৮ আশ্বিন ১৪২৫, রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৯:০৩ অপরাহ্ণ

শামীম ওসমানের ২ ঘটনায় পুলিশ মন্থরগতিতে


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৫০ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ রবিবার


শামীম ওসমানের ২ ঘটনায় পুলিশ মন্থরগতিতে

নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমানের দুটি ঘটনায় পুলিশের তদন্ত আগাচ্ছে বেশ মন্থরগতিতে। এতে পুলিশ প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

দুই সপ্তাহ আগে শামীম ওসমানের বাড়ী থেকে গ্রেফতারকৃত প্রবাসী যুবক সুলতান মাহমুদ শুভ ওরফে শুভ খান বিষয়ে তদন্তের যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে পুলিশ জানালেও এখন বলছে অগ্রগতি তেমন নাই।

মামলার তদন্তকারী সংস্থা ডিবির পরিদর্শক মাজহারুল ইসলাম জানান, আমরা ইতোমধ্যে মামলার অনেক তথ্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছি। তবে এখন আর তদন্ত খুব একটা আগায়নি।

ডিবির একটি সূত্র জানিয়েছে, শুভ ইসলামী ছাত্র শিবিরের সক্রিয় সদস্য সেটা নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে তাঁর পেছনে কারা করছে সেটাকে খতিয়ে দেখতে চলছে তদন্ত। সে শামীম ওসমানের বাড়িতে আসার আগে কী কী করেছে, কার সঙ্গে কথা বলেছে সেগুলো উদঘাটন করা হচ্ছে। তাহলেই এর পেছনের গডফাদারের খোঁজ সম্ভব।

সুলতান মাহমুদ শুভ ওরফে শুভ খান (২৫) নামের ওই যুবকের স্থায়ী ঠিকানা সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ থানার চরতেলিজানা গ্রামে। সে রাজধানীর মিরপুর ১০ শেওড়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা হাসান আলমগীর খানের ছেলে।

এর আগে ফতুল্লা থানার ওসি কামাল উদ্দিন জানিয়েছেন, শুভ মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে জিওমাটিকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তার আইডিতে বিভিন্ন ইসলামিক ভিডিও পাওয়া গেছে।

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা শামীম ওসমান জানান, ১৫ডিসেম্বর বিকালে শুভ নামের ছেলেটি আমার বাড়ির ভেতরে ও বাইরে ভিডিও করে তরিঘরি করে বের হওয়ার সময় তার পরিচয় জানতে চাইলে সে একজন অন লাইন পোর্টালের সংবাদকর্মী বলে পরিচয় দেয়। অন লাইন পোর্টালের আইডি দেখতে চাইলে সে ব্যর্থ হয় এবং তাকে আমার কাছে নিয়ে আসা হয়। এরপর আমি তাকে স্বাগত জানিয়ে বসাই এবং মিথ্যা বলার কারণ জানতে চাইলে সে জানায় ঢাকার একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত। আমি তখন ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি দেখতে চাইলে সে সেটিও দেখাতে ব্যর্থ হয়। তার বাড়ীর ঠিকানা জানতে চাইলে একবার বলে বগুড়া জেলায়, অবার বলে সিরাজগঞ্জ জেলায়। এসময় তার কাছে জাতীয় পরিচয়পত্রও ছিল না। এক পর্যায়ে যুবকটি বলে আমি আপনার ভক্ত তাই দেখতে এসেছি। আমি তখন তাকে বলি, আমার ভক্ত হলে আমার সাথে দেখা না করে কেন গোপনে ভিডিও করে চলে যাচ্ছিলে, এই প্রশ্নের কোন সদুত্তর দিতে না পারলে আমার দেহরক্ষীকে বলি তার তল্লাশী নিতে। এসময় তার মানিব্যাগ থেকে প্রচুর মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত, মালয়েশিয়ার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আইডি, সখানকার ব্যাংক আইডিসহ মালয়েশিয়ান কাগজ ত্র পাওয়া যায়। এই মিথ্যার কারণ জানতে চাইলে সে জানায় বেশ কয়েক মাস আগে সে দেশে ফিরেছে এবং সে উত্তরায় থাকে। কিন্তু মানিব্যাগে এত বেশী মালয়েশিয়ান টাকা কি করে রয়ে গেল এবং উত্তরা কোথায় থাকে জানতে চাইলে সে নীরব হয়ে যায়। এক পর্যায়ে ফতুল্লা পুলিশকে খবর দিলে তারা তাকে নিয়ে যায়।

ঘটনার পর ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ শুভকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতারের পর ২ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে মামলাটি ডিবিকে হস্তান্তর করা হয়।

ডিবির ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, ঘটনাটি বেশ স্পর্শকাতর। সে কোন জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িত কিনা সেটা আরো গভীরভাবে তদন্ত চলছে।

এর আগে শামীম ওসমান গণমাধ্যমকে জানান, ‘১০ ডিসেম্বর রাতে শহরের নিতাইগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে আমাদের মালিকানাধীন কার্গো জাহাজের কর্মচারীরা রাতের খাবারের পরই সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন। ভাগ্যক্রমে একজন কর্মচারী তখনো খাবার না খাওয়ায় তিনি বিষয়টি বুঝে ফেলেন এবং আমাদের জানান। মোট ১৪ জন কর্মচারী জ্ঞান হারান এবং পরদিন সন্ধ্যায় জ্ঞান ফিরে পান। জাহাজটির ইঞ্জিনে বেশকিছু লোহার রড পাওয়া গেছে যেগুলো ইঞ্জিন চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জাহাজটিকে ক্ষতিগ্রস্ত করত। হয়তো যারা কাজটি করেছে তারা কর্মচারীদের সংজ্ঞাহীন করে জাহাজে অবৈধ পণ্য রেখে আমাকে হেয় করার চক্রান্ত করেছিল’

ওই ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি মামলা হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই শফিকুর জানান, দুইজনকে সন্দেহজনক গ্রেফতার করা হয়েছিল। মামলাটির তেমন কোন অগ্রগতি নাই।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ