৩০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ , ২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

একই ধারার কমিটি বিএনপি ও আওয়ামী লীগের


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০০ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ১১:১৯ পিএম, ৩ ডিসেম্বর ২০১৭ রবিবার


একই ধারার কমিটি বিএনপি ও আওয়ামী লীগের

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি ও আওয়ামী লীগের কমিটি একই ধারায় বহবান মনে করছেন দলের নেতাকর্মীরা। তাদের মতে, নানা ঘটনার পর জেলা বিএনপির কমিটি যেভাবে হয়েছে সেরকমই হয়েছে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি। দুই কমিটির ধারা একই ধরনের। কারণ দুটি কমিটি নিয়েই শুরু থেকে উঠে বিতর্ক।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির ২৬ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিতে বিএনপির অনেক ত্যাগী ও নির্যাতিত নেতাদের বাদ দেওয়া হয়। আর যাদেরকেই রাখা হয়েছিল তাদের অনেককেই ডিমোশন দেওয়া হয় এমন অভিযোগও উঠে। সে কারণে জেলা বিএনপির কমিটি শুরুতেই হোচট খায়। এখন অনেক জেলা বিএনপির সভাতেও অনেককে দেখা যায় না।

বিএনপির একাধিক নেতা জানান, জেলা বিএনপির কমিটি ইতোমধ্যে ব্যর্থতায় রূপ নিতে শুরু করেছে। অপরদিকে একই ধারায় হয়েছে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি। এ কমিটিতেও এমন নেতাদের স্থান দেওয়া হয়েছে যারা বিগত দিনে কোন আন্দোলন সংগ্রামে ছিল না। বেশীরভাগ নেতাই হলেন ড্রয়িং রুমকেন্দ্রীক। এছাড়া কমিটির শ্রম বিষয়ক পদ থেকে ইতোমধ্যে পদত্যাগ করেছেন কাউসার আহমেদ পলাশ। মনক্ষুন্ন আরো অনেকে।

আওয়ামী লীগের এ কমিটির অনেক নেতাকেই চিনে না অনেক নেতাকর্মী। এসব কারণে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরাও বেশ হতাশ। ৭৪ জনের কমিটিতে শামীম ওসমানের বেশ কয়েকজন নেতা থাকলেও বেশীরভাগই আওয়ামী লীগে একেবারেই নতুন। তারা জেলা কমিটিতে থাকবেন এমন কল্পনাও ছিল না অনেকের। তবে তাদের হাতেই প্রধানমন্ত্রী ঝান্ডা তুলে দিয়েছিলেন।

এর আগে ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর আবদুল হাইকে সভাপতি, সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে সহ সভাপতি এবং আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদলকে সাধারণ সম্পাদক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট জেলা আওয়ামীলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র।

পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে গত এক বছর ধরেই নানা সমীকরণ চলছিল। এরমধ্যে আবদুল হাই, আইভী ও বাদল তাদের পছন্দের লোকজনদের নাম কেন্দ্রে সুপারিশ করে।

কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান বাচ্চু, অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ, আরজু রহমান ভুইয়া, মুক্তিযোদ্ধা খবির উদ্দীন, মুহাম্মদ সানাউল্লাহ, আবদুল কাদির, মোহাম্মদ সিকদার গোলাম রসূল, আধীনাথ বসূ, খাজা রহমত উল্লাহ (প্রয়াত)।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে জাহাঙ্গীর আলম, ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, ইকবাল পারভেজ। সাংগঠনিক সম্পাদক তিন হলেন সুন্দর আলী, মীর সোহেল, একেএম আবু সুফিয়ান। আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ উর রউফ, তথ্য গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক খালিদ হাসান, ত্রাণ ও সমাজকল্যান বিষয়ক সম্পাদক আলমাছ ভূইয়া, দপ্তর সম্পাদক এমএ রাসেল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ইসহাক মিয়া, প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক শেখ সাইফুল ইসলাম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রানু খন্দকার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মরিয়ম কল্পনা, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুল হুদা, যুব ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মানজারী আলম টুটুল, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক ফেরদৌসি আলম নীলা, শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক এসএস জাহাঙ্গীর হোসেন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশ, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নূর হোসেন, স্বাস্থ্য জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. নিজাম আলী, উপ-দপ্তর সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, উপ-প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক নাসিরউদ্দীন, কোষাধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান মনির।

এছাড়াও সদস্য পদে রয়েছেন এমপি গোলাম দস্তগীর গাজী, এমপি নজরুল ইসলাম বাবু, এমপি অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী, এমদাদুল হক ভূইয়া, কায়সার হাসনাত, মাহাবুবুল ইসলাম রাজন, মোশারফ হোসেইন, আমজাদ হোসেন, মির্জা সোহেল, আবুল বাশার টুকু, সাইফুল্লাহ বাদল, মতিউর রহমান, শওকত আলী, মাসুম রহমান, হালিম সিকদার, আবদুল কাদের ডিলার, বিএম কামরুজ্জামান ফারুক, তোফাজ্জল হোসেন মোল্লা, শাহজাহান ভুইয়া, শাহজালাল মিয়া, হেলো সরকার, সামসুল ইসলাম ভুইয়া, আবুুল কালাম, আবদুর রশিদ, সিরাজুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন সাজনু, মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ, শীলা রানী পাল, অ্যাডভোকেট ইসহাক, সামসুজ্জামান ভাষানী, মেজর(অব) মশিউর রহমান, সাদেকুর রহমান, মজিবুর মন্ডল ও ইসহাক ভূইয়া।

জেলা বিএনপির সাবেক কমিটির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামানকে সভাপতি ও জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সেক্রেটারী করে জেলা  বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। ২৬ সদস্যের কমিটিতে সহ সভাপতি হলেন শাহ আলম, খন্দকার আবু জাফর, জান্নাতুল ফেরদৌস, শাসমসুজ্জামান, আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, আজহারুল ইসলাম মান্নান, আবদুল হাই রাজু, মনিরুল ইসলাম রবি, ব্যারিস্টার পারভেজ আহমেদ, লুৎফর রহমান। যুগ্ম  সম্পাদক লৎফর রহমান খোকা, এম এ আকবর। সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, নজরুল ইসলাম পান্না, মাসুকুল ইসলাম রাজীব। সহ সাংঠনিক সম্পাদক উজ্জল হোসেন, অ্যাডভোকেট মাহমুদুল হাসান ও রুহুল আমিন। সদস্য পদে সাবেক এমপি রেজাউল করীম, গিয়াসউদ্দিন, বদরুজ্জামান খান খসরু, নজরুল ইসলাম আজাদ, আতাউর রহমান আঙ্গুর ও মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূইয়া।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ