মোবাইল বন্ধ করে টিভি ফেসবুকে ছিল নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতারা

১ ভাদ্র ১৪২৫, শুক্রবার ১৭ আগস্ট ২০১৮ , ৩:৪৮ পূর্বাহ্ণ

মোবাইল বন্ধ করে টিভি ফেসবুকে ছিল নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতারা


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:২৩ পিএম, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৪:২৩ পিএম, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার


মোবাইল বন্ধ করে টিভি ফেসবুকে ছিল নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতারা

নারায়ণগঞ্জে গত কয়েকদিনের ব্যবধানে ৮টি মামলা দায়েরের পর ভীত নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের বেশীরভাগই রাজধানীতে অবস্থান করবেন না এমন ইঙ্গিত আগেই মিলেছিল। তবে রাজধানীতেই তো নয়ই নারায়ণগঞ্জেও দেখা মেলেনি বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের। মোবাইল ফোন বন্ধ করে তারা বেশীরভাগই ব্যস্ত ছিলেন ফেসবুক ও টিভি চ্যানেলের খবরের দিকে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ৮ ফেব্রুয়ারী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নামে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। ঢাকার বকশীবাজার আলিয়া মাদরাসা মাঠের বিশেষ আদালত-৫ এ মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ৫ বছরের সাজা হয়েছে। এখন তাঁকে নাজিমউদ্দীন রোডে সাবেক ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে। তাছাড়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১০ বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এদিকে গত কয়েকদিনে ৭টি থানার পুলিশ পৃথকভাবে ৮টি মামলা করেছে যেখানে বিএনপি ও এর সহযোগি সংগঠনের ৪০০ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরো অন্তত ৫শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ, মহানগর বিএনপির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীব, জেলা সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট আনোয়ার প্রধান, নাসিকের ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইসরাফিল প্রধান, রূপগঞ্জের কাঞ্চন পৌরসভার মেয়র ও বিএনপি নেতা আবুল বাশার বাদশা, নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক মাসুদ রানা, যুবদল নেতা আরিফ মহসিন, সোনারগাঁও পৌর বিএনপির সহ সভাপতি সালাউদ্দিন, জামপুর ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক লুৎফর মেম্বার, পিরোজপুর ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সামছুল হক সরকার, পৌর বিএনপি নেতা আলমগীর, সোনারগাঁ থানা ছাত্রদল নেতা ওমর ফারুক, সোনারগাঁ থানা যুবদল নেতা সোহেল সহ অর্ধশতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীকে।

এছাড়া বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, বিলুপ্ত শহর বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, নাসিকের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর যুবদলের আহবায়ক মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, ফতুল্লা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি খন্দকার মনিরুজ্জামান, স.ম নুরুল ইসলাম, মহানগর ছাত্রদলের আহবায়ক মনিরুল ইসলাম সজল, যুগ্ম আহবায়ক শাহেদ আহম্মেদসহ ৪০০ বিএনপি নেতার নাম উল্লেখ করে ৫ শতাধিক নেতাকর্মীকে অজ্ঞাত আসামী করে পৃথক ৮টি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

এদিকে গণগ্রেপ্তার এবং একের পর এক মামলা দায়েরের পর থেকেই গ্রেপ্তার আতঙ্কে আত্মগোপনে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। নেতাকর্মীরা আত্মগোপনে থাকলেও শীর্ষ নেতাদের বাড়িতে চলছে পুলিশের তল্লাশী অভিযান। গত ৫ ফেব্রুয়ারী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ:) ও হযরত শাহপরান (রহ:) এর মাজার জিয়ারত করতে যান। তবে ওইদিন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির ১৬ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতার মধ্যে শুধুমাত্র মহানগর বিএনপির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা নজরুল ইসলাম আজাদ ও মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূইয়া এবং তাদের সমর্থকরাই শোডাউন দেখান। ওইদিন শোডাউন দেখাতে গিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে গ্রেফতার হন মহানগর বিএনপির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানসহ ৩ জন। অপরদিকে আড়াইহাজার থেকে গ্রেফতার হন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা নজরুল ইসলাম আজাদ ও আড়াইহাজার যুবদলের আহবায়ক জুয়েল। রূপগঞ্জে মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূইয়ার সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের ধ্বস্তাধ্বস্তি ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। তবে মনোনয়ন প্রত্যাশী বাকী নেতাদের বেশীরভাগই ছিলেন আত্মগোপনে। এর মধ্যে জেলা বিএনপির কিছুসংখ্যক নেতাকে ফটোসেশন করতে দেখা গেলেও ওইদিন পুলিশ বিএনপির কোন নেতাকর্মীকেই সড়কে দাঁড়াতে দেয়নি।

এদিকে ৮ মামলায় ভীত নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতাকর্মীদের অনেকে যেমন আত্মগোপনে রয়েছেন তেমনি জেলা ও মহানগর বিএনপির অনেক শীর্ষ নেতা মামলায় গ্রেফতার আতঙ্কে রাজধানী থেকে অনেক দূরবর্তী অবস্থানে রয়েছেন। এছাড়া গ্রেফতার এড়াতে শীর্ষ নেতারা অনেকেই কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ পর্যন্ত বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছেন। ৮ ফেব্রুয়ারী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায়কে কেন্দ্র করে কর্মীদের প্রতি নারায়ণগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ নেতাদের কোন দিক নির্দেশনা না থাকায় এমনটিই আশঙ্কা করছেন তৃনমূল বিএনপির নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়ার রায় ঘোষণার দিনেও বেশীরভাগ শীর্ষ নেতাদের মুঠোফোন বন্ধ ছিল। মোবাইল ফোন বন্ধ রেখে তারা অনেকেই ফেসবুকে ও টিভি চ্যানেলে খবর দেখতে ব্যস্ত ছিলেন বলে নেতাকর্মীদের সূত্রে জানা গেছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ