৫ মাঘ ১৪২৪, শুক্রবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৮ , ১১:২২ পূর্বাহ্ণ

সিনেট ও আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে ঐক্য ফেরাতে চায় বিএনপি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫০ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৮:৫৯ পিএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৮ শনিবার


সিনেট ও আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে ঐক্য ফেরাতে চায় বিএনপি

দীর্ঘদিন ধরেই জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের মধ্যে চলমান দূরত্বকে অবসান করতে চাচ্ছেন বিএপির নেতারা। সামনে নির্বাচন ও আন্দোলনকে টার্গেট করে নিজেদের মধ্যাকার সকল কোন্দলের অবসান করে একসাথে মাঠে থাকতেই এখন ঐক্যের পথে হাটতে চাচ্ছেন নেতারা। আর এ ব্যাপারে ইতোমধ্যেই কেন্দ্র থেকেও দেয়া হয়েছে নানা বার্তা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট নির্বাচন ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরেই এই ঐক্য প্রক্রিয়ায় হাটতে চাচ্ছে দলটি। ইতোমধ্যে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের এই নির্বাচনকে ঘিরে আদালত প্রাঙ্গনে দীর্ঘদিনের দূরত্বকে দূরে ঠেলে অনেককেই দেখা গেছে একসাথে চলতে। নিজেদের মধ্যে কথাবার্তাও বলছেন অনেকে।

গত ৮ জানুয়ারি দুপুরে আদালতে বিএনপি নেতাদের সিনেট নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী প্যানেল ও জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ প্যানেলের পক্ষে প্রচারণা ও ভোট প্রার্থনার সময় এমন ঐক্যের দৃশ্য দেখা যায়। তবে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট প্রার্থনা আচরণবিধি লঙ্ঘন হয় বিধায় নেতাদের সকলকে সালাম দিয়ে প্রার্থীদের দিকে খেয়াল রাখতে বলতে দেখা গেছে। আর সিনেট নির্বাচনে অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকারের পক্ষে ভোট চাইতে দেখা গেছে।

এর আগে রাজনৈতিক বিভিন্ন কারণে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানসহ বিভিন্ন নেতাদের মধ্যে একে অপরের সাথে বিশাল দূরত্ব থাকলেও সোমবার দেখা গেছে সকলেই এক হয়ে তৈমূর আলম খন্দকারের পক্ষে সিনেট নির্বাচনে ভোট চাইতে ও আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থীদের পক্ষে অবস্থান নিতে।

এছাড়াও আদালতপাড়ায় নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশ লক্ষ্য করা গেছে। এর আগে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপির প্যানেল ঘোষণা নিয়ে দলের মধ্যে নানা গ্রুপিং থাকলেও অবশেষে সকল গ্রুপিংয়ের অবসান ঘটিয়ে বিএনপির সকল নেতারা এক হয়েই দলের নির্বাচনী প্যানেল ঘোষণা করেন।

১৩ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ সরকারি তোলারাম কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে সিনেট নির্বাচনের নারায়ণগঞ্জ জেলার ভোট। এখানে ৬৮০ জন ভোটার ভোট দেবেন। সিনেট নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবকদল সহ সাবেক সাংসদ নেতাদেরকেও দেখা গেছে বিভিন্নভাবে প্রস্তুতি নিতে। সরকারি তোলারাম কলেজে ১৩ তারিখ অনুষ্ঠিত ওই নির্বাচনে ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীরা নিজেদের অবস্থান নিয়ে কেন্দ্রে থাকবেন বলেও বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে। বিএনপির কেন্দ্র থেকে চেয়ারপারসন ও মহাসচিব সিনেট নির্বাচনের দিকে সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের জোর দিতে বলেছেন।

তবে যাই হোক, দলের জেলা পর্যায়ের হাতেগোনা কয়েকজন নেতা ছাড়া বাকি সকল নেতারাই এখন দলের স্বার্থে এক হতে চাচ্ছেন। সকলেই চাচ্ছেন এক হয়েই দলের সকল কার্যক্রমে অংশগ্রহন করতে। আর এ জন্য দুটি নির্বাচনে নেতারা নিজেদের সাধ্যমত একে অপরের জন্য কাজ করতে চেষ্টা করছেন এবং সকলেই একসাথে মাঠে থাকতে চেষ্টা করছেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ