২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৭:১২ অপরাহ্ণ

ডিআইটি মসজিদ ইস্যু ‘আল্লাহ মেয়রের অন্তরে রহমত দেন’


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৩ পিএম, ১০ নভেম্বর ২০১৭ শুক্রবার


ডিআইটি মসজিদ ইস্যু ‘আল্লাহ মেয়রের অন্তরে রহমত দেন’

নারায়ণগঞ্জ শহরের ডিআইটিতে অবস্থিত কেন্দ্রীয় রেলওয়ে জামে মসজিদ আরো সম্পত্তি না জানিয়েছেন মসজিদ কমিটির সেক্রেটারী ও মসজিদের খতিব মাওলানা আবদুল আউয়াল। তিনি শুক্রবার ১০ নভেম্বর জুমআর নামাজের খুতবার বয়ানে বলেন, এ মসজিদের মালিক আল্লাহ। এ মসজিদের জমি ছিল রেলওয়ের। এক সময়ে এ স্থানে টিনের ঘরের মসজিদ ছিল। দিন দিন এর উন্নতি হয়েছে। পরে রেলওয়ের কর্মকর্তারা একবার সরেজমিনে এসে এর মাপঝোঁক করেছেন। তখন মসজিদের জায়গাটি তারা নির্ধারণ করেন। তখন ২প্লট থাকলেও মুসল্লীদের কারণে এর প্লট বেড়েছে। এখন চারটি প্লটের উপর মসজিদ বহুতল হয়েছে। আশেপাশেও বৃদ্ধি পেয়েছে।

আবদুল আউয়াল আরো বলেন, ‘কয়েকদিন আগে মেয়র আমাদের মসজিদের জায়গা দেখে গেছেন। এর কাগজপত্র চেয়েছেন। কিন্তু আদৌ আমাদের কাছে কোন কাগজপত্র নেই। রেলওয়ের জায়গার উপর মসজিদ হয়েছে। আমি মনে করেছিলাম মসজিদের পেছনে যে লেক ও পার্ক হয়েছে তখনই মেয়র আমাদের এ মসজিদের জায়গা নিয়ে বসবেন। তিনি অনেক এলাকাতে মসজিদ মন্দির করেছেন। আশা করেছিলেন মসজিদের উন্নয়নেও তিনি এগিয়ে আসবেন। কিন্তু হয়তো তিনি সেটা করতে পারেনি ব্যস্ততার কারণে।’

আমি আশা করবো দোয়া করবো আল্লাহ যেন মেয়রের অন্তরে রহমত দেন যেন মসজিদের কোন সমস্যা সৃষ্টি না করে। এটা আল্লাহর মসজিদ বুঝতে হবে। হয়তো মেয়কে কেউ ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্ত করছে।

৬ নভেম্বর সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের দেওভোগ বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ইকো পার্ক পরিদর্শন করে ডিআইটি মসজিদের জায়গা বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে মসজিদ কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ শাহ আলমকে নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী কাগজপত্র চান।

মেয়র আইভী আকস্মিক পরিদর্শনে ঘুরে দেখতে পান, মসজিদের একাধিক গোডাউন, প্রিন্টিং প্রেস, টেইলার ও ঘর রয়েছে। এগুলো থেকে মনে হচ্ছে মাসে অনেক ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। মসজিদের এত বড় অযুখানা ও টয়লেট থাকার পরও আরো অযুখানা ও টয়লেট নির্মাণ করা হচ্ছে।

তিনি তখন মসজিদ কমিটিকে বলেন, মসজিদের জায়গা নিতে আসবে না নাসিক কর্তৃপক্ষ। আপনাদের বৈধ কাগজপত্র নিয়ে আমার কাছে আসুন। যতটুকু পাওনা ততটুকু আপনাদের দেয়া হবে। অহেতুক জায়গা দখলের জন্য দেয়াল নির্মাণ করে অযু খানা ও টয়লেট নির্মাণ করবেন না। আপনাদের সঠিক কাগজপত্র নিয়ে পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ইমাম সাহেব সহ আপনারা আমাকে দেখান। এখনো অতি দ্রুত উচ্ছেদকৃত বস্তি জায়গায় অত্যাধুনিক পার্কের দ্বিতীয় অংশের কাজ শুরু হবে। ইতোমধ্যে পার্কের প্রথম অংশের কাজ শেষ প্রান্তে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ