ফতুল্লায় গণধর্ষণ : জবানবন্দীতে দুই ধর্ষকের দোষস্বীকার

ফতুল্লা করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫৪ পিএম, ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ফতুল্লায় গণধর্ষণ : জবানবন্দীতে দুই ধর্ষকের দোষস্বীকার

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় কিশোরী গণধর্ষণ মামলায় র‌্যাবের অভিযানে গ্রেফতারকৃত দুইজন আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীতে নিজেদের দোষ স্বীকার করেছেন।

৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মিল্টন হোসেনের আদালত তাদের জবানবন্দী রেকর্ড করা হয়।

ওই দুইজন হলেন ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার মৃত এএম সামাদের ছেলে আব্দুল কাদের শান্ত (১৯) ও তার সহযোগী একই এলাকার মৃত মিজানের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক শুভ (২৩)। বুধবার তাদেরকে টাঙ্গাইল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১১।

নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের এসআই কামাল হোসেন বলেন, ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ দুইজনকে আদালতে হাজির করলে তারা উভয়ে ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে এবং তারা আরো ধর্ষণকারীর নাম প্রকাশ করেছে। জবানবন্দী গ্রহণ শেষে দুইজনকে কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, ২৮ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টায় ১৫ বছরের ভুক্তভোগী কিশোরী সরিষার তেল ক্রয় করার জন্য একা তার বাসার পাশে মুদির দোকানে যায়। এসময় ভুক্তভোগীর পূর্ব পরিচিত রাজন তাকে জোরপূর্বক ফতুল্লা রেলস্টেশন এলাকার বালুর মাঠের নির্জন ও অন্ধকারাচ্ছন্ন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে রাজন, শুভ, শান্ত ও অজ্ঞাত আরো ২ থেকে ৩জন মিলে ভুক্তভোগী কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর এ ব্যাপারে কাউকে কিছু না বলার জন্য ভুক্তভোগীকে হুমকি দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। পরে ভুক্তভোগীর মা বিষয়টি জানার পরদিন ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এর পর থেকে পলাতক ছিল আসামিরা।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও