২৯ কার্তিক ১৪২৫, বুধবার ১৪ নভেম্বর ২০১৮ , ১১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

UMo

ফতুল্লায় তৈমূর রোজেল মনির সহ ৪৭ জনের তালিকা


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫৯ পিএম, ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ রবিবার


ফতুল্লায় তৈমূর রোজেল মনির সহ ৪৭ জনের তালিকা

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় নাশকতার অভিযোগে জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, ফতুল্লা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি খন্দকার মনিরুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক নেতা আকরাম প্রধান, যুবদল নেতা সরকার আলম সহ সহ ১১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এর মধ্যে ৪৭ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরো ৭০ জনকে আসামী করা হয়েছে।

মামলায় নাম উল্লেখকৃত বাকী আসামীরা হলেন জাহাঙ্গীর আলম, রানা মজিদ, সরদার আলম, আকরাম প্রধান, আবুল কালাম আজাদ, জাকির হোসেন, মাসুদুর রহমান মাসুদ, মো: আনোয়ার হোসেন, তারিকুল ইসলাম তারেক, পরান, জীবন, জাকির, শহীদুল ইসলাম, হাফিজুল ইসলাম হাফিজ, মো: মিরাজুল ইসলাম, মো: আসলাম দেওয়ান, রহিম, মো: আক্কাস মিয়া, মো: কামাল, মো: জয়নাল আবেদীন, স. ম শহীদুল ইসলাম, মাহমুদুল হাসান শাহীন, মো: সেলিম মিয়া, জাহাঙ্গীর, সেলিম সর্দার, ছানোয়ার হোসেন, আলমগীর, মোখলেছুর রহমান, উমর আলী, মাইনুল হোসেন রতন, সফি দেওয়ান, মোহাম্মদ হোসেন, সিরাজ মাদবর, সাইদুল মিয়া, মো: দেলোয়ার হোসেন, সৈকত হোসেন, সোহেল আব্দুল্লাহ, শাহীন মুন্সী, হাফিজুল ইসলাম, মো: জাকির হোসেন ও শফিউল সরদার খোকন।

ফতুল্লা মডেল থানার এস আই মো: শফিউল আলম বাদী হয়ে ৮ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে ওই মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় ২জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, হাজী আ: কাদের ও ইসমাইল হোসেন। তাদের কাছ থেকে ৫টি ককটেল, ১৮ পিছ লোহার রড ও ১৯টি বাশের লাঠি উদ্ধার করা হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

আসামীদের বিরুদ্ধে ৮ সেপ্টেম্বর ফতুল্লা থানার জামতলা ঈদগাহ মাঠের পশ্চিম পার্শ্বে রাস্তার উপর ১০০/১২০জন নেতাকর্মী বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র-সস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্যে সজ্জিত হয়ে দেশকে অস্থিতিশীল ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড ঘটানোর উদ্দেশ্য সমবেত হয়ে নারায়ণগঞ্জে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় হামলা, পাওয়া হাউজ, রেলপথ উড়ানো, তেলের ডিপোতে হামলার অভিযোগ আনা হয়। ওই ঘটনাস্থল থেকেই ২ জনকে আটকের বিষয়টি উল্লেখ করা হয় মামলায়।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের মামলার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

এর আগে ৭ সেপ্টেম্বর ফতুল্লা মডেল থানার এস আই কাজী এনামুল হক বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে ওই মামলাটি দায়ের করেন। এতে জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান, সেক্রেটারী মামুন মাহমুদ, নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সাবেক এমপি গিয়াসউদ্দিন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহবায়ক ও সিটি করপোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক রিয়াদ মোহাম্মদ চৌধুরী, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এম এ আকবর, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি সহ ২৮ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরো ২৫ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলায় ৩জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তারা হলো দুলাল ভূইয়া, রাজীব হোসেন ও সোহেল মোল্লা। তাদের কাছ থেকে ৪টি ককটেল উদ্ধার, ২২ পিছ লোহার রড ও ১৭টি বাশের লাঠি উদ্ধার করা হয়।

আসামীদের বিরুদ্ধে ৬ সেপ্টেম্বর ভূইগড় এলাকাতে একত্রিত হয়ে নারায়ণগঞ্জে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় হামলা, রেলপথ উড়ানো, তেলের ডিপোতে হামলার অভিযোগ আনা হয়। ওই ঘটনাস্থল থেকেই ৩জনকে আটকের বিষয়টি উল্লেখ করা হয় মামলায়।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ