বিয়ের প্রলোভনে গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হুমকি পুলিশের এএসাইয়ের

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৩৮ পিএম, ৩০ জুন ২০২০ মঙ্গলবার

বিয়ের প্রলোভনে গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হুমকি পুলিশের এএসাইয়ের

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) আব্দুস সামাদের বিরুদ্ধে একজন গৃহবধূকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ার ওই গৃহবধূকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ২৯ জুন সোমবার সকালে আব্দুস সামাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ে দায়ের করা অভিযোগে গৃহবধূ উল্লেখ করেন, উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের দমদমা এলাকার হুমায়ুন নামের এক আসামী ছাড়ানোর মাধ্যমে সোনারগাঁও থানার এএসআই আবদুস সামাদের সঙ্গে পরিচয় ঘটে। ওই সময় থেকে মোবাইল নাম্বার দেওয়ার সুবাধে সময়ে অসময়ে তাকে মোবাইল ফোনে কল দিয়ে বিরক্ত করতো এএসআই সামাদ। পুলিশ প্রশাসনের ক্ষমতার অপব্যবহারের ভয় দেখিয়ে কথা বলতে বাধ্য করতো এএসআই। কথা বলার সুযোগে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রথমবার তাকে ঢাকায় নিয়ে সিএনজি যোগে ঘুরাঘুরির পর মাসুদ নামের এক লোকের বাসায় নিয়ে গৃহবধূকে কোরআন ধরে শপথ করে বিয়ের প্রলোভনে প্রথমবার দৈহিক সম্পর্ক করে। এ ছাড়াও কয়েকবার পাশের বন্দর উপজেলার মালিবাগ ক্যাসেল চাইনিজ রেস্টুরেন্টেসহ একাধিক স্থানে নিয়ে দৈহিক সম্পর্ক করে।

গৃহবধূ আরো উল্লেখ করেন, এএসআই সামাদ তাকে গলার একটি স্বর্ণের চেইন ও ইমুতে কথা বলার জন্য একটি মোবাইল সেট কিনে দেন। গত এক মাস আগে সোনারগাঁও থানার পাশে একটি ফ্ল্যাটে নিয়ে দিনে ও রাতে তাকে ধর্ষণ করে। কিছুদিন আগে গৃহবধূর স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে বাড়ি থেকে বের হয়ে ওই ফ্ল্যাটে চলে আসলে ৫ দিন তার সঙ্গে স্বামী স্ত্রী মতো সংসার করেছে তারা। এ বিষয়টি জানাজানি হলে এএসআই সামাদের স্ত্রী রোকসানা ওই ফ্ল্যাট এসে গৃহবধূকে বেঁধে ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত জখম করে। এ বিষয়টি সোনারগাঁও থানা পুলিশ অবগত রয়েছেন বলে অভিযোগ থেকে জানা যায়।

বর্তমানে বিভিন্ন মোবাইল ফোন থেকে এএসআই সামাদ গৃহবধূকে বিয়ের বদলে হত্যার হুমকি দিচ্ছে বলে জানা যায়।

গৃহবধূ বলেন, আমাকে বিয়ের প্রলোভনে বিভিন্ন সময়ে ডেকে ধর্ষণ করেছে। এখন জানাজানি হওয়ার আমাকে বিয়ের বদলে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। বর্তমানে আমি নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। এ বিষয়ে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অভিযোগ দিয়েছি।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য সোনারগাঁও থানার এএসআই আবদুস সামাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

নারায়ণগঞ্জে সহকারী পুলিশ সুপার (খ-অঞ্চল) মো. খোরশেদ আলম বলেন, পুলিশ সুপার মহোদয়ের কার্যালয়ে দেয়া অভিযোগটি পুলিশ সুপার মহোদয় ব্যবস্থা নেবেন। আমি মৌখিক শুনছি। বর্তমানে সামাদ ছুটিতে আছেন। ছুটি শেষে ফেরার পর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও