চমক আসছে নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগে

৫ ভাদ্র ১৪২৫, সোমবার ২০ আগস্ট ২০১৮ , ৩:১৭ অপরাহ্ণ

চমক আসছে নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগে


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০৩ পিএম, ৮ মে ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৮:২৫ পিএম, ১০ মে ২০১৮ বৃহস্পতিবার


চমক আসছে নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগে

অচিরেই নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা হতে যাচ্ছে। আর এ কমিটিতে থাকছে বিরাট চমক। কমিটিতে নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী দুই সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান ও নজরুল ইসলাম বাবুর অনুসারিরাই পাচ্ছেন ঠাঁই। তবে বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সেক্রেটারি এ কমিটিতে থাকছেন না সেটাও জানিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। যদিও কেউ কেউ বলছেন সভাপতি ও সেক্রেটারি প্রায় চূড়ান্ত শুধু ঘোষণাটাই বাকি। তবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্মেলন হওয়ার পরেই হতে পারে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের ঘোষণা। আবার অনেকেই বলছেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্মেলনের আগেও কমিটি ঘোষণা করা হতে পারে। কারণ সম্মেলনে নতুন কাউন্সিল হিসেবেও তাদের রাখা হতে পারে।

বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে, প্রকৃত ছাত্রদের নিয়েই নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া প্রায় শেষ। তবে ৫ বা ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা আসতে পারে। এতে সভাপতি পদে আসতে যাচ্ছে এমপি শামীম ওসমানের বলয়ের। অপরজন এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর বলয়ের। তবে যে দুজন ছাত্রলীগ নেতা আলোচনায় রয়েছেন তারা দুজনই শহরে বসবাস করছেন। তবে কমিটি ঘোষণার পূর্ব পর্যন্ত নির্দিষ্ট করে বলতে পারেনি তারাই কমিটিতে আসতে যাচ্ছে।

এদিকে ৮ মে মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ সরকারি তোলারাম কলেজের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান সজীবও তার ফেসবুকে লিখেছেন চমক আসতে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগে।

জানা গেছে, প্রায় ৭ বছর পূর্বে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাত সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। ওই কমিটিতে সভাপতি শেখ সাফায়েত আলম সানি, সেক্রেটারি মিজানুর রহমান সুজন, সিনিয়র সহ-সভাপতি রাজিব দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে আজিজুল হক আজিজ। তবে পরবর্তীতে সভাপতি ও সেক্রেটারি সাংগঠনিক মিটিংয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করে যা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করতে দেখা যায়নি। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে অনেকেই সহ-সভাপতি, সাংগঠনিক সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদক হন।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বলছেন, সারাদেশের ছাত্রলীগের চেয়ে নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগ বিতর্কের ঊর্ধ্বে কর্মকান্ড পরিচালনা করেছে। বড় ধরনের তেমন কোন অভিযোগ জেলা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে দৃশ্যমান হয়নি। যদিও তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের বাবা রফিউর রাব্বি জেলা পুলিশ সুপারকে দেয়া অবগতি পত্রে রাজিব দাস ও মিজানুর রহমান সুজনের নাম উল্লেখ করেছিলেন। রাজিব দাস এখন কলকাতায় রয়েছেন। অপরদিকে রফিকুল ইসলাম তারাবো পৌরসভার একজন কাউন্সিলর পদে রয়েছেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ