গুরুতর অসুস্থ কমান্ডার গোপীনাথ শয্যাশায়ী

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:২২ পিএম, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার

গুরুতর অসুস্থ কমান্ডার গোপীনাথ শয্যাশায়ী

বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা বর্ষীয়ান রাজনীতিক ও মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার গোপী নাথ দাস গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে। এজন্য তাঁর পরিবার গোপী নাথ দাসের সুস্থতা কামানয় নারায়ণগঞ্জবাসী সহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে প্রার্থনা করেছেন।

গোপীনাথ দাস হলেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী কমিটির উপদেষ্টা। একই সঙ্গে তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি।

৬ ফেব্রুয়ারী বুধবার রাতে সরেজমিনে চাষাঢ়া মার্ক টাওয়ারের পাশে গোপী নাথ দাসের বাড়ির দ্বিতীয় তলার পূর্ব পাশের রুমে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বর্ষীয়ান এ রাজনৈতিক নেতাকে দেখতে অনেকেই ভীড় করছেন। তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নিচ্ছেন ছোট ভাই মদন মোহন দাসের কাছ থেকে। অসুস্থ গোপী নাথ দাসের পাশে বসে সেবাযতœ করছিলেন তার স্ত্রী চন্দনা রানী দাস। আর পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন বড় ছেলে সঞ্চয় দাস। এছাড়াও কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস, হিন্দু বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষ্ণ আচার্য সহ রাজনৈতিক ও সামাজিক কর্মকা-ের সহযোগিরাও ছিলেন সেখানে উপস্থিত।

বিছানায় এক পাশ হয়ে শুয়ে ভরাট গলায় জিজ্ঞাসা করছেন কে এসেছে। নাম বলার সঙ্গে সঙ্গে চিনেও ফেলছেন সবাইকে। বলছিলেন সুস্থ্য হয়ে লোকনাথ ব্রহ্মচারী আশ্রম ও কালী মন্দিরে যাবেন। আর সবাইও বলেন অবশ্যই যাবো আমরা সবাই।

গোপী নাথ দাসের ছোট ভাই মদন মোহন দাস বলেন, কোমড়ে সমস্যা থাকায় বড়দা উঠে বসতে পারেন না। তাছাড়া ব্রেন স্টোকের কারণে হাতও নাড়তে পারছেন না। বিছনায় শুয়ে শুয়ে খাবার খাইয়ে দিতে হয়। এমনিতে সবাইকে চিনতে পারেন।

এসময় গোপী নাথা দাসের বড় ছেলে সঞ্চয় দাস নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, গোপী নাথ দাস গত ২৫ জানুয়ারি দুপুরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাৎক্ষনিক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানকার ডাক্তার জানান তিনি ব্রেন স্টোক করেছেন। সেখানে ৬দিন চিকিৎসা শেষে শহরের চাষাঢ়ার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এর পর থেকেই তিনি বাসায় অসুস্থ অবস্থায় আছেন।

তিনি বলেন, বাবা চলাফেরা করতে পারছেন না। এজন্য থেরাপী দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধও দেওয়া হচ্ছে। তবে দ্রুত তিনি অসুস্থ হয়ে উঠবেন এমনটা আশ্বাস দিয়েছেন ডাক্তার। সেই আশায় আমরা আছি। বাবা সামাজিক ও রাজনৈতিক কাজ কর্ম নিয়েই বেশি ব্যস্ত থাকতেন। আর তাই এমপি, রাজনৈতিক ও সামাজিক সহ বিভিন্ন পেশার মানুষ খোঁজ খবর নিচ্ছেন। তিনিও সকলের সঙ্গে বলছেন সুস্থ্য হয়ে বিভিন্ন মন্দির ও কর্মকা-ে আবারও কাজ করতে।

কৃষ্ণ আচার্য বলেন, হিন্দু ধর্মীয় নেতা হলেও সকল ধর্মের মানুষের সহযোগিতায় পাশে দাঁড়িয়েছেন। যেকোন অন্যায় অপরাধের প্রতিবাদ করতেন। যেকোন মানুষের প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা জানাতে কখনো কৃপণতা করেননি তিনি। যে কেউ ডাক দিলেই পাশে পেয়েছেন। আর তিনি অসুস্থ্য হয়ে বিছানায়। আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী সহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে আহবান জানাই যাতে ওনি দ্রুত হয়ে আমাদের মধ্যে ফিরে আসে সেই জন্য প্রার্থনা করবেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও