১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, শুক্রবার ২৫ মে ২০১৮ , ৫:০৬ অপরাহ্ণ

এবার নজর যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটির দিকে


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৪ পিএম, ১৩ মে ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:৪৪ পিএম, ১৩ মে ২০১৮ রবিবার


এবার নজর যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটির দিকে

আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগে আওয়ামীলীগের বেশকটি সংগঠনের দিকে তাকিয়ে আছেন পদ প্রত্যাশিরা। যদিও নির্বাচনের আগে এসব সংগঠনগুলোর কমিটি হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। যদিও ইতোমধ্যে বৃহস্পতিবার ১০ মে রাতে ঘোষণা করা হয়েছে জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি।

নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল কাদির ও সেক্রেটারি আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল ইতিমধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের মুল কমিটিতে পদ পেয়েছেন। জেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি পদে শহীদ বাদল ও সহ-সভাপতি পদে আবদুল কাদির অধিষ্ট হয়েছেন। তবে তারা মূলদলের যাওয়ার আগেই নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের রাজনীতি স্থবির হয়ে পড়ে। সভাপতি ও সেক্রেটারি পৃথকভাবে রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। যে কারণে যুবলীগের রাজনীতি নারায়ণগঞ্জে নেই বললেই চলে।

বিএনপির জোট সরকার আমলে নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী ছিলেন আবদল কাদির ও জাকিরুল আলম হেলাল। সম্মেলনে আবদুল কাদির ও শহীদ বাদলকে সভাপতি সেক্রেটারি নির্বাচিত করা হয়। জোট সরকার আমলে যুবলীগ আন্দোলন সংগ্রামে বেশ জোড়ালো ভূমিকা পালন করেছিলেন।

অন্যদিকে একই অবস্থা শহর যুবলীগের। শহর যুবলীগের সভাপতি পদে রয়েছেন শাহাদাত হোসেন ভূইয়া সাজনু ও সেক্রেটারি পদে রয়েছেন আলী আহমেদ রেজা উজ্জল। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায়  আসার পর সভাপতি ও সেক্রেটারি পৃথকভাবে রাজনীতি শুরু করেন। ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জে সিটি কর্পোরেশন গঠিত হলেও এখনও মহানগর যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়নি।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক কমিটি হয়েছে প্রায় এক যুগ পূর্বে। কমিটিতে আহ্বায়ক হিসেবে রয়েছেন নিজামউদ্দীন। গোলাম কিবরিয়া খোকন সাহা বেশকজন রয়েছেন যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে। যদিও ইতিমধ্যে শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি বিলুপ্ত করে গত বছর মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটিতে  সভাপতি জুয়েল হোসেন ও সেক্রেটারি পদে কাউন্সিলর সাইফউদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধান।

এর আগে জেলা ও মহানগর যুব মহিলা লীগের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এসব কমিটি নিয়েও বেশ লংকাকান্ড ঘটেছে। এছাড়া তাঁতী লীগের কমিটি নিয়েও আছে নানা ধরনের প্রশ্ন।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্র। ১০ মে বৃহস্পতিবার রাতে ওই কমিটির বিষয়টি জানানো হয়। এতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হয়েছেন আজিজুর রহমান আজিজ ও সেক্রেটারী হয়েছেন আশরাফুল ইসমাইল রাফেল। তাঁদের মধ্যে আজিজ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও রাফেল জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি পদে ছিলেন। অপরদিকে মহানগর ছাত্রলীগের মহানগরের সভাপতি করা হয়েছে আহবায়ক পদে থাকা হাবিবুর রহমান রিয়াদকে। আর সেক্রেটারী হয়েছেন যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্বে থাকা হাসনাত রহমান বিন্দুকে।

জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের দুটি কমিটিতেই প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমানের অনুগামীদের স্থান করে দেওয়া হয়েছে। তবে ছাত্রলীগের দুটি কমিটির কারণে সাফায়েত আলম সানি, মিজানুর রহমান সুজনকে দিয়ে জেলা কিংবা মহানগর যুবলীগের শীর্ষ পদে আসীন করারও প্রচেষ্টা চলছে।

২০১১ সালের জুনে সাফায়েত আলম সানিকে সভাপতি ও মিজানুর রহমান সুজনকে সাধারণ সম্পাদক করে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি গঠন করা হয়। অপরদিকে ২০১৫ সালে ৪ সদস্যের মহানগর ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ