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদ ও কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির আয়োজনে মাদক সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও ভূমিদস্যু প্রতিরোধের দাবিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেই সভায় স্থানীয় চেয়ারম্যান শওকত আলীসহ অন্যান্য বক্তারা আকবরনগরের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। বিশেষ করে টেটাবল্লমের বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। আর তাদের বক্তব্যের পর জেলা পুলিশ সুপার বক্তব্যে আকবরনগরের সার্বিক পরিস্থিতি আলোচনা করেন এবং এলাকার শান্তিশৃংখলা বজায় রাখার প্রতিশ্রুতি দেন। এসময় পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান টেটাবল্লম নিয়ে কঠোর হুশিয়ারী দিয়ে বলেছিলেন বক্তাবলীর আকবরনগরে যাদের কাছে টেটাবল্লম রয়েছে তারা আগামী ৭দিনের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেয়া জন্য আহবান করা হয়েছে। আর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে টেটাবল্লম জমা দেয়া না হলে চিরুনী অভিযান চালানো হবে। কিন্তু পুলিশ সুপারের আল্টিমেটামের সময়সীমা অতিবাহিত হয়ে এক মাস হলেও এখনো কেউ জমা দেয়নি টেটাবল্লম। এছাড়া পুলিশ সুপার চিরুনী অভিযান করার কথা বললেও পুলিশ টেটাবল্লম উদ্ধারে কোন অভিযান চালায়নি।

বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী জানান, আকবরনগরের এখনো কেউ তাদের কাছে থাকা টেটাবল্লম জমা দেয়নি। এসপি সাহেব আল্টিমেটাম দিলেও কেউ টেটাবল্লম জমা না দেয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে এখনো আতঙ্ক কাটেনি। তবে টেটাবল্লম উদ্ধারে পুলিশের চিরুনী অভিযান দেয়া দরকার।

 



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও