সাবেক স্বামী ও প্রেমিক মিলে খুন করে রেখাকে

রূপগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:৪৮ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০১৮ বুধবার



সাবেক স্বামী ও প্রেমিক মিলে খুন করে রেখাকে

নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচল উপশহরে শাহীনা আক্তার রেখা হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। সাবেক স্বামী ও পরকীয়া প্রেমিক মিলেই হত্যা করে রেখাকে। মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর রাতে নারায়ণগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ফাহমিদা খাতুনের আদালতে হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে সাবেক স্বামী কাউছার আহম্মেদ খান সোহাগ। এর আগে ৬ নভেম্বর বিকেলে ৩০০ ফুট সড়কের পাশে ১০ নম্বর সেক্টর থেকে নিহত শাহীনা আক্তার রেখার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত শাহীনা আক্তার রেখা রাজধানী ঢাকার বনশ্রী ই বক্ল এলাকার এস এম রফিকের মেয়ে।

বুধবার (২১ নভেম্বর ) দুপুরে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের পরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃত ঘাতকরা হলো, টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর থানার ইছাইল এলাকার লিয়াকতের ছেলে সাবেক স্বামী কাউছার আহম্মেদ খান সোহাগ (৩৫) ও অপরজন একই এলাকার আসাদুজ্জামনের ছেলে পরকীয়া প্রেমিক সুমিত ওরফে শুভ।

ডিবি পুলিশের পরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন জানান, গত ৬ নভেম্বর রূপগঞ্জ উপজেলার ৩শ’ ফিটের পাশে ১০ নম্বর সেক্টরে অজ্ঞাত এক নারীর লাশ উদ্ধার করে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ। পরে তার কোন পরিচয় না পেয়ে পুলিশ বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে মামলাটি পুলিশ সুপারের নিদের্শে ডিবিতে হস্তান্তর হয়। এরপর মামলাটি আমি (পরিদর্শক গিয়াস উদ্দিন) তদন্তের দায়িত্ব পাওয়ার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হত্যার রহস্য উদঘাটন করার জন্য বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার শুরু করি। প্রযুক্তির মাধ্যমে কাউছার আহম্মেদ সোহাগ ও সুমিত ওরফে শুভকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। এর মধ্যে কাউছার আহম্মেদ সোহাগ নিহতের সাবেক স্বামী এবং অপরজন মানে সুমিত ওরফে শুভ নিহতের পরকীয়া প্রেমিক ।

তিনি আরো জানান, সাবেক স্বামী কাউছার আহম্মেদ সোহাগ আদালতে স্বীকার করেছেন যে, শাহীনা আক্তার রেখা তার সাবেক স্ত্রী। গত ৮ মাস আগে তাকে তালাক দেয়া হয়েছিল। কারণ সে বিভিন্ন ছেলেদের সাথে পরকীয়ায় আসক্ত ছিল। এক দিন রেখার প্রেমিক সুমিত ওরফে শুভর সঙ্গে তার কথা হয়। সে তার প্রতি ক্ষিপ্ত ছিল। তাকে রেখে অন্য ছেলেদের সঙ্গে ঘোরাফেরা করতো রেখা। পরে দুইজনে মিলে রেখাকে হত্যার পরিকল্পনা করে। ৬ নভেম্বর বিকেলে শাহীনা আক্তার রেখাকে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে তার প্রেমিক সুমিত ওরফে শুভর মাধ্যমে ডেকে আনা হয়। পরে নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচল উপশহরে ৩শ’ ফিটের পাশে ১০ নম্বর সেক্টরে হত্যা করে চলে যায় তারা।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও