‘গণধর্ষণের ভিডিও চিত্র ভাইরালের হুমকি

বন্দর করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০১ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ শুক্রবার



‘গণধর্ষণের ভিডিও চিত্র ভাইরালের হুমকি

হোসিয়ারী নারী শ্রমিককে (১৮) গণধর্ষণের পর ভিডিও চিত্র ফেসবুকে ভাইরালের ভয় দেখিয়ে ও বেদম পিটিয়ে সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর রাতে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার নবীগঞ্জ কদমতলী বিলে এ ঘটনাটি ঘটে। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী ধর্ষিতাকে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ধর্ষিতাকে নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করার নির্দেশ দেয়। শুক্রবার বিকেলে ওই নারী বন্দর থানায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী শ্রমিক গণমাধ্যমকে জানায়, সে দীর্ঘ ৭ মাস ধরে নবীগঞ্জ এলাকার একটি হোসিয়ারী কারখানায় কাজ করে আসছে। বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে কর্মস্থল থেকে ভাড়া বাসায় ফেরার পথে নবীগঞ্জস্থ কদমতলী এলাকার নাঈম, একই এলাকার তোতা মিয়ার ছেলে আশিক, দিপু, সোহেল ও রহমান নবীগঞ্জ ৩ রাস্তার মোড় থেকে তাকে অপহরণ করে কদমতলীর নির্জন বিলে নিয়ে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারন করে সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল করে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ও বেদম পিটিয়ে সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে ছেড়ে দেয়। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে শুক্রবার বিকেলে ধর্ষক নাঈম, আশিকসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ করে বন্দর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চালাচ্ছে বলে ধর্ষিতা এ কথা জানিয়েছে।

বন্দর থানার ওসি আজাহারুল ইসলাম সরকার জানান, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখনো কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। ধারনা করা হচ্ছে জমি সংক্রান্ত কোন বিরোধ দিয়ে এই অভিযোগ করা হয়ে থাকতে পারে। অভিযোগটির তদন্ত চলছে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও