মনোনয়ন সংগ্রহে পিছিয়ে নেই নিধিরাম সর্দার খ্যাত নেতারাও

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০১ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ রবিবার



মনোনয়ন সংগ্রহে পিছিয়ে নেই নিধিরাম সর্দার খ্যাত নেতারাও

দরজায় কড়া নাড়ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে সারাদেশেই বইছে নির্বাচনী হাওয়া। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন সংগ্রহে ভীড় করছেন কেন্দ্রীয় নেতাদের দপ্তরে। যদিও দেশের প্রধান দুইটি রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ ও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ইতোমধ্যে মনোনয়ন সংগ্রহের কাজ সেরে ফেলেছেন। তবে কিছু কিছু রাজনৈতিক দল এখনও মনোনয়ন ফরম বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন। যার ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জেও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন সংগ্রহ করছেন। আর এই মনোনয়ন সংগ্রহের দিকে পিছিয়ে নেই নিধিরাম সর্দার খ্যাত নেতারাও।

জানা যায়, গত ৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছেন। সেই তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৩ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা বললেও পরবর্তীতে নির্বাচন কমিশন সেই সময় পিছিয়ে আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করেছেন। একই সাথে মনোনয়পত্র দাখিলের শেষ সময় নির্ধারণ করেছেন ২৮ নভেম্বর।

এদিকে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণার শুরুতে বিএনপির অংশগ্রহণের ব্যাপারে অনিশ্চয়তা থাকলেও নির্বাচনের কাছাকাছি সময়ে সে অনিশ্চয়তা কেটে গেছে। সর্বশেষ গত ১১ নভেম্বর দলটির কেন্দ্রীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় তারা এবারের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। সে সিদ্ধান্তের আলোকে তারা গত সোমবার থেকে মনোনয়ন ফরম বিক্রি করা শুরু করে। বিএনপির নির্বাচনে অংশ নেয়ায় অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেও নির্বাচনী আমেজ শুরু হয়েছে।

এতে করে বিএনপি ছাড়াও অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেই মনোনয়ন সংগ্রহের হিড়িক করেছে। মনোনয়ন সংগ্রহে পিছিয়ে যাচ্ছে না ‘‘ঢাল নেই, তলোয়ার নেই, নিধিরাম সর্দার’’ খ্যাতরাও। যে সকল নেতাদের পিছনে কোনো কর্মী খুঁজে পাওয়া যায় না। রাজনৈতিক অঙ্গনে তাদের পরিচিতি রয়েছে ‘‘ওয়ানম্যান আর্মি’’ হিসেবে। এমনকি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যরাও মনোনয়ন সংগ্রহে শরিক হয়েছেন। আর এ বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে বইছে সমালোচনার ঝড়।

নেতাকর্মীদের সূত্রে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গত কয়েকদিন ধরেই চলছে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ, জাতীয় পার্টি ও বিরোধী দল বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়নপত্র বিক্রি। তবে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের যেন হিড়িক পড়েছে। নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসন থেকে অদ্যাবধি আওয়ামীলীগ ৬৭ জন ও বিএনপির ৪২ জন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন। এর আগে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনগুলোতে কখনোই এত প্রার্থীকে দলীয় নমিনেশন ফরম ক্রয় করতে দেখা যায়নি।

এছাড়া নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছেন একাধিক। নির্বাচন অফিস থেকে বিএনপির কয়েকজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও অদ্যাবধি আওয়ামীলীগ কিংবা জাতীয় পার্টির কোন প্রার্থীকে নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করতে দেখা যায়না। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (চরমোনাই) দীর্ঘদিন পূর্বেই ৫টি আসনে তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করেছেন। ইতিমধ্যে ইসলামী আন্দোলনের ৫ জন প্রার্থীই নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন। জাকের পার্টি ৪টি আসন থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন। বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকে একটি আসনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ), বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি পাঁচটি আসনে তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করার সাথে সাথে কেউ কোউ মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেছেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও