১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮ , ৩:০৫ অপরাহ্ণ

UMo

বিশ্বস্তদের হাতেই নির্বাচনের দায়িত্ব তুলে দিচ্ছেন শামীম ওসমান


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৪৭ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ বুধবার


বিশ্বস্তদের হাতেই নির্বাচনের দায়িত্ব তুলে দিচ্ছেন শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এমপিদের একজন শামীম ওসমান। বিগত দিনে তার হাতে গড়ে উঠা অনেক নেতাই এখন চলে গেছেন দূরে। কেউ বা সরাসরি আবার কেউ বা পর্দার আড়াল থেকে বিরোধী হয়ে উঠছেন। এসব কারণে পোড় খাওয়া শামীম ওসমান এবার বিশ্বস্তজনদের হাতেই তুলে দিচ্ছেন আগামী নির্বাচনের দায়িত্ব। ইতোমধ্যে মামলা আর হামলার পরেও শামীম ওসমানকে ছেড়ে যায়নি এমন নেতাদেরকে দিয়েই গঠন করা হতে যাচ্ছে নির্বাচনের কলাকৌশল। সে বার্তা ইতোমধ্যে দেওয়া হয়েছে অনুগামীদের কাছেও।

আগামী ২৭ অক্টোবর সমাবেশ শেষ করেই এ নিয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছেন শামীম ওসমান। বিশ্বস্তজনদের হাতে এলাকাভিত্তিক দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে।

শামীম ওসমানের ঘনিষ্ঠ একজন কর্মী নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, আগামী নির্বাচন ও আগামী সময়টা বেশ কঠিন সময় থাকবে। সে কারণেই রাজনৈতিকভাবেও অনেক ঘটনা ঘটবে। সে কারণেই আমাদের এমপি সাহেব বেশ বিচক্ষনতায় বিশ্বস্তদের হাতে তুলে দিতে পারেন নির্বাচনের দায়িত্ব। কারণ পুরো এলাকা একা কারো পক্ষে সামলানো সম্ভব না। সে কারণে কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে চলছে নির্বাচনী পরিচালনার কাজ।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে বিভাজন সহ নানা কারণে শামীম ওসমান গ্রুপে নেতাদের সংখ্যা মাঝে চিড় ধরে। বিশেষ করে শামীম ওসমানের ঘনিষ্ট বন্ধু আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য আনিসুর রহমান দিপু, মহানগর আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী খোকন সাহা এখন দূরে গেছেন।

এসব কারণে শামীম ওসমান আবারও নতুন করে পরীক্ষিত নেতাদের কাছে টানার চেষ্টা করছেন। তাদেরকে পদায়িত করছেন গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতে। তিনি আস্থা রাখতে চাচ্ছেন এসব নেতাদের প্রতি।

সবশেষ শামীম ওসমানের কব্জার ঝুলিতে আরো একটি কমিটি স্থান পেল। মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের ওই কমিটিতে সভাপতি ও সেক্রেটারী সহ ৭৩ সদস্যের প্রায় সকলেই শামীম ওসমানের অনুগামী। মূলত শামীম ওসমানের সুপারিশেই এ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে নিশ্চিত হওয়া গেছে। সভাপতি হওয়া জুয়েল বিলুপ্ত শহর সেচ্ছাসেবক লীগের সেক্রেটারী ছিলেন। তিনি মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল ও শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজুনর ‘ভাগ্নে’। রাজনৈতিক অঙ্গনে জুয়েল ‘ভাগ্নে জুয়েল’ হিসেবেই পরিচিত। অপরদিকে দুলাল প্রধান সিটি করপোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী যুব মহিলা লীগের কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে ইয়াসমিন চৌধুরী লিন্ডাকে আহ্বায়ক এবং সৈয়দা ফেরদৌসি আলম নীলা, সাবিরা সুলতানা নীলা, নিলুফার ইয়াসমিন, ফারিয়া আক্তার হেলেনা ও হাসিনা বেগমকে যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়। সেই সঙ্গে নুরুন্নাহার সন্ধাকে আহ্বায়ক করে এবং সালমা আক্তার শারমীন আক্তার ডলি, মায়ানূূর মায়া, চায়না আক্তার ও রুম্পা আক্তারকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ৪৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দেন নাজমা আক্তার ও অপু উকিল।

মহানগর যুব মহিলা লীগের কমিটি গঠনের বিষয়ে সুপারিশ ছিল মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহার। আর জেলা কমিটির জন্য সুপারিশ ছিল সভাপতি আবদুল হাই ও সেক্রেটারী আবু হাসনাত শহীদ বাদলের। তবে পরে জেলা ও মহানগর আওয়ামী যুব মহিলা লীগের কমিটি ঘোষণা করে দেন নাজমা আক্তার ও অপু উকিল। এতে আহ্বায়ক করা হয়েছে জেলা পরিষদের সদস্য সাদিয়া আফরিন ও যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছে শারমিন আক্তার মেঘলা ও আসমা আক্তারকে। মহানগর কমিটিতে আহ্বায়ক করা হয়েছে অ্যাডভোকেট সুইটি ইয়াসমিন ও যুগ্ম আহ্বায়ক মুনিরা সুলতানাকে। এদের মধ্যে সাদিয়া আফরিন হলো জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাফায়েত আলম সানির স্ত্রী আর সুইটি ইয়াসমিন হলো শামীম ওসমানের বন্ধু নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজলের ভাগ্নি।

অপরদিকে কৃষক লীগের কমিটিতে জেলায় সভাপতি আছেন নাজিমউদ্দিন যিনি সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান। তিনি শামীম ওসমানের একনিষ্ট লোক হিসেবে পরিচিত। সেক্রেটারী হয়েছেন শামীম ওসমানের আরেক বন্ধু বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম চেঙ্গিস। মহানগরের সভাপতি আরমান হোসেন জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান লিটন দুইজনই হলেন শামীম ওসমানের অনুগামী।

অপরদিকে মহানগর আওয়ামী লীগে শামীম ওসমানের শুরুতে প্রভাব থাকলেও সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও তার অনুগামীরা এখন আর আগের মত শামীম ওসমান বলয়ে নেই। সেক্রেটারী খোকন সাহা শামীম ওসমানের বন্ধু হলেও তিনিও ইতোমধ্যে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আগামীতে নির্বাচন করবে ঘোষণা দিয়েছেন। তাঁকে দেখা যাচ্ছে আনোয়ার হোসেনের পক্ষেই বেশী।

এদিকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যকরী সদস্য আনিসুর রহমান দিপু শামীম ওসমানের ঘনিষ্টজন হলেও তিনি এখন আলাদা বলয় করার চেষ্টা করছেন।

এর আগে বাংলাদেশে হোসিয়ারী অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনে কাকতালীয়ভাবে সভাপতি হন আতাউর রহমান। ২০ মার্চ শহরের সনাতন পাল লেনে হোসিয়ারী ক্লাবের ভবনের দ্বিতীয় তলায় পরিচালকদের ভোটে সভাপতি সহ কার্য্যকরী পরিষদ নির্বাচন করা হয়। ওই সময়ে এ নির্বাচন নিয়ে বেশ কয়েকজন সদস্য চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তবে ৫ মাস না পেরুতেই অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আবারো বংলাদেশ হোসিয়ারী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত হলেন নাসিক ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ নাজমুল আলম সজল।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ