৪ কার্তিক ১৪২৫, শনিবার ২০ অক্টোবর ২০১৮ , ২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

UMo

ঢাকা দখল করতে নারায়ণগঞ্জের আওয়ামী লীগই যথেষ্ট : শামীম ওসমান


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৪:১৬ পিএম, ৪ অক্টোবর ২০১৮ বৃহস্পতিবার


ঢাকা দখল করতে নারায়ণগঞ্জের আওয়ামী লীগই যথেষ্ট : শামীম ওসমান

তৃণমূল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, সবাই শরীর ঝাড়া দেন। যাতে ফুটবল লাথি দিতে পারে। এমন লাথি দিবেন যেন ফুটবল মাঠের বাইরে গিয়ে পড়ে। গোল দেয়ার দরকার নেই। সবার ফোন খোলা রাখবেন, যে কোন সময় ডাক আসতে পারে। যাতে করে তাৎক্ষণিক সময় ২০-৫০ হাজার লোক জড়ো হতে পারেন।

বিএনপি জামাতের উদ্দেশ্য করে শামীম ওসমান বলেন, আমি ধরপাকড়ের পক্ষে না, মিথ্যা মামলার পক্ষে না। মাঠে নামার সুযোগ দেয়ার পক্ষে না। তবে পুলিশের কাছে তথ্য থাকলে সেটা অন্য কথা। কিন্তু আমি বলতে চাই, নারায়ণগঞ্জে খেলার চেষ্টা কইরেন না। ষড়যন্ত্র করলে শান্তিতে থাকতে পারবেন না। কাটা গায়ে নুনের চিটা দিয়েন না। তখন কোন বিয়াই টিকবে না। মীর জাফরকে এমপি দেয়া হবে না। এই লড়াই দেশকে বাচানোর লড়াই।

৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে ইসদাইর বাংলা ভবনে নেতাকর্মীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় শামীম ওসমান এই কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, আমাদের সংসার এখন বড় অনেক বড় হয়ে গেছে। আমাদের এই পরিবারের একজন মা। আমরা শেখ হাসিনার জন্য রাজনীতি করি। আমার সামনে যারা উপস্থিত আছেন, আপনারা আমার চেয়ে যোগ্য নেতা। আমি কিছু পাওয়ার জন্য রাজনীতি করি। কিন্তু আপনার কিছু না পেয়েই রাজনীতি করেন। আপনারাই দলের ত্যাগী নেতা।

শামীম ওসমান বলেন, ২০১৪ সালের আগে সুশীল-কুশীল সবকিছু মিলে এক হয়েছিল। আমাদের নেতাকর্মীদেরকে হত্যা করতে চেয়েছিল। তখন অনেকেই বলেছিল আমাদের সময় শেষ, আজকেও বলছে সময় শেষ। সেসময় আমরা বলেছিলাম খেলা হবে। আমরা এখনো বলছি খেলা হবে। আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে লাখো লাখো মানুষ আওয়ামীলীগের নেতত্বে প্রস্তুত আছি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা রাজপথে থাকবো।

নারায়ণগঞ্জের নেতাকর্মীরা ঢাকার রাজপথ দখলের ক্ষমতা রাখে উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেন, আমরা নারায়ণগঞ্জের নেতাকর্মীরা ঢাকার রাজপথ দখলের ক্ষমতা রাখি। অন্য কোন জেলার নেতাকর্মীদের দরকার নেই। আমরা নারায়ণগঞ্জের নেতাকর্মীরাই ঢাকার রাজপথ দখলের জন্য যথেষ্ট। শেখ হাসিনার মতে বাংলাদেশে দুইটি দল রয়েছে। একটি আওয়ামীলীগ অন্যটি আওয়ামীলীগের বিপক্ষের শক্তি। তাদের উদ্দেশ্য এখন একটাই শেখ হাসিনা হঠাও। এজন্য জনগণকে সু-সংগঠিত করতে হবে। আর তাদেরকে সু-সংগঠিত করার দায়িত্ব হচ্ছে আপনাদের মতো ত্যাগী নেতাদের।

সামনে কঠিন সময় আসছে উল্লেখ করে এই সাংসদ বলেন, শেখ হাসিনার ইজ্জতের কসম করে বলছি আল্লাহর কসম করে বলছি সামনে ধাক্কা আসছে। আর এটাই হবে তাদের শেষ লড়াই। আকাশে শুকুন উড়ছে। আমাদের মা-বোনদের সম্ভ্রম থাকবে কিনা সন্দেহ রয়েছে। যারা গ্রেনেড হামলা করতে পারে। তারা শুধু ক্ষমতার আসার জন্য জণগনের কথা বলে নাটক করে। সাধারণ মানুষকে চলন্ত বাসে আগুনে পুড়িয়ে মেরেছে। ওই শক্তিটি আবার লড়াইয়ের চেষ্টা করবে

তিনি বলেন, কেউ কেউ লন্ডনে বসে খেলা খেলছে। টকার যোগান দেয়া হচ্ছে। শয়তান শয়তানী করতে পারে কিন্তু আল্লাহর সাথে পারে না। নৌকা মার্কার নির্বাচন করলে এত কিছু লাগে না। আমরা রাজনীতি করি শেখ হাসিনার জন্য। আমাদেরকে প্রস্তুত থাকতে হবে। আমরা সারাদেশকে বুঝাতে চাই নারায়ণগঞ্জ জেগে গেছে। নারায়ণগঞ্জের দায়িত্ব বেশি। নারায়ণগঞ্জের মাটি পবিত্র মাটি। কোন নেতা কি করল সেটা আমাদের আসে যায় না।

বিএনপি-জামাত কখনোই ক্ষমতায় আসতে পারবে না উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেন, আমাদের সিনিয়র নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেছেন আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় না আসলে ৬ লাখ মানুষ মারা যাবে। আমি বলি আরও বেশি মারা যাবে। তবে আমাদের রক্ষার জন্য আমরাই যথেষ্ট। আমরা পরাজিত শক্তি না। ৯ মাসে ৯০ হাজার পাকিস্তানি নাকে খত দিয়ে ছেড়েছি আমরা সেই শক্তি। আমাদের সামনে এসে লড়াই করার সাহস নারায়ণগঞ্জে কারও নেই। জণগনের শক্তি বড় শক্তি। হাতে আমাদের সময় কম। শেখ হাসিনার মতো এতিমের উপর ভরসা করে বলতে চাই, বিএনপি জামাত বাংলাদেশের ক্ষমতার কাছেও আসতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, আমাদের লড়াই কোনো অস্ত্রের লড়াই না। আমাদের লড়াই জণগনের অধিকার আদায়ের লড়াই। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লড়াই। আওয়ামীলীগ ৫ বছর সময় পেলে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। বিদেশ থেকে লোক এসে আমাদের দেশে চাকরি করবে। আর যদি আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় না আসতে পারে তাহলে বাংলাদেশ হবে আফগানিস্তান।

নারায়ণগঞ্জের এই প্রভাবশালী সংসদ সদস্য বলেন, একটি গোষ্ঠী গণতন্ত্রের কথা বলে মোহাম্মদপুরে মিটিং করে। তবে এখন সেই দিন নেই। বঙ্গবন্ধুর দুর্বলতা ছিল তিনি মানুষকে বিশ্বাস করতেন। আর শেখ হাসিনা বিশ্বাশঘাতকদের চিনে গেছেন। আমাদেরকে এদেশের মানুষের দায়িত্ব নিতে হবে। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য শেখ হাসিনা জীবনের ঝুকি নিয়ে কাজ করছেন।

সিদ্দিরগঞ্জ আওয়ামীলীগের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে শামীম ওসমান বলেন, আমি সিদ্ধিরগঞ্জ আওয়ামীলীগের প্রতি কৃতজ্ঞ। তারা ইতোমধ্যে একটি মিটিং করেছেন। তাদের মতো আপনারা সবাই যার যার এলাকার মানুষের সাথে কথা বলার সুযোগ করে দিবেন। আমরা আপনাদের নাম ঠিকানাসহ মোবাইল নাম্বার দিবেন, যাতে আমি শেখ হাসিনার কাছে আপনাদের নামগুলো জমা দিয়ে বলতে পারি, এরা হচ্ছে আপনার সাচ্চা নেতা। যাতে করে ২ নাম্বাররা চান্স না পাই। আমাদের ভাল মানুষ দরকার।

সভাতে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইফ উল্লাহ বাদল, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াসিন মিয়া, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম চেঙ্গিস, সাবেক পৌর প্রশাসক মতিন প্রধান, কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, শাহাজালাল বাদল, হাসানসহ আওয়ামীলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ