৭ কার্তিক ১৪২৫, মঙ্গলবার ২৩ অক্টোবর ২০১৮ , ৩:৪৬ পূর্বাহ্ণ

UMo

আলীরটেক গোগনগর দিয়ে কালামের কিলিং মিশন


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৭:৫৮ পিএম, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ বুধবার


আলীরটেক গোগনগর দিয়ে কালামের কিলিং মিশন

নারায়ণগঞ্জ বিএনপির রাজনীতিতে সদর থানাধীন আলীরটেক ও গোগনগর ইউনিয়নে বিএনপির কমিটি গঠনের মাধ্যমে তৈমূর আলম খন্দকার অনুসারিদের রাজনীতি থেকে কিলিং মিশন শুরু করেছেন বিএনপির সাবেক এমপি মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুুল কালাম। সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মহানগর বিএনপির সেক্রেটারি এটিএম কামালও। এভাবে তারা পশ্চিম থেকে শুরু করে পূর্বে মুছাপুর ইউনিয়ন পর্যন্ত এ মিশন চালাবেন বলে অভিযোগ ওঠেছে। কারন মহানগরীর এসব এলাকায় মূলত তৈমূর আলম খন্দকার ও মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের অনুসারিদের ধুয়ে মুছে রাজনীতি থেকে বিদায় করার নীল নকশা তৈরি করেছেন আবুল কালাম ও এটিএম কামাল।

গত ২৫ ডিসেম্বর সোমবার নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সেক্রেটারী এটিএম কামাল প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মফিজুল ইসলাম ও আলী আহম্মদ মোল্লাকে উপদেষ্টা এবং মোহাম্মদ আব্দুর রহমানকে আহ্বায়ক ও মোঃ সৈয়দ হোসেন, মোঃ আওলাদ হোসেন, মোঃ শাহিন হোসেন সরকার, মোঃ আনোয়ার হোসেনকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট আলীরটেক ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অন্যদিকে আব্দুল লতিফ মেম্বার ও তোফাজ্জল হোসেন কাবিলকে উপদেষ্টা এবং মোঃ নজরুল ইসলাম সরদারকে আহ্বায়ক ও মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন মিয়াজী, মোঃ কবির সিকদার, মোঃ মাহমুদুল হাসান মাসুম, মোঃ জুলহাস সরদারকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট গোগনগর ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। আগামী তিন মাসের মধ্যে সম্মেলন করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করার শর্তে এ আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর অভিযোগ ওঠেছে আবুল কালাম ও এটিএম কামাল চক্রান্ত করে নিজেদের অনুসারীদের দিয়ে কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। আহ্বায়ক কমিটিতেও রাজপথের অনেক নেতাদের ঠাই দেয়া হয়নি। এবং পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনেও তৈমূর পন্থীদের ঠাই দেয়া হবে না। বিএনপির আন্দোলন সংগ্রামে গোগনগর ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীদের ভুমিকা ছিল উল্ল্যেখ করার মত।

নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জের এ দুটি ইউনিয়ন এলাকা নিয়ে সদর থানা বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিতে সভাপতি ছিলেন আবদুর রহমান। নদীর ওপারে আলীরটেক ইউনিয়ন ও শহরের পাশের একটি ইউনিয়ন গোগনগর। শহর কেন্দ্রীক আন্দোলন সংগ্রামে তৈমূর আলম খন্দকারের নেতৃত্বে ব্যাপক ভুমিকা রেখেছিল গোগনগর ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীরা। মধ্যম সারির অনেক নেতাকর্মী রাজপথে আন্দোলন করতে গিয়ে পুলিশের মারধর ও গ্রেপ্তার মামলার শিকার হয়েছিলেন। তৈমূর আলম খন্দকার জেলার রাজনীতি থেকে ছিটতে যাওয়ার পর ওইসব নেতাকর্মীরা পড়েছেন বেকায়দায়। এখন যে সব নেতাকর্মী আবুল কালামের কথায় ওঠবস করবেন তাদেরকেই কমিটিতে রাখা হবে। আর যারা চিহ্নিত তৈমূর খোরশেদ পন্থী তাদেরকে কমিটি থেকে বিতারিত করার প্রক্রিয়া চলছে। নেতাকর্মীরা বলছেন আহ্বায়ক কমিটি গঠনের মাধ্যমেই বুঝা গেল আবুল কালাম নেতাকর্মীদের রাজনীতির কিলিং মিশনে নেমেছেন।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ