৮ আষাঢ় ১৪২৫, শুক্রবার ২২ জুন ২০১৮ , ৩:৪০ অপরাহ্ণ

বিপর্যস্ত নারায়ণগঞ্জ বিএনপির উচ্ছ্বাস


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৪২ পিএম, ১৩ মার্চ ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৮:২৯ পিএম, ১৫ মার্চ ২০১৮ বৃহস্পতিবার


বিপর্যস্ত নারায়ণগঞ্জ বিএনপির উচ্ছ্বাস

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৪ মাসের অন্তবর্তীকালীন জামিন পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সোমবার উচ্চ আদালতের একটি বেঞ্চ বেগম খালেদা জিয়াকে এ জামিন দেন। এদিকে নারায়ণগঞ্জের বিএনপির নেতারা যখন মামলায় বিপর্যস্ত তখন বেগম খালেদা জিয়ার এ জামিনে উচ্ছ্বাস দেখা যাচ্ছে বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঝে। জামিনের কথা শুনেই নারায়ণগঞ্জের নেতাকর্মীরা ঢাকায় বিএনপির কার্যালয় নয়াপল্টন ও গুলশানে ভীড় জমিয়েছেন।

সোমবার দুপুরে বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের খবরে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সেক্রেটারি এটিএম কামাল তার বাসায় নেতাকর্মীদের নিয়ে শোকরানা দোয়া পালন করেছেন। পরে তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের নিয়ে ঢাকায় নেতাদের সঙ্গে দেখা করতে যান। জামিনের খবর শুনে তার ভিতরেও উচ্ছাস দেখা গেল।

একইভাবে বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের খবরে নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির ভবনের সামনে বিএনপির আইনজীবীরা শোকরানা দোয়া পালন করেছেন। আইনজীবী সমিতির ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট আজিজ আল মামুনের নেতৃত্বে বেশকজন আইনজীবী এ দোয়ায় অংশগ্রহন করেন। এদের ছাড়াও বিএনপির নেতাকর্মীরা নারায়ণগঞ্জ থেকে দুপুরের পরপরই ঢাকায় যাওয়া শুরু করেন।

এছাড়াও সকাল থেকেই বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের চেম্বারের সামনে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা জড়ো হন। মহাসমাবেশের ঘোষণায় আগে থেকেই নেতাকর্মীরা প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলার সাতটি থানায় ১৩টি বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলা হয়। তারপর থেকে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা করুণ হতে থাকে। আরো দৈন্যদশা সৃষ্টি হয় যখন ৮ ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের সাজা দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠান আদালত।

এসব মামলায় চরম অস্থিরতা ও বিপর্যয়ের মধ্যে কাটাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা। এর আগে ২৬ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি হলেও জামিন পাননি দলটির চেয়ারপারসন। নেতাকর্মীরা আশা দেখেছিল ওইদিন দলের নেত্রী জামিন পাবেন। কিন্তু আদালত জানিয়েছেন বিচারিক আদালত থেকে মামলার রায়ের কপি আদালতে আসার পর আদেশ দিবেন। ফলে ঝুলে যায় বেগম খালেদা জিয়ার জামিন। এমন পরিস্থিতিতে হতাশায় পড়েছিল নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতাকর্মীরা। এমন পরিস্থিতিতে মামলার ঘানি টানছে কয়েক হাজার নেতাকর্মী। প্রায় অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী এখনও নারায়ণগঞ্জ কারাগারে। জামিন মিলছেনা অনেকের। আত্মগোপনে হাজার হাজার নেতাকর্মী। প্রতিদিন উচ্চ আদালত থেকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য আগাম জামিন নিচ্ছেন। জেলা বিএনপির সেক্রেটারিকে ইতিমধ্যে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। একাধিক মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, গত ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে নারায়ণগঞ্জে নাশকতা এড়াতে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার শুরু করে। এ পর্যন্ত জেলার সাতটি থানায় ১৩টি বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। এতে প্রায় সাড়ে ৬ শতাধিক নেতাকর্মীর নাম উল্ল্যেখ সহ আরো কয়েক হাজার নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়। গ্রেপ্তার করা হয় প্রায় ৮০ জনের বেশি নেতাকর্মীকে। এর মধ্যে তিনজন আইনজীবী সহ মাত্র ১১ জন নেতাকর্মী জামিনে কারামুক্ত হন। প্রায় ২৫দিন যাবত কারাগারে রয়েছে অর্ধশতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীকে। একাধিকবার জামিন আবেদনের শুনানি হলেও জামিন মিলছে না এসব নেতাকর্মীদের। এমন পরিস্থিতিতে বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের খবরে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে কিছুটা উচ্ছ্বাস দেখা গেল সোমবার।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ