১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, শনিবার ২৬ মে ২০১৮ , ১:৫৩ অপরাহ্ণ

নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ‘কাপুরুষ’ রাজনীতি করা উচিত না : শামীম ওসমান


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:৪৬ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ০৪:৪৬ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৮ সোমবার


নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ‘কাপুরুষ’ রাজনীতি করা উচিত না : শামীম ওসমান

হকারদের দাবি বাস্তবায়নের জনসভায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ একেএম শামীম ওসমান বলেন, ‘হকার ভাইয়েরা এতো সমস্যার সম্মুখীন হল। বিএনপির নেতারা আজকে কোথায়। বিএনপির এরা সবাই লাইনবাজ। হকার উচ্ছেদের এই ২৫ দিনে তো এরা কিছু করতে পারলোনা। এরা পারে শুধু মানুষ পুড়িয়ে মাড়তে। এরা জ্বালাও পোড়াওয়ের রাজনীতি করে।

১৫ জানুয়ারী সোমবার বিকেলে শহরের চাষাঢ়া বাগে জান্নাত মসজিদের সামনের সড়কে এক জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আজকে বামদলের মত ছোট দলের নেতার কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) জেলা সভাপতি হাফিজুল ইসলাম তো মারের (নির্যাতনের) ভয়ে পিছু পা হয়নি। এ জন্য আমি হাফিজ ভাইকে ধন্যবাদ জানাই। বিএনপির মত দলের নেতারা কেন হকারদের পাশে নেই। ভয় পেলে রাজনীতি করা উচিত না। কাপুরুষদের রাজনীতি করা উচিত না। রাজনীতি করলে গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। তাতে যত বাধা বিপত্তি কিংবা নির্যাতন আসুকনা কেন। আমি মনে করেছিলাম ২৫ দিনে হকার ইস্যুতে বিএনপি অনেক কিছু করবে। কিন্তু তারা কেউ এগিয়ে আসেনি। কারণ তারা সব লাইনবাজ, এরা ভোটের সময় আসবে। বিএনপি নির্বাচনের সময় বলবে আমরা গরীবের পক্ষে। আমি যেভাবে বলছি এমপি হিসাবে এভাবে বলা ঠিক না। মনে করেছিলাম হকারদের পাশে থেকে বিএনপি নেতারাও লাঠির সামনে থাকবেন। হকারদের গায়ে হাত দিয়েন না এটা বলার মত একজন বিএনপি নেতাও নাই। এই ২৫ দিনেও যখন নারায়ণগঞ্জে আপনারা কিছু করতে পারেননি মানুষের জন্য আপনারা ২০১৮ তে আর আইসেন না পারবেন না।’

প্রসঙ্গত সমাবেশে পুনর্বাসনের আগে ফুটপাতে হকারদের বসার নির্দেশ দেন এমপি শামীম ওসমান। তিনি বলেন, আগামীকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সময় দিলাম। নারায়ণগঞ্জের ডিসি, এসপি, মেয়র সহ যারা আন্দোলন করেছেন চেম্বারসহ সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে বসেন। কাল থেকে সকল দোকান বসবে। যদি কালকের আগে সমাধান দিতে পারেন দেন নয়তো হকার বসবে। কাল সাড়ে ৪টায় আমি নারায়ণগঞ্জে থাকবো এরা আমার ভাই, আমার পরিবার। পুলিশ একটা লাঠি তো দূরের কথা একটা গালিও দিতে পারবেনা। এটা আমার নির্দেশ। ছাত্রলীগ, যুবলীগ সবাই একসাথে মিলে ওরা কিভাবে বসবে সেটা ঠিক করে নিবেন। আমি শামীম ওসমান নির্দেশ দিলাম আগামীকাল (১৬ জানুয়ারী) বিকেল ৫টা হতে শহরে হকার বসবে। আর আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন বিকেল ৫টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত হকার বসবে একটি নিয়ম শৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে। এর মধ্যে তাদের বিকল্প ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনে আমাকেও ডাকতে পারেন। আলোচনার টেবিলে বসেন।’

শহরে গত ২৫ ডিসেম্বর থেকে হকার ইস্যুতে হার্ডলাইনে আছে পুলিশ প্রশাসন। সেই পুলিশকে উদ্দেশ্য করে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি পুলিশ প্রশাসনকে বলতে চাই কোন পুলিশ লাথি তো দূরের কথা গালিও দিতে পারবে না। আর হকারদের বলবো যদি আমাদের কেউ মারধরে করে মার খাবেন তার পর দেখবেন শামীম ওসমান এর পাল্টা জবাব কী নেয়। এটা আমার কোন হুকুম বা আদেশ না এটা আমার নির্দেশ। হকারদের বিকল্প ব্যবস্থা না করে যদি উঠানোর চেষ্টা করেন তাহলে সেটা হবে শামীম ওসমানের মৃত্যুর পর মৃত্যুর আগে না।’

হকারদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, ‘আমরা কাউকে এক টাকা চাঁদা দিবেন না। কেউ চাঁদা চাইলে তাকে বেঁধে রাখবেন।’

নারায়ণগঞ্জ শহরে গত ২৫ ডিসেম্বর থেকেই চলছে ফুটপাত হকারমুক্ত করার উদ্যোগ। সিটি করপোরেশন ও নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে ওই কড়া অভিযান যখন চলছে তখন শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত একেবারেই হকারমুক্ত রয়েছে। শুরুতে হকাররা বিক্ষিপ্ত আন্দোলন করে। পরে তাদের সঙ্গে যুক্ত হন সিপিবি ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতারা। যুক্ত হন ক্ষমতাসীন দলের অনেক সিনিয়র নেতা।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ