১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৫ নভেম্বর ২০১৮ , ৩:০২ অপরাহ্ণ

UMo

সরকারী দলের একতরফা নির্বাচনী প্রচারণা


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২০ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ মঙ্গলবার


সরকারী দলের একতরফা নির্বাচনী প্রচারণা

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে নারায়ণগঞ্জর অলিতে গলিতে পোস্টার আর পোস্টার। বেশিরভাগ পোস্টার নির্বাচনি পোস্টার। ‘অমুক ভাইয়ের সালাম নিন।’ উন্নয়নের ফিরিস্তি। স্বপ্ন বাস্তবায়ন, স্বপ্নের বর্ণনা, আগামীদিনের স্বপ্ন। এর বাইরেও আছে ব্যানার আর ফ্যাস্টুন। তবে এসব পোস্টার বিশ্লেষন করলে দেখা যায় দুটি মার্কার প্রচারণা। কদাচিৎ দেখাযায় হাত পাখার দেয়াল লিখন। আর ফ্যাস্টুনের মধ্যে বড় বড় ফ্যাস্টুন ছেয়ে গেছে শহর, ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকা। প্রতিটি সড়কে ঢুকতেই প্রথচারীর চোখে পড়বে এমন প্রমান সাইজের ফেস্টুন।

এমন বড় সাইজের ফেস্টুন এর সংখ্যা কয়েক হাজার। সম্ভাব্য প্রার্থীর বাইরে কেন্দ্রীয় নেতাদের এবং স্থানীয় নেতাদেরও নিজ দল বা নেতাকে সমর্থন জানিয়ে ভোট প্রার্থনা করতে দেখা গেছে। নির্বাচনের দিন তারিখ ঘোষণার আগেই দল বিশেষ ও সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচার নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন উঠেছে। তাদের প্রশ্ন প্রচারণার এই সুযোগটি নিতে পারছে শুধু ক্ষমতাসীন দল ও তার সহযোগিরা। অন্যদিকে সরকারের যাঁরা প্রতিপক্ষ হিসেবে পরিচিত, অর্থ্যাৎ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের রাখা হয়েছে মামলা এবং হামলার আশঙ্কায়।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন থেকে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ, আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মোহাম্মদ বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, জেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল কাদির ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম আরাফাতের নাম রয়েছে।

তবে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে নৌকার একক প্রার্থী মনে হলেও ভেতরে ভেতরে প্রস্তুতি নিচ্ছেন একাধিক প্রার্থী। তার পরও এই আসনে প্রচরনা অন্যান্য এলাকা থেকে সবচেয়ে বেশি।

সভা সমাবেশ করছেন প্রায় প্রতিদিন। কোথাও না কোথাও প্রার্থী বক্তব্য রাখছেন। তোরণ শোভা পাচ্ছে এলাকায় এলাকায়। পোস্টার লাগছে দেয়ালে দেয়ালে। প্রার্থী নিজে নয় অন্যান্য নেতাকর্মীরা প্রার্থীর পক্ষে প্রচারনা চালাতে পোস্টার করছে এবং দেয়ালে সাটিয়ে দিচ্ছে।

জালকুড়ির আতাউল হক নিয়মিত যাতায়াত করেন ঢাকায়। তার দৃষ্টিতে নির্বাচন শুরু হয়েগেছে অনেক আগে থেকেই। তিনি বলেন, জালকুড়ি থেকে মাতুয়াইল পর্যন্ত যতগুলো সড়ক এর মুখ রয়েছে প্রত্যেক মুখে একটি বড় ডিজিটাল ফ্যাস্টুন রয়েছে যেখানে বর্তমান সংসদ সদস্যর এযাবৎ কালের সকল উন্নয়ন লেখা রয়েছে সঙ্গে রয়েছে প্রকল্পের টাকার অঙ্ক। রয়েছে তার ভবিষ্যতের স্বপ্ন। যা তিনি এখন থেকেই দেখছেন। এখন পর্যন্ত যে সকল স্বপ্ন পূরণ হয়েছে এবং চলমান রয়েছে তার একটি পরিসংখান। এই ব্যানার এর বাইরে অন্য কোন প্রার্থীর পোস্টার, ব্যানার বা ফেস্টুন চোখে পড়ে নাই।

সিদ্ধিরগঞ্জ পুলের রওশন আলী বলেন, নির্বাচনের পোস্টার সব একই মার্কার। অন্য কোন মার্কার পোস্টার চোখে পড়ছে না। আর চোখে পড়ছে বড় বড় ডিজিটাল ব্যানারের ফ্যাস্টুন। যাতে একজন প্রার্থীরই কর্ম এবং পরিকল্পনা রয়েছে। এতে বুঝা যায় বিরোধীদল ছাড়াই সরকারী দল তাদের প্রচরনা একচেটিয়া চালিয়ে যাচ্ছে। যাকে একতরফা বলা যায়।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ