১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, শনিবার ২৬ মে ২০১৮ , ২:০৫ অপরাহ্ণ

আইভীকে টেনে নিয়ে আসলেন কারা


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:১৬ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ১০:৪৯ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার


আইভীকে টেনে নিয়ে আসলেন কারা

নারায়ণগঞ্জে ১৬ জানুয়ারী মঙ্গলবার সংঘর্ষের ঘটনার পর ভিডিও ফুটেজ দেখে নানা তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে ঘটনার দিন মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী চাষাড়ার দিকে আসতে না চাইলেও বেশকজন ব্যক্তি আইভীকে টেনে টেনে সায়াম প্লাজার সামনে নিয়ে আসে। ফলশ্রুতিতে যা ঘটার তাই ঘটেছে। ওই সময় আওয়ামীলীগের বেশকজন নেতাও আইভী সহ নেতাকর্মীদের ঘুরিয়ে নেয়ার চেষ্টাও করেছিলেন। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছেন। আইভীর ওই মিছিলে বাম ঘরণার বেশকজন নেতাকেও দেখা গেছে। মিছিলে ছিলেন যাদের মধ্যে সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের নেতা আওলাদ হোসেন অন্যতম।

আইভীকে টেনে নিয়ে আসার বিষয়টিও স্বীকার করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন,‘আমরা আগে মেয়রকে জানিয়েছিলাম। তবে তার সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীরা তাকে ঠেলে নিয়ে আসে।’

মঙ্গলবার সকাল থেকেই মেয়রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল মেয়র নগর ভবন থেকে চাষাঢ়া প্রেস ক্লাবের সামনে আসবেন। পরে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলবেন। এর আগে তিন হেঁটে হেঁটে সাধারণ মানুষ ও হকারদের বুঝানোর চেষ্টা করবেন। কিন্তু ওইদিন বামঘরণার কিছু নেতা ও অতি উৎসাহি কিছু লোকজন আইভীকে সায়াম প্লাজা পর্যন্ত টেনে নিয়ে আসেন। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম ও সহ-সভাপতি আবদুল কাদির আইভীকে মুক্তি জেনারেল হাসপাতালের সামনে থেকেই প্রেস ক্লাবের দিকে ঘুরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তারা পারেননি। কারণ বামঘরণার নেতা ও অতি উৎসাহি লোকজন আইভীকে ঠেলে ঠেলে সায়াম প্লাজার সামনে টেনে নিয়ে আসেন। আইভীর সঙ্গে বিএনপির বেশকজন পরিচিতমুখ নেতাদেরকেও দেখা গেছে। আর বামপন্থী যে সব নেতা আইভীকে ঠেলে ঠেলে নিয়ে আসেন তারা মূলত এমপি শামীম ওসমানের বিরুদ্ধে নিয়মিত নানা ইস্যু তৈরি করে বক্তব্য দিয়ে থাকেন।

মিছিলের শুরুতে আইভীর সঙ্গে দেখা গেছে কাউন্সিলর কবির হোসেন, কাউন্সিলর যুবদল নেতা কাউন্সিলর খোরশেদ, যুবদল নেতা সরকার আলম, বিএনপি নেতা ও কাউন্সিলর হান্নান সরকার, ত্বকী মঞ্চের নেতা আওলাদ হোসেন, শহিদুল্লাহ, কামরুল হাসান বাবু, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, সহ সভাপতি আবদুল কাদির, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, উজ্জল সহ বামপন্থী ও ত্বকী মঞ্চের একাধিক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন এ মিছিলে। এসব নেতাদের মধ্যে আওয়ামীলীগের একাধিক নেতা আইভীকে মুক্তি হাসপাতালের সামনে থেকে ঘুরিয়ে প্রেস ক্লাবের দিকে টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন। আর বাম ঘরানার কিছু নেতা আইভীকে ঠেলে ঠেলে সামনে নিয়ে আসেন। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে আইভীর পিছনেই ছিলেন ত্বকী মঞ্চের নেতা আওলাদ হোসেন। তিনি আইভীকে সামনে নিয়ে আসার জন্য আইভীর পিছনেই দাড়িয়ে সামনে আসতে উৎসাহিত করছেন।

মঙ্গলবার সংঘর্ষের ঘটনার বিষয়ে বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ কালে আইভী অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার বিকেলে যখন ঘটনা তখন পুরো বিষয়টি আমাকে জানানো হয়নি। প্রশাসন আমাকে জানাতে পারতো ওখানে এতো কিছু হচ্ছে। তাহলে আমি যেতাম না।’
 
মেয়রের এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন,‘আমরা আগে মেয়রকে জানিয়েছিলাম। তবে তার সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীরা তাকে ঠেলে চাষাড়া নিয়ে আসে।’

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ