ব্যবসায়ীকে হত্যার পর মাটিচাপা লাশ উদ্ধার, মূল হোতা সহ গ্রেপ্তার ৩

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:২৮ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০১৯ বুধবার

ব্যবসায়ীকে হত্যার পর মাটিচাপা লাশ উদ্ধার, মূল হোতা সহ গ্রেপ্তার ৩

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার ভোলাইল এলাকার একটি ঝুটের গোডাউন থেকে নিখোঁজ ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান সেলিম চৌধুরীর (৫২) অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিখোঁজের ১০দিন পর ১০ এপ্রিল বুধবার বিকেলে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ১০০ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় ওই ঝুটের গোডাউন মালিক মোহাম্মদ আলী, দুইজন কর্মচারী ফয়সাল ও ইউনুসকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

কামরুজ্জামান সেলিমের বাড়ি ফতুল্লার বক্তাবলী কানাইনগর এলাকার মৃত সামছুল হুদা চৌধুরীর ছেলে। সে পরিবার নিয়ে শিবু মার্কেট এলাকায় বসবাস করতেন।

নিহতের স্ত্রী রেহেনা আক্তার রেখা জানান, সেলিম গার্মেন্টের ঝুট ব্যবসা করেন। গত ৩১ মার্চ সকালে বাসা হতে ব্যবসার কাজের উদ্দেশ্যে তিনি বের হয়ে যান। ওইদিন বেলা ১১টায় সেলিম চৌধুরীকে ফোন করা হলে তিনি জানান ফতুল্লার পঞ্চবটি মোড়ে ইস্টার্ন ব্যাংকে রয়েছেন। এরপর দুপুর ২টায় খাবার খাওয়ার জন্য ফোন করলে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

তিনি আরো জানান, ভোলাইলের মোহাম্মদ আলী নামের এক ঝুট ব্যবসায়ীর কাছে ২ লাখ টাকা পাওনা ছিলেন সেলিম। ওই টাকা নিয়ে টালবাহনা করছিল মোহাম্মদ আলী। ৬ এপ্রিল এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় জিডি ও ৮ এপ্রিল অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা করা হয়।

তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার এস আই মামুন আল আবেদ জানান, জিডি ও অভিযোগের সূত্র ধরে মোবাইল ট্র্যাকিং করে সেলিমের নিখোঁজের সময়কার অবস্থান নিশ্চিত করা হয়। পরে বুধবার দুপুরে ভোলাইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন মোহাম্মদ আলীর ঝুটের গোডাউনে অভিযান চালিয়ে কর্মচারী ফয়সালকে (২৮) আটক করা হয়। তার দেওয়া স্বীকারোক্তিতে মাটি খুঁড়ে বক্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ৩১ মার্চ রাতেই সেলিমকে হত্যা করে লাশ মাটি খুঁড়ে পুতে রাখা হয় জানিয়েছে ফয়সাল। সে এও জানিয়েছে, মোহাম্মদ আলী সহ ৩ থেকে ৪ জন মিলে ৩১মার্চ রাতে সেলিমের মাথায় প্রথমে রড দিয়ে আঘাত করা হয়। পরে গলায় কাপড় পেচিয়ে শ্বাসরোধ হত্যা করে ঝুটের বস্তার ভেতরে লাশ ভরে মাটি চাপা দেওয়া হয়।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও