গৃহবধূ মুক্তার ঘাতক ৩ মাসেও গ্রেফতার না হওয়ায় ক্ষোভ

বন্দর করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০২ পিএম, ২০ জুলাই ২০১৯ শনিবার

গৃহবধূ মুক্তার ঘাতক ৩ মাসেও গ্রেফতার না হওয়ায় ক্ষোভ

বন্দরে গৃহবধূ মুক্তাকে বর্বর নির্যাতন করে হত্যাকারী ঘাতক স্বামী দেলোয়ারকে ৩ মাসেও পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। গত ১৯ এপ্রিল গৃহবধূ মুক্তাকে স্বামী দেলোয়ার মুখে তারকাটা ও সুপারগুলো ঢেলে মুখ আটকিয়ে দিয়ে কেচি দিয়ে সমস্ত শরীরে আঘাত করে নির্মম ভাবে হত্যা করে।

ঘটনাটির বর্ণনা দেয় নিহত মুক্তার শিশু মেয়ে দানিয়া। তার সামনে তার মাকে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়। শিশু দানিয়া জানায়, তার বাবা তার মাকে জোর করে কিছু মুখে দিয়ে দিলে তার মা কথা বলতে পারে না। পরে কেচি দিয়ে তার মাকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করলে তার মা মাটিতে পড়ে যায়। পরে তাকে হাসপতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুক্তার মৃত্যুর হয়।

এ ঘটনায় নিহত মুক্তার বাবা নজরুল থানায় ঘাতক দেলোয়ারসহ তার মা বাবাকে আসামী হত্যা মামলা দায়ের করে। ঘাতক নজরুল পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ রহস্যজনকভাবে ঘাতক দেলোয়ারে বাবা সিদ্দিক মিয়া ও মা চন্দ্রবানুকে মামলা থেকে বাদ দিয়ে দেয়। তাদের মামলা থেকে বাদ দিয়ে দেয়ার পর তারা এসে বাদীকে নানা ভাবে হুমকি দেয় মামলা তুলে নিতে।

বাদী নজরুল জানান, তার মেয়েকে হত্যা করে ক্ষ্যান্ত হয়নি দেলোয়ারের পরিবার। আমরা লাশ দাফন করতে নবীগঞ্জ কবরস্থানে গেলে তারা লাশ দাফনেও বাধা দেয়। পুলিশ মামলা থেকে ঘাতক দেলোয়ারের মা বাবাকে বাদ দিয়ে দেয় এবং ৩ মাসেও আমার মেয়ের খুনীকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক মোস্তফিজুর রহমান জানান, মামলার তদন্ত চলমান আর দেলোয়ারকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও