এমপিতে আগ্রহী উপজেলায় অনাগ্রহ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০৯ পিএম, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার

এমপিতে আগ্রহী উপজেলায় অনাগ্রহ

নানা আলাপ আলোচনার মধ্যে দিয়ে গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর এবার ঘনিয়ে আসছে উপজেলা নির্বাচন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও উপজেলা নির্বাচনে সেই সকল মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তেমন একটা আগ্রহ নেই। নারায়ণগঞ্জের ৪টি উপজেলায় চূড়ান্ত করার সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকায় শুধুমাত্র দুইটি উপজেলায় দুই জনের নাম রয়েছে। এর মধ্যে একজন হলেন বন্দর উপজেলায় অন্যজন হলেন সোনারগাঁও উপজেলায়।

জানা যায়, উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোট হবে ১০ মার্চ। যদিও প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ জেলা নেই। তবে বর্তমান ক্ষমতানসীন দল আওয়ামীলীগ নারায়ণগঞ্জে তাদের দলীয় প্রার্থী নির্ধারণ করা শুরু করেছেন। গত ৩০ ফ্রেব্রুয়ারী ছিল দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম জমা দেয়ার শেষ সময়। আর এই তালিকা প্রণয়নের দায়িত্ব পেয়েছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং সংশ্লিষ্ট উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের চেয়াম্যান পদে ৩ জনের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। এরা হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আবু সুফিয়ান, বন্দর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদ ও মদনপুর ইউপি চেয়ারম্যান বন্দর থানা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি আব্দুস সালাম।

সোনারগাঁ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের ৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। তারা হলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন এবং নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ও এফবিসিসিআই এর পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ৩ জনকে চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে রাখা হয়েছে। তাঁরা হলেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান ভূইয়া, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন মোল্লা ও আওয়ামীলীগ নেতা তাবিবুল কাদির তমাল। এছাড়া আড়াইহাজার উপজেলায় শুধুমাত্র একজনকেই আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে তালিকা করা হয়েছে। তিনি হলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহজালাল।

উপজেলা নির্বাচনের এসকম মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে শুধুমাত্র দুইজন ছিলেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাশী। এদের মধ্যে একজন্য হলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান। তিনি বন্দর উপজেলার চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। সুফিয়ান একদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। একই সাথে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে নির্বাচনী এলাকায় বেশ সাড়াও ফেলেছিলেন। কিন্তু কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শেষ পর্যন্ত আবু সুফিয়ান আর প্রার্থী হননি।

অন্যজন হলেন সোনারগাঁ আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম। তিনি সোনারগাঁ উপজেলার চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসন থেকে নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু আওয়ামীলীগ এই আসনটি জাতীয় পার্টির জন্য ছাড় দেয়। ফলে মাহফুজুর রহমান কালামের আর প্রার্থীতা হয়ে উঠা সম্ভব হয়নি।

এদিকে গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনে প্রায় আওয়ামীলীগের প্রায় ৬৭ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। একই সাথে তারা আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন ফরমও সংগ্রহ করেছিলেন। এদের মধ্যে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনেই বর্তমান সংসদ সদস্যদের বিপরীতে সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার জন্য কয়েকজন হেভিওয়েট নেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তবে এদের মধ্যে কাউকেই উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ নেই।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও