৪ কার্তিক ১৪২৫, শনিবার ২০ অক্টোবর ২০১৮ , ২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

UMo

অস্ত্র গুলি সহ গ্রেফতার ছাত্রদল সভাপতি রনি মামলার এজহারে যা আছে


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২৫ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সোমবার


অস্ত্র গুলি সহ গ্রেফতার ছাত্রদল সভাপতি রনি মামলার এজহারে যা আছে

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনিকে (৩০) ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়ার অভিযোগ ছিল পরিবারের তবে পুলিশ বলছে ১৭ সেপ্টেম্বর সোমবার সকালে তাকে পিস্তল ও গুলি সহ গ্রেফতার করা হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, সোমবার সকাল ৬টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রনিকে ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওই সময়ে রনির কাছ থেকে একটি বিদেশী তৈরি পিস্তল ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়েছে, এসআই শাফীউল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স এসআই তাজুল ইসলাম, রোকনুজ্জামান ও শফিকুল ইসলামকে নিয়ে ১৬ সেপ্টেম্বর রাতে ফতুল্লা থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় মাদক দ্রব্য উদ্ধার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছিলেন। এমন সময় আলীগঞ্জ এলাকায় অবস্থানকালে আনুমানিক ১৭ সেপ্টেম্বর ভোর পৌনে ৫ টায় তাদের কাছে একটি গোপন খবর আসে। তারা জানতে পারেন দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার শাহারা সিটি বালুর মাঠে আরিয়ান গ্রুপের জমিতে কেউ অস্ত্রসহ অবস্থান করছে। তথ্যটির সত্যতা যাচাই করতে ও আইনগত ব্যবস্থা নিতে তারা ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়ে আনুমানিক ভোর ৫ টায় সেখানে উপস্থিত হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অস্ত্রধারী পালানোর চেষ্টা করে।

এসময় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে তারা আসামীকে আটক করতে সফল হন। জিজ্ঞাসাবাদের পর নাম পরিচয় জানতে পারেন তারা। এ সময় সাক্ষী মোঃ সাইফুল ইসলাম খোকন, মোঃ ইমদাদুল হক স্বপন ও রোকনুজ্জামানের মাধ্যমে মশিউর রহমান রনির দেহ তল্লাশী করা হয়। তল্লাশীর সময় তার জিন্সের প্যান্টে কোমরের পিছনের দিকে ডান পাশে গুঁজে রাখা অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। অস্ত্র সম্পর্কে তার কাছে জানতে চাওয়া হলে সে সন্দেহজনক উল্টাপাল্টা কথা বলতে থাকে। এরপর উপস্থিত স্বাক্ষীদের স্বাক্ষর নিয়ে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

অস্ত্রের বর্ণনায় এজহারে উল্লেখ করা হয়েছে, অস্ত্রটি একটি সচল বিদেশী অটোমেটিক পিস্তল, যা কাঠ সংযুক্ত লোহার বাটসহ ৮ ইঞ্চি লম্বা, যার ম্যাগাজিনে ৩ রাউন্ড ৩২ বোরের গুলি লোড করা ছিলো।

রনির ছোট ভাই মহিবুর রহমান রানা জানান, রনি গত ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় পারিবারিক কাজে ঢাকা যায়। আর রাত পর্যন্ত ফিরে আসেনি। তবে রাত সাড়ে ১০টায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তি ঢাকা থেকে টেলিফোনে জানায় যে একটি কালো মাইক্রোবাসে করে কয়েকজন সাদা পোষাকধারী নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয়ে রনিকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। এর পর থেকে নিখোঁজ ছিল রনি। তবে প্রশাসন যেসব অভিযোগ করছে সেগুলো মিথ্যা ও বানোয়াট। কারণ আমার ভাইয়ের বিরুদ্ধে থানায় একটিও ব্যক্তিগত কোন অভিযোগ নেই। যেসব অভিযোগে মামলা হয়েছে সবই রাজনৈতিক কর্মকান্ড করতে গিয়ে হয়েছে। শনিবার রাতে আটক করার পর নাটক সাজাতে একদিন পর গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জকে আইনজীবী সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, ‘রনিকে আদালতে আনার পর আমার সঙ্গে কথা হয়েছে। সে দুইদিনের ঘটনা আমাকে বর্ণনা করেছেন। রনি জানিয়েছেন গত ১৫ তারিখ ঢাকার আরামবাগ থেকে ৭ থেকে ৮জন ডিবি সদস্য পরিচয়ে তাকে আটক করা হয়। তাদের পাশে থাকা একটি মাইক্রোবাসে উঠেই তার হাত, পা এবং চোখ বেঁধে ফেলে ডিবির পরিচয় দানকারী সদস্যরা। আটকের পর ২দিন ধরে তাকে সীমিত পরিমাণ খাবার সরবরাহ করা হত। এছাড়া ছাত্রদলের সাথে জড়িত থাকা এবং সরকার ও তার নেতাদের বিরুদ্ধে কথা বলার অপরাধে ব্যাপক নির্যাতন করা হয় বলেও জানান।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ