বিশ্রামের কথা বলে স্টিয়ারিং হেলপারকে দেয় ধর্ষক চালক

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৫ পিএম, ১২ জুন ২০১৯ বুধবার

বিশ্রামের কথা বলে স্টিয়ারিং হেলপারকে দেয় ধর্ষক চালক

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বাসে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় ভিক্টিমের জবানবন্দি রেকর্ড করেছে আদালত। বুধবার (১২ জুন) সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নূর নাহার ইয়াসমিনের আদালত ওই জবানবন্দী গ্রহণ করেন। এসময় ভুক্তভোগী তরুণী তার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরেন।

ভিক্টিম জানায়, গত ১০ জুন গজারিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে রাত ৯টায় স্বদেশ পরিবহণের বাসে উঠে সে। পথিমধ্যে মোগড়াপাড়া চৌরাস্তায় এসে সকল যাত্রী নেমে যায়। ওই তরুণী যাত্রীদের সঙ্গে নেমে যাওয়ার সময় অভিযুক্ত চালক শামীম তাকে মেঘনা ঘাট নামিয়ে দেওয়ার কথা বলে বাসে বসতে বলে। কিছুদূর এগোতেই শামীম বিশ্রামের কথা বলে হেলপারের হাতে বাস চালনার দায়িত্ব দেয়। আর শামীম এসে বসে ভিক্টিমের কাছে।

এর পরেই শামীম তার স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়ার চেষ্টা করে। ভিক্টিম তাকে বাধা দিলে তার জোর পূর্বক জাপটে ধরে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। চিৎকার চেঁচামেচির এক পর্যায়ে স্থানীয়রা বাস থামালে হেলপার পালিয়ে যায় এবং শাহীনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় ১১ জুন মঙ্গলবার সকালে ওই তরুণী বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানার মামলা দায়ের করেন।

বুধবার মামলার শুনানীর দিন ধার্য হলে আদালত শুনানী শেষে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডকৃত শামীম সোনারগাঁ উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের নানাখী মধ্যপাড়া এলাকার আব্দুর রবের ছেলে।

এদিকে বাসচালক শামীমকে ২ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। বুধবার (১২ জুন) সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নূর নাহার ইয়াসমিনের আদালত এই আদেশ দেন।

এর আগে আসামী শামীমকে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন সহ আদালতে প্রেরণ করে সোনারগাঁ থানা পুলিশ। বুধবার শুনানীর দিন ধার্য হলে আদালত শুনানী শেষে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডকৃত শামীম সোনারগাঁ উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের নানাখী মধ্যপাড়া এলাকার আব্দুর রবের ছেলে। সে ঢাকা সোনারগাঁ রুটের স্বদেশ পরিবহণের বাস চালক।

গত ১০ জুন ভিক্টিম ঈদের ছুটি কাটিয়ে কিশোরগঞ্জ থেকে রাত ৯টার দিকে গুলিস্তান এসে গজারিয়া ফেরার জন্য স্বদেশ পরিবহনের একটি বাসে উঠেন। পরে মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় এসে সকল যাত্রী নেমে যায়। ওই তরুণী যাত্রীদের সঙ্গে নেমে যাওয়ার সময় অভিযুক্ত চালক শামীম তাকে মেঘনা ঘাট নামিয়ে দেওয়ার কথা বলে আষাঢ়িয়ারচর এলাকায় গিয়ে হেলপারের কাছে ডাইভিং ছেড়ে দিয়ে ওই তরুণীকে নিয়ে পেছনে সিটে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলার মেঘনা নিউটাউন এলাকায় শপিং কমপে¬ক্সের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে রাত সাড়ে ১০টার দিকে মার্কেটের সামনে গাড়ির জন্যে অপেক্ষা করছিল। এসময় স্বদেশ পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্টো-ব-১১-৭২৬৫) দেখে থামাতে বললে গাড়িটি আরো দ্রুতগতিতে চালানো হয়। ওই বাস থেকে এক কিশোরীর বাঁচাও বাঁচাও চিৎকার শুনতে পায়।

পরে স্থানীয়রা মানবপ্রাচীর তৈরী করে গাড়িটি থামিয়ে ভেতরে দেখতে পায় হেলপার স্টিয়ারিং এবং শামীমকে তরুনীর সাথে ধস্তাধস্তি করছে। এসময় তারা তরুণীকৈ উদ্ধার করে চালক শামীমকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। এক পর্যায়ে হেলপার পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ১১ জুন মঙ্গলবার সকালে ওই তরুণী বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানার মামলা দায়ের করেন।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও