৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ

কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতাদের সামনে ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মারামারি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৩:৪৩ পিএম, ১২ জুলাই ২০১৭ বুধবার | আপডেট: ০৮:৩১ পিএম, ১৩ জুলাই ২০১৭ বৃহস্পতিবার


কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতাদের সামনে ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মারামারি

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান অনুষ্ঠানে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের হাতাহাতি ও মারামারির ঘটনা ঘটেছে। ওই অনুষ্ঠানে আসা কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই ওই সংঘর্ষে লিপ্ত হয় নেতাকর্মীরা।  

বুধবার ১২ জুলাই দুপুরে শহরের হোসিয়ারী সমিতি মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে সকালে সেখানে মহানগর বিএনপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি যখন ভেতরে প্রবেশ করে তখনি মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি আবুল কালামের ছেলে মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাউসার আশার সমর্থকরো ঘিরে রাখে। তারা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীব সমর্থিত নেতাকর্মীদের ভেতরে প্রবেশের সাথে সাথে ধাক্কা দেয় কাউসার সমর্থকেরা। এতে প্রতিবাদের সাথে সাথে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন তার নেতাকর্মীরা। সাথে সাথেই দুই পক্ষের মধ্যে শুরু হয় মারামারি। তখন সাথেই দাঁড়িয়ে ছিলেন প্রধান অতিথি দলের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান, দলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম, সাধারন সম্পাদক এটিএম কামালসহ সিনিয়র নেতারা। তাদের ‘থামো থামো’ নির্দেশনাতেও কথার কোন উত্তরও করেনি কর্মীরা। পরে সাময়িকভাবে শান্ত হয় এ পরিস্থিতি। পরে সদস্য সংগ্রহ অভিযানের অনুষ্ঠানের বক্তৃতায়ও কেন্দ্রীয় নেতাদের বক্তব্যে উঠে আসে মারামারির ঘটনাটি।


দলের ঢাকা বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল বলেন, যেখানে দেশ ও দলের হাজার হাজার মানুষ আমাদের সদস্য হবার জন্য মুখিয়ে রয়েছে সেখানে ক্ষুদ্র বিষয় নিয়ে আমাদের নিজেদের মধ্যে এরকম বিশৃঙ্খলা খুবই বাজে দেখায়। আমাদেরকে এ সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

পরে অনুষ্ঠান শেষে নেতাকর্মীরা বের হওয়ার সময়ে আবারও জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীব সমর্থিত ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আবুল কাউসার আশার লোকজনদের মধ্যে বাকবিতন্ডার পর ফের দুই পক্ষের হাতাহাতি ঘটে। ওই সময়ে কেন্দ্রীয় নেতারা সামনে থাকলেও কেউ কোন প্রতিবাদ করেনি। পরে ব্যাপক সংঘর্ষ লেগে যায় ছাত্রদলের দু গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে। এতে আহত হন রুবেল, আকাশ সহ ৪জন। তাদের শহরের খানপুরে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব জানান, তিনি ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তিনি শুনেছেন তার কয়েকজন কর্মীকে মারধর করা হয়েছে।

মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাউসার আশা জানান, বহিরাগতরা অনুষ্ঠানটি প- করতে চেয়েছিল। কিন্তু মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা সেটা প্রতিহত করে।

মহানগর বিএনপির সেক্রেটারী এটিএম কামাল জানান, আমাদের কর্মসূচীতে কোন ধরনের ঝামেলা হয়নি। অনুষ্ঠান শেষে ও আগে ছবি তোলা নিয়ে কয়েকজনের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে যা বিচ্ছিন্ন ঘটনা।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ