মা ছেলে খুন

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৫৬ পিএম, ৮ জুলাই ২০২০ বুধবার

মা ছেলে খুন

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর ছুরিকাঘাতে মারা গেছেন ছেলে ও স্ত্রী। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার (৮ জুলাই) দিনগত ২টায় ফতুল্লার পশ্চিম ভোলাইল গেদ্দার বাজার এলাকাস্থ শাহ আলমের ভাড়াটিয়া বাড়িতে এঘটনা ঘটে।

দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহাগ (১৫) মারা যায়। অপরদিকে বিকেল ৫টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান সোহাগের মা মনোয়ারা বেগম (৪২)।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, ময়মনসিংহের ত্রিশালের রিকশা চালক হারেস মিয়া সপরিবার নিয়ে ফতুল্লার পশ্চিম ভোলাইল শাহ আলমের টিনের তৈরি ভাড়াটিয়া ঘরে নিয়ে ভাড়া হিসাবে বসবাস করে। তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম স্থানীয় একটি মিনি গার্মেন্টে চাকরি করে। ছেলে সোহাগ স্থানীয় একটি গার্মেন্টে চাকরি করে। মেয়ে বিথী আক্তার (১২) ভোলাইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীতে লেখাপড়া করে। হারেস তার স্ত্রীকে পরকীয়া সম্পর্ক নিয়ে সন্দেহ করে।

এনিয়ে প্রায় সময় তাদের সংসারে ঝগড়া সৃষ্টি হয়। মঙ্গলবার রাতে স্বামী স্ত্রীর ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে রাত ২টার দিকে হারেস মিয়ার হাতে থাকা ধারালো ছোরা দিয়ে তার স্ত্রীকে আঘাত করে।

পরে মাকে বাঁচাতে যায় ছেলে সোহাগ। তখন হারেস তার ছেলে সোহাগকে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। ওই সময়ে হারেস নিজের পেটে নিজেই ছুরিকাঘাত করে। এসময় তাদের চিৎকারে এক ঘরে থাকা মেয়ে বিথী ঘুম ভেঙ্গে চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে সোহাগ সহ হারেস ও মনোয়ারা বেগমকে নারায়ণগঞ্জ শহরের জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সোহাগকে মৃত ঘোষণা করেন এবং স্বামী স্ত্রীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। সেখানে বিকেলে মনোয়ারা বেগমের মৃত্যু ঘটে।

নিহত সোহাগের ছোট বোন বিথী জানান, তার বাবা তার মাকে সন্দেহ করে। এ নিয়ে সংসারে প্রায় সময় ঝগড়া হয়। মঙ্গলবার রাতে তার বাবা বাসায় এসে ঝগড়া করে তার মাকে ছুরিকাঘাত করে। তার মাকে বাঁচাতে যায় তার ভাই সোহাগ। পরে তার বাবা সোহাগকে ছুরিকাঘাত করে। পরে তার চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এসে তার মা, বাবা ও ভাইকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও