৯ আশ্বিন ১৪২৫, মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ

আত্মবিশ্বাসী বিএনপি প্রথম কর্মসূচিতেই ব্যর্থ


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৯ পিএম, ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ শনিবার


আত্মবিশ্বাসী বিএনপি প্রথম কর্মসূচিতেই ব্যর্থ

দীর্ঘদিন ধরে রাজপথ বিমুখ হয়ে আসছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা। দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনসহ কোন কর্মসূচিতেই তারা সফল হতে পারছিলেন না। তবে স্থানীয় কর্মসূচিতে জেলা ও মহানগর বিএনপি ব্যর্থ হলেও এবারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ঢাকার শোডাউনে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছিলেন তারা। কিন্তু সেই আত্মবিশ্বাসী বিএনপির প্রথম কর্মসূচিতেই তারা ব্যর্থ হয়েছেন।

জানা যায়, ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকেই স্থানীয়ভাবে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা দলীয় কর্মসূচিতে বিফল হয়ে আসছেন। জনসম্পৃক্ততামূলক কর্মসূচিসহ কোন কিছুতেই তারা রাজপথে ফিরতে পারছিলেন না। এরই মধ্যে আন্দোলনকে বেগবান করার লক্ষ্যে ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপিতে করা হয় রদবদল। কাজী মনিরুজ্জামানকে সভাপতি, অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা বিএনপি এবং অ্যাডভোকেট আবুল কালামকে সভাপতি ও এটিএম কামালকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগরের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

নতুন কমিটির ঘোষণার পরেও গতি ফিরছিল না নারায়ণগঞ্জ বিএনপিতে। বরং তারা হামলা-মামলার ভয়ে আগের চেয়ে আরও বেশি ঘরমুখী হয়ে যান। এমনকি তাদের দলীয় প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতেও তারা সফল হতে পারছিলেন না। দলীয় অনেক কর্মসূচিতেই বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে শীর্ষ নেতারা অনুপস্থিত থাকতেন। কমিটি গঠনের পর মাসের পর মাস অতিক্রম হতে চললেও তারা জেলা ও মহানগর বিএনপি কমিটির পূর্ণাঙ্গ রূপ দিতে পারেন নি।

এমতাবস্থায় বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল (বিএনপি)’র ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ছিল গত ১ সেপ্টেম্বর। দিনটি উপলক্ষে রাজধানীর ঢাকা নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে একটি অস্থায়ী মঞ্চে জনসভার আয়োজন করা হয়। সরকারী দলের বিভিন্ন হুমকি-ধমকি ও মামলার ভয়কে উপেক্ষা করেও ওই জনসভাতে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে নজরকাড়া শোডাউন করে থাকেন। ফলে ফের নতুন করে আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা।

এবার সেই আত্মবিশ্বাসী বিএনপির সামনে একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা গিয়েছিল কেন্দ্রীয় ঘোষিত কর্মসূচি সফল করা। কিন্তু তারা প্রথম কর্মসূচিতেই ব্যর্থ হয়েছেন। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি, কারাগারে আদালত স্থাপনের প্রতিবাদ এবং ১ সেপ্টেম্বর বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জনসভার পর থেকে দলীয় ও জোটভুক্ত নেতা কর্মীদের গণগ্রেপ্তার হচ্ছে অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে ৮ সেপ্টেম্বর মহানগর ও জেলায় বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

সেই মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের লক্ষ্যে ৮ সেপ্টম্বর শনিবার নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপি পুলিশের ভয়ে সফল হতে পারেনি। নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান তার নেতাকর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ঘটনাস্থলে জড়ো হওয়ার সাহস করলেও জেলা বিএনপির নেতৃত্বে থাকা সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস পুলিশের ভয়ে পাশ কেটে চলে যান। ফলে এদিনকার কর্মসূচি অন্যদিনের মতোই সফল না হয়ে ব্যর্থতায় পর্যবেষিত হয়েছে।

এসময় জেলা ও মহানগর বিএনপির চারজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন মাহিউদ্দিন মাহি, রতন, আবদুর রহমান ও শহীদ।

এদিকে কর্মসূচি পালনে ব্যর্থ হয়ে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, আমরা সবসময় শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছি। তারই অংশ হিসেবে আজকে আমরা শান্তিপূর্ণ পালন করতে এসেছিলাম। কিন্তু পুলিশ প্রশাসন আমাদের দাঁড়াতে দেয়নি। আমাদেরকে রাজনৈতিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। এভাবে আমাদেরকে দাঁড়াতে না দিলে আমরা কোথায় যাবো। বর্তমান সরকার গণতান্ত্রিক আচরণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। যাদেরকে আটক করা হয়েছে আমরা তাদের অবিলম্বে মুক্তি দাবী করছি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ