৮ আশ্বিন ১৪২৫, রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৯:০৪ অপরাহ্ণ

শামীম ওসমানের পরাজয় চায় জয়নাল!


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:১৫ পিএম, ২৯ জানুয়ারি ২০১৮ সোমবার


শামীম ওসমানের পরাজয় চায় জয়নাল!

আওয়ামীলীগের এমপি শামীম ওসমান যখন নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে জুয়েল মোহসীন পরিষদকে জয়ী করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চান তখন নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী আল জয়নাল এ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পরিষদকে পরাজিত করার ষড়যন্ত্রে নেমেছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে আইনজীবীদের মধ্যে থেকে। যেখানে এমপি শামীম ওসমান এ জয়ের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করে চলেছেন সেখানে নির্বাচনের আগের দিন আওয়ামী প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী হাসান ফেরদৌস জুয়েলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে আল জয়নাল।

আইনজীবীরা জানিয়েছেন, সোমবার একটি স্থানীয় একটি পত্রিকায় আল জয়নাল তার বক্তব্য দিয়ে হাসান ফেরদৌস জুয়েলের বিরুদ্ধে নানা ধরনের অভিযোগ তুলে সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই পত্রিকার কয়েকশ কপি আদালতপাড়ায় সোমবার বিএনপির আইনজীবী সাখাওয়াত হোসেন খানের সহকারীরা প্রচারপত্রের মত করে বিলি করতে থাকেন। ওই সময় আওয়ামীলীগের আইনজীবীরা দেখে সন্দেহ হলে ওইসব পত্রিকায় রেখে দেন।

এ নিয়ে সাখাওয়াত হোসেন খান তার সহকারীদের কাছ থেকে পত্রিকা কেন রেখে দেওয়া হয়েছে তা জানতে চান জুুয়েলের কাছে। তখন জুয়েল সাখাওয়াত খানকে জানান, যারা পত্রিকা বিলি করছিল তারা তো পত্রিকার হকার না। তার আপনার সহকারী হয়ে মিথ্যা অপপ্রচার করে পত্রিকায় লিখিয়ে কোটের আইনজীবীদের টেবিলে ছড়িয়ে দিবেন সেটা সাধারণ আইনজীবীরা মেনে নেয়নি। এ নিয়ে সাখাওয়াত ও জুয়েলের সঙ্গে মৃদু তর্কও হয়।

তবে এ বিষয়ে মোবাইলে হাসান ফেরদৌস জুয়েলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি শুনেছি সাখাওয়াত হোসেন খান সাহেবের সহকারীরা নাকি একটি পত্রিকার কয়েকশ কপি আদালতের আইনজীবীদের চেম্বারে বিলি করছিল। তখন সাধারণ আইনজীবীরা প্রচারপত্র ভেবে রেখে দিয়েছে। কারন যারা বিলি করছিল তারা তো হকার নন।

ঘটনা সূত্রে জানা গেছে, কয়েক বছর আগে ফতুল্লায় জুয়েলের বাবা তার জীবনের শেষ আয়ের টাকা দিয়ে ৪শতাংশ জমি কিনেন। কিন্তু আল জয়নাল সেই জমির চার দিকের জমিগুলো ক্রয় করে জুয়েলের এ জমি দখলের চেষ্টা করেন। প্রভাব খাটিয়ে জুয়েলের কাছ থেকে জমি ক্রয় করারও প্রস্তাব দেয় জয়নাল। জমিটি বিক্রি করতে সম্মত না হওয়ার কারনে জোর করে জয়নাল দেয়াল নির্মাণ করেন। ওই সময় জয়নালের সন্ত্রাসী বাহিনী জুয়েলের আপন ভাইকে মারধর করে চোখ উপড়ে ফেলেছিল। এ নিয়ে জুয়েল আদালতে মামলা করলে সেই মামলায় জয়নালের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পরে একই দিন জয়নাল মীমাংসার প্রস্তাবের শর্তে জুয়েলের জিম্মায় জয়নালকে জামিন দেন আদালত।

ওই ঘটনা নিয়ে নির্বাচনের মাত্র একদিন আগে জয়নাল জুয়েলের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করায়। আর ওই পত্রিকার কয়েকশ কপি আদালতে বিলি করায় সাখাওয়াত হোসেন খানের সহকারীরা। আইনজীবীরা আরো জানিয়েছেন, এমপি শামীম ওসমান সহ জেলার ৬জন এমপি সর্বাত্মকভাবে আইনজীবী সমিতিতে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে জানপ্রাণ দিয়ে কাজ করছেন। সেই জয়কে বাধাগ্রস্থ করতে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এটা করা হয়েছে। কারন এ নির্বাচনে জুয়েল মোহসীনের জয় নিশ্চিত। যে সব নেতারা শামীম ওসমানকে গালিগালাজ করেছিল ওইসব নেতাদের কাছে শামীম ওসমান নিজে আদালতপাড়ায় এসেছেন। তাদেরকে অনুরোধ করেছেন পাস করাতে। সিনিয়র দুজন আইনজীবীর কাছে জুয়েল মোহসীনকে সালাম করিয়েছেন শামীম ওসমান। সেখানে শামীম ওসমানের প্রচেষ্টাকে পরাজিত করতে নির্বাচনের আগের দিন ষড়যন্ত্র করেছে আল জয়নাল।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ