খাদের কিনারায় নেতারা

বিশেষ প্রতিনিধি || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৬:৫৬ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০১৮ সোমবার



খাদের কিনারায় নেতারা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার প্রত্যাশায় সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তবে এসকল মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে অনেকের কাছেই এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনই শেষ অংশগ্রহণ হতে পারে। পরবর্তীতে হয়তো তাদের জন্য সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে না। বয়সের ভারে কিংবা অন্য কোন অজুহাতে রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করেছেন। একই সাথে মনোনয়পত্র দাখিলের শেষ সময় নির্ধারণ করেছেন ২৮ নভেম্বর। সেই লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জেও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তফসিল ঘোষণার পরদিন থেকে এই পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনে প্রায় দুই শতাধিক নেতাকর্মী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। যাদের মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই, বর্তমান সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান, সাবেক প্রতিমন্ত্রী রেজাউল করিম, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া ও কেন্দ্রীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ। এদের সকলের কাছেই এবারের সংসদ নির্বাচন শেষ নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ পরবর্তীতে হয়তো তাদেরকে রাজনীতি থেকে ইতি টানতে হবে।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের একজন সিনিয়র নেতা হচ্ছেন মোহাম্মদ আব্দুল হাই। সেই ছাত্রলীগ থেকেই তিনি নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। নেতৃত্ব দিয়েছেন মহান স্বাধীনতার যুদ্ধে। অনেকদিন জেলা পরিষদের দায়িত্বও পালন করেছেন তিনি। এখন তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আব্দুল হাই নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসন থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগ এখানে গাজীকেই মনোনয়ন দিয়েছেন। বাদ পড়েছেন আবদুল হাই। আগামীতে হয়তো বয়সের ভারে রাজনীতিতে সক্রিয় নাও থাকতে পারেন।

নারায়ণগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী। তিনিও নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে অনেক সিনিয়র হয়ে গেছেন। এছাড়া সংসদীয় এলাকায় তার বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগের একটি শক্তিশালী জোট রয়েছে। এবারের সংসদ নির্বাচনটি তার জন্য শেষ হতে পারে।

একই সাথে নারায়ণগঞ্জ-১ আসনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম ক্রয় করেছেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার। বিএনপির রাজনীতিতে তিনি বেশ সিনিয়র হয়ে গেছেন। অনেকদিন ধরে জনপ্রতিনিধি হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করে আসলেও সবসময় তিনি বঞ্চিত হয়ে আসছেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। কিন্তু এবারের নির্বাচনই তার শেষ নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

একই আসনে জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামানও মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তারও অনেক বয়স হয়ে গেছে। এবারের সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ না পেলে পরবর্তীতে হয়ত আর সুযোগ নাও পেতে পারেন।

নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে বিএনপি দলীয় মনোনয়নের প্রত্যাশায় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী রেজাউল করিম। তিনি এর আগে বিএনপি থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সাবেক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবারের নির্বাচনেও তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশী। তবে এবারের সংসদ নির্বাচনই তার জন্য শেষ সংসদ নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া। তিনি ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত হয়ে আসছেন। মাঝখানে কিছুদিন রাজনীতিতে নিস্ক্রিয় থাকলেও দলীয় মনোনয়নের প্রত্যাশায় ফের সক্রিয় হয়েছেন। তবে রাজনীতিতে তিনি বেশ সিনিয়র হয়ে গেছেন। এবারের সংসদ নির্বাচনে সুযোগ না পেলে আগামীতে হয়তো সুযোগ নাও পেতে পারেন।

একই আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ। তিনি এর আগেও আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়নের প্রত্যাশায় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন। কিন্তু কোনবারই দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচন করার সুযোগ পান নি। এবারের নির্বাচনেও পাবেন কিনা সে ব্যাপারে কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে আগামী নির্বাচনে হয়ত প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার সুযোগ নাও পেতে পারেন।

এ আসনের বর্তমান এমপি সেলিম ওসমানও বয়স্ক। অসুস্থ থাকেন প্রায়শই। তিনিও এবারের নির্বাচনকে শেষ নির্বাচন হিসেবেই ভাবছেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

এই বিভাগের আরও