৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১৮ , ৬:২২ অপরাহ্ণ

rabbhaban

চাচা ভাতিজির দেখা হলেও, কথা হয়নি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:১২ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৮ শুক্রবার


চাচা ভাতিজির দেখা হলেও, কথা হয়নি

একই মঞ্চে পাশাপাশি চেয়ারে বসা এক সময়ের সহযোদ্ধা। যারা একে অপরের জন্য খেটেছেন, কাজ করেছেন। একে অন্যের বিজয়ে রেখেছেন অবদান। দীর্ঘদিন এক সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করলেও, এখন দা-কুমড়ার সম্পর্ক তৈরী হয়েছে তাদের মধ্যে। যাদের একজন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন। অপরজন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। রাজনীতিতে এ দুজন চাচা-ভাতিজি হিসেবে পরিচিত।

নারায়ণগঞ্জে আলোচিত সম্পর্কের এ দুজন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়েছিলেন বিপ্লবী কমিউনিস্ট শফিউদ্দিন আহমেদ-এর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে। বসেও ছিলেন, পাশাপাশি আসনে। কিন্তু তাদের মধ্যে হয়নি সামান্যতম আলাপচারিতা। এমনকি মঞ্চে উপস্থিত অনেকেই বলছেন তাঁদেরকে সামান্য কুশল বিনিময় করতেও দেখা যায়নি। একই মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সমাজ কল্যাণমন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

শুক্রবার ১২ অক্টোবর বিকালে নগরীর আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনে আয়োজিত হয়েছিলো অনুষ্ঠানটি। যা সাক্ষী হয়ে থাকলো এ মুহূর্তটুকুর।

এই কাকা সম্পর্কের আনোয়ার হোসেন যদিও নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর বলেছিলেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এবং মেয়র আইভীকে নিয়ে এক টেবিলে বসেই নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নের বিস্ফোরণ ঘটাবেন তিনি। অথচ তিনি নিজেই আইভীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়াতো দূরের কথা কথাও বলেন না।

সূত্র মতে, ২০১১ সালে সিটি নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আইভীর পক্ষে কাজ করেছিলেন আনোয়ার হোসেন। ওই সময় শামীম ওসমান ছিলেন আওয়ামীলীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী। নির্বাচনে আইভীর নির্বাচন পরিচালনা টিমের প্রধানও ছিলেন আনোয়ার হোসেন। আইভী মেয়র নির্বাচিত হলে বছর দুয়েক পরে ২০১৪ সালের উপ নির্বাচনে আইভী বলয় ছেড়ে শামীম ওসমান বলয়ে ফিরেন আনোয়ার হোসেন। সেই আনোয়ার হোসেনই ২০১৬ সালের নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে নানা ধরনের অভিযোগ তুলেছিলেন বিভিন্ন সভা সমাবেশে।

অপরদিকে আনোয়ার হোসেনকে ‘আনোয়ার কাকা’ হিসেবেই সম্ভোধন করেন আইভী। পরবর্তী শামীম ওসমান বলয়ে এসে আইভীর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিতে থাকেন আনোয়ার হোসেন। আইভী তাকে অবমূল্যায়ন করেছেন বলেও অভিযোগ তুলেছিলেন তিনি। একই সঙ্গে বিএনপি জামাতের প্রতি আইভীর প্রীতি রয়েছে বলেও বক্তব্য দিয়েছিলেন আনোয়ার হোসেন। নির্বাচনের পর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হলেও তিনি শামীম ওসমানের সঙ্গেই ছিলেন। সে সময় এমপি শামীম ওসমান ও সেলিম ওসমান বিভিন্ন সভা সমাবেশে আনোয়ার হোসেনকে গুরু হিসেবে দাবি করতেন। সম্মানে আনোয়ার হোসেনকে তারা ভাসিয়েও দিয়েছিলেন।

২০১৬ সালের নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে মনোনীত প্রার্থী হিসেবে আনোয়ার হোসেনের নাম প্রস্তাব করে কেন্দ্রে পাঠায় মহানগর আওয়ামীলীগ। তখন আনোয়ার হোসেনকে প্রথমে রেখে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি মজিবুর রহমান ও বন্দর থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি এমএ রশিদ ভূইয়ার নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়। কিন্তু আওয়ামীলীগের মনোনয়ন বোর্ড নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে ডাক্তার সেলিনা হায়াত আইভীর নাম।

এদিকে যুব মহিলা লীগের কমিটি গঠন ও পাল্টা কমিটি গঠন নিয়ে আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে ওসমান ভাইদের দূরত্ব সৃষ্টি হয়। এখন কালেভদ্রে সেলিম ওসমানের পাশে আনোয়ার হোসেনকে দেখা গেলেও শামীম ওসমানের সঙ্গে তাকে দেখা যায়না অনেকদিন। তিনি এখন পুরোদমে জেলা পরিষদের কার্যক্রম নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। দেখা যাচ্ছে না মেয়র আইভীর পাশেও। এখন আর আনোয়ার হোসেনকে গুরু গুরু সম্বোধন করে সম্মানে ভাসিয়ে দিতেও দেখা যাচ্ছে না ওসমান সহোদরদের। আইভীও বলছেন না আনোয়ার কাকা। জেলার গুরুত্বপূর্ণ এ চার রাজনৈতিক বারবার এক টেবিলে বসার ঐক্যের ডাক দিলেও তা হয়ে ওঠেনি কখনও। এরি মধ্যে চলে এসেছে জাতীয় নির্বাচন। গুরু বা কাকা। মুরুব্বী হিসেবে যে ভূমিকা নেওয়ার কথা বলেছিলেন আনোয়ার সেটাও নিতে পারেননি তিনি।

এদিকে, সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কিছুটা দেরিতেই উপস্থিত হন মেয়র আইভী। ‘কাকা’ আনোয়ার হোসেনের ডান পাশের আসনটিই রাখা ছিলো তার জন্যে। আসন গ্রহণের সময়ও তার চোখে-মুখে ফুটে উঠছিলো দ্বিধা। তবে একাধিক সূত্র বলছে, আসন গ্রহণের সময় আনোয়ার হোসেনকে সালাম দেন আইভী। কিন্তু তার কোনো জবাব আসেনি কাকা আনোয়ার হোসেনের পক্ষ থেকে। এমনকি মঞ্চে বসে থাকা বাকি সময়টুকুও বেশিরভাগ সময় তারা কাটিয়েছেন দুজন দুজনের বিপরীতে তাকিয়ে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ