বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যের আহবানে শওকত আলী

৫ ভাদ্র ১৪২৫, সোমবার ২০ আগস্ট ২০১৮ , ৮:২৫ অপরাহ্ণ

বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যের আহবানে শওকত আলী


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৩৬ পিএম, ৯ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০২:৩৬ পিএম, ৯ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার


বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যের আহবানে শওকত আলী

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরোধের অবসান ঘটিয়ে ঐক্যবদ্ধ করতে জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী।

সম্প্রতি বক্তাবলীতে নির্বাচনী কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে শামীম ওসমানের মত বিনিময় সভা শেষে শওকত আলীর সাথে একান্ত আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিগত সময়ে দলের মধ্যে যে ধরণের অন্তকোন্দল ছিল, সেই কোন্দলের অবসান দেখতে চাই। বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগের কোন কোন্দল দেখতে চাই না। দলের নেতাকর্মীরা যেন কেউ কারো সাথে কোন বিরোধ না থাকে। সবাই কাধে কাধ রেখে দলকে সুসংগঠিত করতে একজোগে কাজ করে শামীম ওসমানের হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।’

শওকত আলী জানান, নারায়ণগঞ্জের আওয়ামীলীগের অভিভাবক আমাদের সকলের নেতা শামীম ওসমানের নেতৃত্বে ফতুল্লায় আমরা রাজনীতি করে আসছি। ওনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ সুসংগঠিত ছিল। আর বিগত ৯৬ সালে শামীম ওসমান এমপি হওয়ার পর বক্তাবলী সহ তার নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। যার কারণে শামীম ওসমান সারাদেশে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এছাড়া বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা শামীম ওসমানের আদর্শে রাজনীতি করেছিল। আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরোধ ছিল না। সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করেছিল। কিন্তুনারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে সারাহ বেগম কবরী এমপি হওয়ার পর বক্তাবলীতে আওয়ামীগকে বিভক্ত করে তোলে। অনেকে কবরীর পিছনে থেকে পরীক্ষিত আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দদের কোনঠাসা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছিল। সেই থেকে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়।

তিনি আরো জানান, কবরী এমপি হয়ে আওয়ামীলীগকে বিভক্তি করেছিল। কিন্তু শামীম ওসমান কোন বিভক্তির রাজনীতি বিশ্বাস করে না। তাই আমরাও বিভক্তি চাই না। তাই বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনে কোন বিরোধ থাকবে না। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। কেউ কাউকে কটুক্তি করে কথা বলবে না। সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে কোন বিরোধ দেখতে চাই না। এখনই সবাইকে মাঠে নামতে হবে, সরকার ও শামীম ওসমানের উন্নয়নের প্রচার করতে হবে। জনগণের সাথে কথা বলতে হবে।

উল্লেখ্য, বক্তাবলীতে আওয়ামীলীগ দুটি মেরু করণের রাজনীতিকে কেন্দ্র করে দলের মধ্যে বিভক্তি তৈরি হয়েছিল। ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলীকে ব্যবহার করে একটি গ্রুপ তৈরি হয়েছিল। আর সাবেক এমপি কবরী পন্থি আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা আরেক গ্রুপ হওয়ার পর দলের মধ্যে হযবরল অবস্থা তৈরি হয়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ