জনগণকে ডাণ্ডা মেরে ঠাণ্ডা রাখতে চায় : জোনায়েদ সাকি

৪ ভাদ্র ১৪২৫, রবিবার ১৯ আগস্ট ২০১৮ , ৫:২০ অপরাহ্ণ

জনগণকে ডাণ্ডা মেরে ঠাণ্ডা রাখতে চায় : জোনায়েদ সাকি


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৭:৫৭ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০৯:৪৯ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০১৮ শনিবার


জনগণকে ডাণ্ডা মেরে ঠাণ্ডা রাখতে চায় : জোনায়েদ সাকি

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কথা বলে নির্বাচনকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে। তারা দেশের জনগণকে ডাণ্ডা মেরে ঠাণ্ডা রাখতে চায়। বর্তমান সরকার যতই জঙ্গীবাদ দমনের কথা বলুক না কেন দেশে গণতান্ত্রিক অবস্থা ফিরে না আসলে জঙ্গীবাদের উত্থান ঘটবে। আর তাই গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা কার্যকর করতে হবে।

২০ এপ্রিল শুক্রবার বিকেলে ২নং রেল গেইট এলাকায় নারায়ণগঞ্জ জেলা গণসংহতি আন্দোলনের ১ম জেলা সম্মেলনে প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগের সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহবায়ক রফিউর রাব্বী দেশের জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। উদ্বোধন শেষে তারা একটি মিছিল নিয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করেন।

কোটা সংস্কার আন্দোলন প্রসঙ্গে জোনায়েদ সাকি বলেন, আমরা মনে করেছিলাম দেশের মানুষ কেউ কিছু বলবে না। কিন্তু ছাত্রসমাজ দেখে আমরা আশান্বিত হয়েছি। কারণ ছাত্রসমাজ ঢাকা সহ দেশের ২৭ টি জেলায় আন্দোলন করে দেখিয়ে দিয়েছে কিভাবে দাবি আদায় করে নিতে হয়। সারাদেশের মানুষ মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগিতা না করলে দেশ স্বাধীন হত না। আমরা বলেছি মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা থাকবে। কিন্তু আপনারা যেভাবে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কোটা রেখেছেন তাতে মনে হয় আপনাদের কোটা নিয়েও রাজনীতি রয়েছে, মতলব রয়েছে। কিন্তু দেশের ছাত্রসমাজ পুলিশ ও ছাত্রলীগের মুহুমূহু আক্রমণকে মোকাবেলা করে সরকারী চাকরিতে বৈষম্যের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে এসেছে।

তিনি আরো বলেন, একটি গোষ্ঠী সবসময় নিজেদের আখের গোছানোর জন্য দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চাই। আর এতে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি জড়িত রয়েছে। দেশে ফ্লাইওভার করা হয় সমস্যার সমাধানের জন্য। কিন্তু লক্ষ্য হচ্ছে সমস্যার সমাধান নয় টাকা কামানো। এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য গণতন্ত্রের কোন বিকল্প নেই। তাই আসুন আমরা সবাই মিলে গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের জন্য লড়াই করি। গণসংহতি আন্দোলন সেই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা গণসংহতি আন্দোলনের আহবায়ক তরিকুল সুজনের সভাপতিত্ব ও সদস্য সচিব অঞ্জন দাসের সঞ্চালনায় সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন গণসংহতি আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল, নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল, জেলা নারী সংহতির আহবায়ক নাজমা রহমান, সম্পাদক পপি রানী সরকার ও গণসংহতির মহানগর আহবায়ক রফিকুল বাপ্পীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

গণসংহতি আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল বলেন, নারায়ণগঞ্জ হচ্ছে প্রতিরোধের নগরী। দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জের মানুষ লড়াই করে যাচ্ছে। আপনাদের এ লড়াইয়ের সাথে গণসংহতি আন্দোলন আছে। বাংলাদেশের মানুষ আজ নিরাপদে নেই। স্বাধীনতার প্রশ্নে সবচেয়ে বেশী খারাপ অবস্থায় দেশের মানুষ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ