৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১৮ , ৬:২৩ অপরাহ্ণ

rabbhaban

জয়নাল ইস্যুতে আইভীকে প্রশ্ন রেখে ২৪ঘণ্টার অনুরোধ সেলিম ওসমানের


সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২৯ পিএম, ৫ নভেম্বর ২০১৮ সোমবার


জয়নাল ইস্যুতে আইভীকে প্রশ্ন রেখে ২৪ঘণ্টার অনুরোধ সেলিম ওসমানের

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন, মসনদে বসে আওয়ামীলীগের কথা বললে হবে না। আওয়ামীলীগের ফাউন্ডেশন তৈরি করতে হবে। আমার পাশে কেউ দাঁড়াতে চান না, যদি ছবি উঠে যায় এই ভয়ে। আমাদের একজন নেত্রীর সহ্য হচ্ছে না। কিন্তু আমার কি অন্যায় ছিল। আমি ভালোবাসার রাজনীতি করি। আমি কোন প্রতিহিংসার রাজনীতি করি না।

৫ নভেম্বর সোমবার সকালে সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত বহুতল ভবনের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সেলিম ওসমানের নিজস্ব অর্থায়নে এই বহুতল ভবনটির নির্মাণ করা হয়েছে।

সোমবার ৫ নভেম্বর সকাল ১১টায় গোগনগর ইউনিয়নের পুরান সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় এবং দুপুর দেড়টায় আলীরটেক ইউনিয়নের শেখ রাসেল উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবন দুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। এ নিয়ে সেলিম ওসমানের ব্যক্তিগত অর্থায়নে মোট ৬টি স্কুলের নতুন ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।

মেয়র আইভীকে ইঙ্গিত করে সেলিম ওসমান বলেন, ‘তিনি উক্তি করেছেন আমার মঞ্চে আওয়ামী লীগের লোক উঠে। তাদের তিনি ধিক্কার জানান। অথচ আমি আমি চাষাঢ়া থেকে আসার সময়ে ১৮টি ব্যানার দেখেছি একজনের যিনি জমি দখলকারী। তিনি লাঙল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টি হতে নির্বাচন করতে চান। তাকে আমরা জাতীয় পার্টির কোন সমর্থকও পরিচয় দেই নাই। আপনার ছবি দিয়ে সে ছবি লাগিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছে। পোস্টার ছাপিয়েছে। কিন্তু আমার কোন ব্যানার থাকে না। আমার নামে পোস্টার লাগালে আমি মামলা করেছি। আমার অনুমতি ছাড়া কোন ব্যানার পোস্টার লাগানো যাবে না। কিন্তু তার পরেও আমার ব্যানার পোস্টার লাগানোর সাথে সাথেই সিটি কর্পোরেশন ঠাস করে খুলে নামিয়ে ফেলে। সেখানে সিটি করপোরেশনের একজন কন্ট্রাকদারের পোস্টার সাটিয়ে দেয়। আমি মেয়র মহোদয়কে অনুরোধ করলাম আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যেন কোন পোস্টার না থাকে। আমি ভালোবাসার রাজনীতি করি। এটা কোনো নির্বাচনী মিটিং না। আমি কোন ভোট চাইতে আসিনি। আমি এসেছি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের উজ্জল ভবিষ্যত কামনা করার জন্য। একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে শুকরিয়া আদায় করছি। হাজারো নাতি-নাতনির উপস্থিতিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নামে একটি স্কুলে বহুতল ভবন উদ্বোধন করতে পারছি। এই স্কুলটির অন্যান্য সমস্যাগুলোর সমাধান করা হবে।’

মেয়রকে উদ্দেশ্য করে তিনি আরো বলেন, আমার মঞ্চে যদি বিএনপি আর আওয়ামী লীগের নেতারা উঠায় প্রশ্ন উঠে তাহলে আপনাকে বলবো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রশ্ন করা উচিত তিনি কেন বিএনপির সঙ্গে সংলাপে বসেছেন।

তিনি বলেন, আমি ফেরেশতা না। আগে চাঁদ উঠুক, লম্বা সময় পাওয়া যাবে। আমি সংসদ সদস্য হই আর হই এটা কোন বিষয় না। তবে দোয়া করি, যিনি সংসদ সদস্য হবেন, তিনি যেন নারায়ণগঞ্জের মানুষকে শান্তি দিতে পারেন। যেন কোন অপরাজনীতি না করে। আমি যতদিন দায়িত্ব পালন করেছি, ততদিন জনগণের গোলামী করেছি।

আওয়ামীলীগের অস্তিত্ব প্রসঙ্গে সেলিম ওসমান বলেন, পত্রিকায় নিউজ হয় এভাবে চলতে থাকলে আওয়ামীলীগের অস্তিত্ব থাকবে কি। অস্তিত্ব রাখার জন্য বঙ্গবন্ধু ভবন হয়েছে, শেখ জামালের নামে স্কুল হয়েছে, শেখ কামালের নামে ভবন হয়েছে, শেখ রাসেলের নামে স্কুল হয়েছে, ফজিলাতুন নেছার নামে স্কুল হয়েছে। আবারও সংসদ সদস্য হতে পারলে নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগ ছাড়া কিছু থাকবে না।

তিনি আরও বলেন, আমি এরশাদের নামে কোন স্কুল করি নাই, রওশন এরশাদের নামে স্কুল করি না। আমি বঙ্গবন্ধুর ফাউন্ডেশন তৈরি করছি। যারা আগামীতে বঙ্গবন্ধু কথা বলবে। সুতরাং ভরসা হারানো কারণ নাই। আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টির সম্পর্কটা বুঝেন। প্রধানমন্ত্রী জাতীয় পার্টিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন, গত পাঁচ বছরে সংসদে কোন গালাগাল হয় নাই। আমরা শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করবো।

সাংসদ সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে আবারো সকলের সহযোগীতা কামনা করে বলেন নারায়ণগঞ্জকে বসবাস করার জন্য আমি সকলের সাথে মিলেমিশে কাজ করি। আমি কোন বিরোধ কিংবা কোন সংঘাত চাই না। আমি সকলের সহযোগীতা চাই। দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও দেশের স্বার্থেই সব দলের সাথে আলোচনা করছেন। আমি একই ভাবে সকলের সাথে মিলেমিশে কাজ করেছি। এটা যাদের আতে ঘা লাগে তারাই বলে নারায়ণগঞ্জে অস্তিত্ব থাকবে না। যারা এ কথা বলে তারা আওয়ামীলীগ ছেড়ে চলে যেতে পারে। প্রয়োজনে আওয়ামীলীগে দায়িত্ব আমি নিবো। এই নারায়ণগঞ্জেই আওয়ামীলীগের জন্ম তাই নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগ শক্তিশালী অবস্থানে থাকবে। শক্তিশালী অবস্থান গড়তে আওয়ামীলীগের ফাউন্ডেশনের প্রয়োজন। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে সেই কাজটিই করে যাচ্ছি।

স্কুলের উন্নয়ন প্রসঙ্গে সেলিম ওসমান বলেন, আমি সংসদ সদস্য হই আর হই যেন কোনো কাজ বন্ধ না হয়। আমাকে বলা হয়েছে বঙ্গবন্ধু অডিটোরিয়ামের জন্য। আমি বলতে চাই এটা সবচেয়ে সুন্দর অডিটোরিয়াম হবে। যাদের লেখপাড়ার সামর্থ নেই, তাদের মায়েদেরকে স্বাবলম্বী করে দেয়া ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। আপনারা আমাকে তালিকা দেন আমি ১০০ সেলাই মেশিন ও সাথে ৫ হাজার টাকা করে দিব।

বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি জসিম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলী ও গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নওশেদ আলী।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

রাজনীতি -এর সর্বশেষ