২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৭:১৩ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি : দুই দলেই তরুণদের হাতে নেতৃত্বের ঝাণ্ডা


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৩১ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৩:৩৭ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার


আওয়ামী লীগ ও বিএনপি : দুই দলেই তরুণদের হাতে নেতৃত্বের ঝাণ্ডা

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগরে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের দুটি কমিটিতেই তরুণ নেতাদের প্রাধান্য দেখা যাচ্ছে। ক্রমশ তরুণদের হাতেই চলে আসছে নেতৃত্ব।

সবশেষ নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বড় চমক দেখিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ঠিকাদার একেএম আবু সুফিয়ান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের তথ্য যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট ইকবাল পারভেজ, কেন্দ্রীয় স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু ও মীর সোহেল। এর আগে নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগের কোন পদে তারা ছিলেন না। অনেকটা নতুন মুখও তারা।

এক সময় যুবলীগের একজন কর্মী ছিলেন সুফিয়ান। আর ইকবাল পারভেজ ও আবু জাফর চৌধুরী ছিলেন কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে। এদের  মধ্যে সুফিয়ান বাদে বাকি দুইজন আগামী জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশা নিয়ে নিজ নিজ প্রত্যাশিত এলাকায় জনসংযোগ করে আসছেন। মীর সোহেল ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি থেকে সরাসরি জেলা আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় সাংগঠনিক সম্পাদক।

এদিকে আবু জাফর চৌধুরী বিরু ও ইকবাল পারভেজকে করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। তিন জন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে দ্বিতীয় হলেন বিরু ও তৃতীয় যুগ্ম সম্পাদক পদে ইকবাল পারভেজ।

আবু জাফর চৌধুরী বিরু প্রায় বছর খানেক ধরে নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসন থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা নিয়ে কাজ করে আসছেন। তিনি নিয়মিত এলাকায় নৌকা প্রতীকের পক্ষে ভোট চাচ্ছেন। ইকবাল পারভেজ নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসন থেকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশা নিয়ে নিয়মিত এলাকায় গণসংযোগ করে আসছেন। এ দুজন স্থানীয় রাজনীতিতে নতুন মুখ। তারা দুজন ছিলেন কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে। দুজন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে এসে চমক সৃষ্টি করেছেন নেতাকর্মীদের মাঝে।

এর আগে গঠিত নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটিতে অধিকাংশ তরুণ নেতা। আর যে সব নেতারা দীর্ঘদিন রাজনীতি করে আসছেন তাদের রাখা হয়েছে সদস্য পদে। এ কমিটিতে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে তরুণ নেতাদের। যাদের মধ্যে যুবলীগের অনেক নেতার ঠাঁই মিলেছে। কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ঠাঁই পেয়েছেন জাকিরুল আলম হেলাল, অ্যাডভোকেট মাহমুদা আক্তার মালা ও জিএম আরাফাত। জাকিরুল আলম হেলাল নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, অ্যাডভোকেট মাহমুদা আক্তার মালা জেলা আওয়ামী যুব মহিলা লীগ সভাপতি ও জিএম আরাফাত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। যুগ্ম সম্পাদক আহসান হাবিব, জিএম আরমান, শাহ নিজাম। এর মধ্যে সবচেয়ে তরুণ শাহনিজাম যিনি জেলা যুবলীগের যুগ্ম  সম্পাদক পদে রয়েছেন।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ২৩ সদস্যের নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপিটতেও বেশ কয়েকজন তরুণদের প্রাধান্য দেখা গেছে। তাদের মধ্যে যুগ্ম সম্পাদক মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। সাংগঠনিক সম্পাদক ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু। সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম সজল।

২৬ সদস্যের জেলা বিএনপিতেও ছিল তরুণ নেতা। সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, নজরুল ইসলাম পান্না, মাসুকুল ইসলাম রাজীব। সহ সাংঠনিক সম্পাদক উজ্জল হোসেন ও রুহুল আমিন সিকদার। সদস্য পদে নজরুল ইসলাম আজাদ ও মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূইয়া।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ