সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের তাণ্ডব, অর্ধশত বাড়ি ভাঙচুর লুটপাট

সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০১:০৫ এএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯ রবিবার

সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের তাণ্ডব, অর্ধশত বাড়ি ভাঙচুর লুটপাট

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার ইসদাইর কাপুড়াপট্টি এলাকায় প্রায় অর্ধ শতাধিক বাড়িঘর ভাংচুর করে লুটপাট চালিয়েছে সশস্ত্র একটি সন্ত্রাসী বাহিনী।

২৪ অাগস্ট শনিবার রাত সাড়ে ৯ টায় প্রায় ৪০-৫০ জনের একটি গ্রুপ ধারালো রামদা নিয়ে ওই এলাকায় সাধারণ মানুষের বাড়িঘরে হামলা চালায়।

ওই সময় স্থানীয় বিভিন্ন দোকানে লুটপাট চালায় সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় ভয়ে সাধারণ মানুষ দিকবিদিক ছুটোছুটি করতে থাকে। হামলার শিকার বিভিন্ন বাড়িঘরে থাকা শিশু ও মহিলা আর্তচিৎকারে আতংক ছড়িয়ে পড়ে পুরো এলাকায়। তবে কেউ হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানায়, সম্প্রতি একটি মোবাইল চুরির ঘটনা নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে ফতুল্লার পূর্ব ইসদাইর এলাকার কমল, পায়েল, রুবেল, সাব্বির, রাকিব আকাশ গ্রুপের সঙ্গে কাপুড়াপট্টি এলাকার মাদক বিক্রেতা রকি ও বাদশ গ্রুপের সংঘর্ষ হয়।

এ নিয়ে শনিবার রাত ৯ টায় পূর্ব ইসদাইরের কমল গ্রুপের প্রায় ৪০-৫০ জনের একটি দল ২০-২৫ টি রামদা নিয়ে পশ্চিম ইসদাইর কাপুড়াপট্টি এলাকায় প্রবেশ করে। ওই সময় তারা নির্বিচারে সাধারণ মানুষের বাড়িঘর ভাংচুর করে বাড়িঘরের জানালার কাঁচ, দরজা ও স্থানীয় দোকানে শাটার কুপিয়ে রেখে যায়। এক পর্যায়ে তারা স্থানীয় মুদী দোকানী পলাশের দোকানে থাকা মালপত্র লুট করে নিয়ে যায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় বাড়িওয়ালা কৃষ্ণা, সাজেন, রজমান, সমবায় কাশেম, নজরুল, অপু  ইমতিয়াজ ও আলী মিয়ার বাড়িতে ভাংচুর করে ব্যাপক তান্ডব চালানো হয়েছে। প্রত্যেকটি বাড়ির জানালার কাঁচ ও দরজা ভেঙ্গে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা।

এ বিষয়ে স্থানীয় বটতলা এলাকার বাসিন্দা নূরুল ইসলাম জানান, প্রায় অর্ধশত যুবকের মধ্যে সবার হাতে ধারালো রামদা ছিল। তারা নির্বিচারে হামলা করে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। কিন্তু কেন করেছে সাধারণ মানুষ কিছু জানে না।

স্থানীয়রা আরো জানায়, দু গ্রুপের মধ্যে বিরোধে জানা গেছে পশ্চিম ইসদাইরের রকি ও বাদল কিছুদিন পূর্ব ইসদাইরে ছেলেদের মারধর করেছিল। সেই প্রতিশোধ নিতেই সাধারণ মানুষরে বাড়ির ওপর এই তান্ডব।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও