১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮ , ৩:০৬ অপরাহ্ণ

UMo

আদালতে নিত্যদিন পদার্পন ছাত্রদল নেতা রনির


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১০ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৮ রবিবার


ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

অস্ত্র সহ গ্রেফতার হবার পরে পরিবারের লোকজন হাফ ছেড়ে বাঁচলেও স্থির নেই নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি। একের পর এক মামলা, রিমান্ড, জেল হাজতে প্রেরণ আর ভিন্ন ভিন্ন মামলায় হাজিরা দিয়ে প্রায় অধিকাংশ সময়েই আদালতে আসতে হচ্ছে রনিকে। গ্রেফতারের পর এ পর্যন্ত ১৮ বার আদালতে হাজির হতে হয়েছে রনিকে। তবে ষড়যন্ত্র মূলক মামলায় একের পর এক রিমান্ডে নিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে রনির পরিবার ও দলের নেতাকর্মীদের।

আদালতে বিএনপি নেতাকর্মীদের আনাগোনা নিত্যদিনের ঘটনা। মামলার জামিন, হাজিরা ও আইনজীবীদের পরামর্শ নিতে সার্বক্ষনিক দেখা যায় নেতাকর্মীদের। নতুন করে নির্বাচনের আগ মুহূর্তে একের পর এক গায়েবি মামলায় পাল্ল¬া ভারী হয়েছে আরো। কেউ কেউ গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে থাকলেও অন্য মামলায় আদালতে হাজির হতে হচ্ছে তাদের।

তবে এক্ষেত্রে হয়রানির শিকার হবার পাশাপাশি লাভবান ও হচ্ছেন অপরদিক থেকে। আদালতে বার বার আসা যাওয়া আর মামলার সংখ্যা গত দিক তাদের বানিয়ে দিচ্ছে দলীয় বিভিন্ন পদ পদবী। খুব সহজেই নেতা বনে চলে যাচ্ছেন তারা।

নির্বাচনের আগ মুহূর্তে বারংবার আদালতে এসে আলোচনার লাইমলাইটে চলে এসেছে জেলা ছাত্রদল সভাপতি মশিউর রহমান রনি। আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমানের বক্তব্যের জের ধরে বিতর্কিত স্ট্যাটাস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে আলোচনার জন্ম দেয় রনি। তার কিছুদিন পরেই রনিকে আরামবাগ থেকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেবার অভিযোগ তুলে রনির পরিবার। ২দিন পর ফতুল¬া মডেল থানা পুলিশ অস্ত্র সহ রনিকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে। মুহূর্তের ভেতরে এতকিছু ঘটিয়ে রনি সারাদেশে আলোচনায় চলে আসে।

এর পর থেকেই নতুন নতুন মামলা সংযুক্ত, রিমান্ড তাকে তৈরী করে দিয়েছে গুরুত্বপূর্ন অবস্থান। ছাত্রদল সহ বিএনপির অঙ্গসংগঠনে আলোচনার শীর্ষেই থাকে রনির প্রসঙ্গ। নেতাকর্মীদের কাছে সহমর্মিতা ও সাহসের প্রতীক হয়ে উঠছে রনি। বিএনপির পাশাপাশি ক্ষমতাসীন দলের লোকজনও স্বীকার করছেন পুরো প্রক্রিয়া দ্রুত গতিতে লাইমলাইটে নিয়ে এসেছে রনিকে। কর্মীদের কাছে তাকে করে তুলেছে জনপ্রিয় ও নজর কেড়েছে কেন্দ্রীয় কমিটির কর্তাব্যাক্তিদের কাছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, সমালোচনার মুখ বন্ধ করে দিতেই সরকারের নির্দেশে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে প্রশাসন, যার উত্তম প্রমাণ ছাত্রদল নেতা রনি। একটি বক্তব্যের কাউন্টার দেবার ফলেই তাকে এত অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করতে হচ্ছে বলে দাবী করেছেন তারা। গ্রেফতারের পর জেল হাজতে থাকার চেয়ে আদালতে বেশী আসতে রনির। আর টানা একের পর এক রিমান্ডে তার শারীরিক অবস্থা ক্রমান্বয়ে খারাপের দিকে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রশাসনকে আরো মানবিক হিসেবে দেখতে চান তারা।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ