১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, সোমবার ২৮ মে ২০১৮ , ৪:০২ অপরাহ্ণ

নিলামে উঠছে বজলুর রহমানের ফ্যাক্টরী সহ জমি বন্ধকী সম্পত্তি


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫৫ পিএম, ২ মে ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ০৩:১৩ পিএম, ৫ মে ২০১৮ শনিবার


নিলামে উঠছে বজলুর রহমানের ফ্যাক্টরী সহ জমি বন্ধকী সম্পত্তি

দু’টি ফ্যাক্টরী নিলামে উঠেছে। যে কারণে নিজের অস্তিত্ব রক্ষায় বিএনপি দলীয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিমের ভাই শিল্পপতি বজলুর রহমান এবার রাজনীতিতে পদার্পন করছেন বলে মনে করছেন সোনারগাঁবাসী। ইতোমধ্যে সাড়ে ৪৭ কোটি টাকা ঋনের কারণে তাদের দু’টি ফ্যাক্টরী নিলামে তোলার বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বাংলাদেশ ডেভেলপম্যান্ট ব্যাংক। ওই দু’টি কারখানার প্রকল্প জমির পরিমাণ ৭৯৩ দশমিক ৮৩ শতাংশ। এছাড়া বন্ধকী সম্পত্তির পরিমাণ ৭৭৮ দশমিক ৪৮ শতাংশ। চলতি মাসের শেষ দিকেই তাদের দু’টি ফ্যাক্টরী ও বন্ধকীকৃত সম্পত্তির নিলাম হবে।

জানা গেছে, বিএনপি দলীয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম আর নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নিবেন না এবং তার বদলে তাদের পরিবার থেকে শিল্পপতি বজলুর রহমান আওয়ামীলীগের নমিনেশন চাইবেন বলে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। গত ৩০ এপ্রিল দৈনিক সমকালে প্রকাশিত সংবাদে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক এমপি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী রেজাউল করিম আগামীতে ভোটে অংশ তথা নির্বাচন করবেন না জানিয়েছেন তারই ছোট ভাই এফবিসিসিআইর পরিচালক মোহাম্মদ বজলুর রহমান। রেজাউল করিম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাবেক প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। বজুলর জানান, তিনি নারায়ণগঞ্জ-৩ তথা সোনারগাঁও এলাকা থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন। তিনি বলেন, স্থানীয়দের সমর্থন তার পক্ষে থাকায় নির্বাচন করতে আগ্রহ বোধ করছেন। তার ভাই অধ্যাপক রেজাউল করিম ওই আসনে চারবার বিএনপি থেকে সংসদ সদস্য হয়েছেন। এবার তার ভাই নির্বাচন করবেন না। পারিবারিক ঐতিহ্য অনুসারে জনগণের আকাঙ্খা পূরণ করতে নির্বাচন করতে চাইছেন তিনি।

এদিকে বজলুর রহমান আকস্মিক আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে ও নমিনেশন প্রত্যাশী হওয়ার নেপথ্যের কারণ তার অস্তিত্ব রক্ষাকেই দেখছেন সকলে। কারণ তার মালিকানাধীন দু’টি কারখানা ইতিমধ্যে নিলাম হওয়ার পথে। এছাড়া আরো কিছু কারখানা এর অনেক আগেই বন্ধ হয়ে গেছে। ঋনে জর্জরিত বজলুর রহমান এজন্য ঘুরে দাড়াতে বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগের ছায়াতলে আসার চেষ্টা করছেন।

জানা গেছে, গত ১ মে দৈনিক প্রথম আলোতে বাংলাদেশ ডেভেলপম্যান্ট ব্যাংক ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয় অর্থঋন আদালত আইন ২০০৩এর ১২(৩) নং ধারার বিধান মতে একটি নিলাম বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। যাতে উল্লেখ করা হয় ৪৭ কোটি ৫৯ লাখ সাতাত্তর হাজার চারশ চুয়াত্তর টাকা ঋন খেলাপীর কারণে সোনারগাঁয়ের মৈষটেকে অবস্থিত বিআর স্পিনিং মিলস্ লিমিটেড এবং বিআর জিপার (প্রা.) লিমিটেড এবং তাদের বন্ধকী সম্পত্তি আগামী ২৭ মে নিলামে তুলেছে বাংলাদেশ ডেভেলপম্যান্ট ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ওইদিন বাংলাদেশ ডেভেলপম্যান্ট ব্যাংক ঢাকা মতিঝিল ব্রাঞ্চ এর রক্ষিত টেন্ডারবক্সে নিলামের দরপত্র দাখিলের জন্য আহবান জানিয়েছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে বিআর স্পিনিং মিলস্ লিমিটেড এবং বিআর জিপার (প্রা.) লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হলেন বজলুর রহমান যিনি বিএনপি দলীয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম এর ছোট ভাই। ওই কারখানা দু’টির চেয়ারম্যান হলেন বজলুর রহমানের স্ত্রী রোকসানা রহমান ও পরিচালক হলেন তার পুত্র মোঃ মাহাবুবুর রহমান। তাদের অফিস হচ্ছে গুলশান-১ এর গুলশান মডেল টাউনের পুলিশ প্লাজা কনকর্ড এর ১১নং ফ্লোরে। দু’টি কারখানার মোট প্রকল্প জমির পরিমাণ ৭৯৩.৮৩ শতাংশ। তাদের বন্ধকীকৃত সম্পত্তির মোট পরিমাণ ৭৭৮.৪৮ শতাংশ বলে জানা গেছে। আগামী ২৭ মে এসকল সম্পত্তির নিলাম অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, বজলুর রহমান বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি ছিলেন। বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ইয়ার্ন মার্চেন্টস এসোসিয়েশন, বিজেএমইএ’র কার্যনির্বাহী সদস্যও ছিলেন। এফবিসিসিআইসহ বেশ কিছু ব্যবসায়িক সংগঠনেরও তিনি সদস্য ও বিভিন্ন পদে ছিলেন। এছাড়া চারদলীয় জোট সরকারের আমলে সাবেক প্রতিমন্ত্রী রেজাউল করিমের প্রভাবেই তিনি গড়ে তুলেছিলেন বেশ কিছু কারখানা।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ