৫ কার্তিক ১৪২৫, রবিবার ২১ অক্টোবর ২০১৮ , ৮:৪৮ পূর্বাহ্ণ

UMo

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ‘স্ট্যান্টবাজি’ ইকবাল পারভেজের


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:০৯ পিএম, ১৯ মে ২০১৮ শনিবার


প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ‘স্ট্যান্টবাজি’ ইকবাল পারভেজের

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে স্ট্যান্টবাজির অভিযোগ উঠেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল পারভেজের বিরুদ্ধে যিনি একই সঙ্গে যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা। ইতোমধ্যে দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের অভিযানে গ্রেফতার ইকবাল পারভেজ প্রচার করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে নৌকার পক্ষে প্রচারণার নির্দেশ দিয়েছেন এবং তার কর্মকান্ড শুনে খুশী হয়েছেন।

তবে ওই খবরের কিছুটা ভিন্নমত পোষণ করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই ও সেক্রেটারী আবু হাসনাত শহীদ বাদল যাঁরা গত বুধবার ১৬ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন। ওই সময়ে ইকবাল পারভেজ ও হেলো সরকার উপস্থিত ছিলেন।

আবদুল হাই গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আদৌ মনোনয়ন কিংবা প্রচারণা নিয়ে কিংবা কারো কর্মকান্ড শোনার সময় পায়নি। ওই জনাকীর্ণ পরিস্থিতিতে শুধু তিনি ফুলের শুভেচ্ছা গ্রহণ করেছেন। তিনি আমাদের দলকে সংঘঠিত করার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া আর কোন কথা হয়নি।’

কিন্তু ইকবাল পারভেজ প্রচার করেছে তিনি নাকি তাঁর কর্মকান্ড প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেছেন যা প্রধানমন্ত্রী শুনে খুশী হয়েছেন। তবে এ ধরনের কোন কথোপকথন হয়নি জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা।

ইকবাল পারভেজ বুধবার সেই ফটোসেশনের পর বৃহস্পতিবার আড়াইহাজারে মিছিলও করে। তিনিও সেদিন এ ধরনের খবর প্রচার করে নেতাকর্মীদের অনুকম্পা আদায়ের চেষ্টা করেন।

এছাড়া শীর্ষ নেতাদের ব্যতিরকে গণমাধ্যমে বক্তব্য দেওয়াটাকে ‘সঠিক না’ মন্তব্য করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী আবু হাসনাত শহীদ বাদল।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনিয়ম ও দুর্নীতি করে প্রায় শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সাবেক সহকারী পরিচালক ইকবাল পারভেজ। ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) প্রায় অর্ধশতাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে।

দুদক সূত্র জানায়, ২ কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার ৬০২ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ইকবাল পারভেজ চৌধুরীকে গ্রেফতার করেন দুদক উপ-পরিচালক নাসির উদ্দিন। তার বিরুদ্ধে রাজধানীর ওয়ারী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়াও রাজধানীর বিভিন্ন থানায় প্রায় ডজনখানেক মামলা রয়েছে তার নামে।

জানা গেছে, ইকবাল ছিলেন রাজউকের একজন সহকারী পরিচালক। পাঁচ বছরেরও বেশি সময় সেখানে কাজ করেছেন। এর আগে ছিলেন সাবেক গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খানের সহকারী আইন কর্মকর্তা। অভিযোগ রয়েছে, প্রতিমন্ত্রীর দাপটে বয়স জালিয়াতি করে তিনি এ পদে যোগ দেন। প্রতিমন্ত্রীর ছত্রচ্ছায়ায় থেকে ক্ষমতাধর হয়ে ওঠা ইকবাল পারভেজের ভয়ে রাজউকের পরিচালক এবং খোদ চেয়ারম্যানসহ গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারাও থাকতেন তটস্থ। গুলশান, বনানী ও মতিঝিলে রাজউকের সরকারি পরিত্যক্ত সম্পত্তির ফাইল গায়েব করতেন পারভেজ। পরে ভুয়া মালিক সাজিয়ে ওই সম্পত্তি বিক্রি করতেন তিনি। তার নেতৃত্বেই গড়ে ওঠে জালিয়াতির এক ভয়ঙ্কর সিন্ডিকেট। আর এভাবেই জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে আঙুল ফুলে কলা গাছে পরিণত হন ইকবাল পারভেজ।

সূত্র জানায়, প্রতিমন্ত্রীর সরাসরি সহযোগিতায় ইকবাল পারভেজ শুধু ঠিকাদারি কর্মকান্ডের মাধ্যমেই গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ভুক্ত পাঁচটি বিভাগ থেকে চার শতাধিক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। টেন্ডারে পাওয়া ঠিকাদারি কাজগুলো না করেও তিনি কয়েক শ কোটি টাকার বিল তুলে নিয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। মাত্র তিন চার বছরের ব্যবধানেই চক্রের তিন সদস্য একাধিক বাড়ি, গাড়ি, প্লটের মালিক হন।

জানা গেছে, পূর্বাচল প্রকল্পে যে ১৬৮টি আদিবাসী-ক্ষতিগ্রস্ত প্লট বরাদ্দ দেয়া হয়, তাতে অন্তত ২০ কোটি টাকার বাণিজ্য করে পকেটস্থ করেন তিনি। প্রতিটি প্লটের বিপরীতে ১০ থেকে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঘুষ নেয়া হয়েছে। শুধু প্লট বরাদ্দ বা টেন্ডার বাণিজ্যই নয়, শেষ মুহূর্তে আবাসন প্রকল্প অবৈধভাবে অনুমোদন নিয়েও বড় ধরনের বাণিজ্য হয় মন্ত্রণালয় ও রাজউকে। রাজধানীর মতিঝিল এলাকায় আর কে মিশন রোডে ২৪ তলা ভবনসহ সরকারের কয়েক শ কোটি টাকা মূল্যের জমি হাতছাড়া হওয়ার পেছনেও ইকবাল পারভেজের ৫০ কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে, বিতর্কিত ঐ কর্মকর্তার মোটা অঙ্কের ঘুষ পকেটস্থ করার কারণেই সরকারকে এত বড় মাশুল দিতে হয়। ১৯৮১ সালের একটি ভুয়া চিঠিকে জায়েজ করার মাধ্যমে ১৫ শতক সরকারি জমি ব্যক্তিমালিকানায় ছেড়ে দেয়ার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেন ইকবাল পারভেজ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ