বাবুতে পরাস্ত আওয়ামীলীগ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২১ পিএম, ২০ নভেম্বর ২০১৮ মঙ্গলবার



বাবুতে পরাস্ত আওয়ামীলীগ

নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) আসনটি আওয়ামীলীগ দলটি জাতীয় পার্টির সাথে আসন ভাগাভাগিতে যাচ্ছেনা তা অনেকটা নিশ্চিত। আর সেই হিসেবেই আওয়ামীলীগ দলটি সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নিচ্ছে। আওয়ামীলীগের এই আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবুর মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি। কারণ গোয়েন্দা সংস্থার চূড়ান্ত মনোনয়নের তালিকা ও প্রথম সারির জাতীয় দৈনিকের সংবাদের তথ্য অনুসারে এই আসনে ফের মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন সাংসদ বাবু। এতে করে এই আসনের আওয়ামীলীগের বাকি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা অনেকটা লড়াইয়ের আগেই পরাস্ত হয়ে পড়ছে।

এদিকে পুণরায় তফসিল ঘোষণার মধ্য দিয়ে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় আগামী ৩০ ডিসেম্বর ধার্য করা হয়েছে। প্রথম তফসিলের পর থেকেই আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ ও জমাদানের কাজ সম্পন্ন করেছেন।

এর আগে ১২ সেপ্টেম্বর জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার এক সংবাদে বলা হয়, আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে ৬৭ জনকে চূড়ান্ত তালিকায় রাখা হয়েছে। ওই ৬৭ জনের তালিকাতে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে শামীম ওসমান ও নারায়ণগঞ্জ-২ আসনে নজরুল ইসলাম বাবুর নাম রয়েছে। এতে করে এই দুটো আসনের সাংসদদের মনোনয়ন পাওয়ার অনেকটাই নিশ্চিত।

এমপি বাবু ছাত্ররাজনীতির দিয়ে শুরু করে তৃণমূলের রাজনীতিতে থেকে তীলে তীলে গড়ে উঠে আজকের নজরুল ইসলাম বাবু রাজনৈতিক কৌশল ও দক্ষতা দুটোর দিক দিয়ে বেশ পারদর্শী হবেই এটা স্বাভাবকি। তবে আসন্ন নির্বাচনের আগে এই নেতা বেশ কৌশলে এগিয়ে চলছে। নিজ আসনে নিজের ইম্যেজ রক্ষা করে কেন্দ্রের কাছে প্রশংসা কুড়িছেন। তবে সমালোচনা ও বিতর্কিত পরিস্থিতি উপেক্ষা করে এই নেতা বেশ সুকৌশলে এগিয়ে যাচ্ছে। এতে করে তার নির্বাচনী পথ অনেকটা সুগম হয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

অন্যদিকে আড়াইহাজার আসনে এমপি বাবুর আসনেও তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তেমন কাউকে দেখা যাচ্ছেনা। তবে এই আসনে নৌকার মাঝি হতে চান কেন্দ্রীয় যুবলীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইকবাল পারভেজ ও আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি এমদাদুল হক ভুঁইয়া ও ব্রুনাইয়ে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত মমতাজ হোসেন। ইকবাল পারভেজ ইতোমধ্যে দুর্নীতির দায়ে বেশ বিতর্কিত হয়ে আছে। আর বাকি দুজনে যোগ্যতার দিক দিয়ে অনেকটা পিছিয়ে। তাছাড়া বয়সের ভারেও অনেকটা ন্যূজ প্রায় তারা। এতে করে এই আসনে এমপি বাবুর মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে তেমন কোন বাধা দেখা যাচ্ছেনা। তাই এমপি শামীম ওসমানের মত এই নেতাও অনেকটা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে যাচেছ।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইকবাল পারভেজ এই আসনের হেভিওয়েট মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকায় থাকলে তেমন তোড়জোড় দেখা যাচ্ছেনা। তাছাড়া এই নেতা বিগত দিনে দলীয় কর্মসূচিতেও তেমন সক্রিয় দেখা যায়নি। এমনকি নিজ আসনেও তার তেমন কোন প্রভাব নেই বললেই চলে। সবচেয়ে বড় বিষয় হল রাজনীতিকে কোন ধরণের চমক দেখাতে পারেনি এই নেতা। যেকারণে মনোনয়ন রেসে প্রতিযোগিতার আগেই মুখ থুবড়ে পড়তে হবে এই নেতাকে। যদিও কেন্দ্রের পদ পদবী রয়েছে। তবে পদ পদীব থাকা আর একই আসনে জাতীয় নির্বাচনে জনপ্রতিনিধি হওয়ার মধ্য বিশাল ফারাক রয়েছে। যেকারণে এই নেতাকে মনোনয়ন ইস্যুতে শুধুমাত্র আলোচনায় রয়েছে।

তবে এই আসনের আওয়ামীলীগের তৃণমূল বলছে, ‘আগে থেকেই এই কেন্দ্রীয় তথ্যানুসারে মনোনয়নের চূড়ান্ত তালিকায় সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবুর নাম থাকায় বাকি নৌকার মাঝিরা পিছিয়ে পড়ে। তবে শেষ সময়ে যদি কোন কারণে সাংসদ বাবু ছিটকে পড়ে সেই সুযোগোর আশায় বাকি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এই আসনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তাই এসব নেতারা মনোনয়নের লড়াইয়ে মাঠে নামার আগেই পরাস্ত হয়ে পড়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘ছাত্র রাজনীতিতে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে রাজনীতি করা সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গুডবুকে রয়েছে। যেকারণে এই নেতার প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি অনেকটা নিশ্চিত। এই এই বিষয়টি অনেকটা ওপেন সিক্রেটের মত। যেকারণে এই আসনের বাকি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই অন্য কোন সুযোগের অপেক্ষায় রয়েছেন। এতে করে তারা মনোনয়ন লড়াইয়ে অনেকটা পরাস্ত হয়েছেন সাংসদ বাবুর কাছে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও