এরশাদের প্রথম তালিকাতে থাকলেও চূড়ান্তে বাদ পড়লেন পারভীন ওসমান

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০২:৫৭ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সোমবার

এরশাদের প্রথম তালিকাতে থাকলেও চূড়ান্তে বাদ পড়লেন পারভীন ওসমান

সংরক্ষিত নারী আসনে সাবেক এমপি নাসিম ওসমানের স্ত্রী পারভীন ওসমানের নাম প্রথম তালিকাতে থাকলেও সবশেষ যে তালিকা প্রকাশ করেছে জাতীয় পার্টি সেখানে বাদ দেওয়া হয়েছে। ফলে পারভীন ওসমানের নারী এমপির মনোনয়ন নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

ফলাফল অনুযায়ী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ৪৩টি, জাতীয় পার্টি ৪, বিএনপি ১, ওয়ার্কার্স পার্টি ১টি ও অন্যদের মধ্যে স্বতন্ত্র ৩টি আসনের বিপরীতে একটি আসনে প্রার্থী দিতে পারবে।

আওয়ামী লীগ নারায়ণগঞ্জের কোটা খালি রেখেই ৪৩ জন নারী এমপির মনোনয়ন প্রদান করেন। এর আগে এরশাদ সাক্ষরিত চিঠিতে যে চারজনের নাম ঘোষণা হয়েছিল সেখানে পারভীন ওসমানের নাম ছিল। কিন্তু ১১ ফেব্রুয়ারী যে তালিকা প্রকাশ করে জাতীয় পার্টি সেখানে নাই পারভীন ওসমানের নাম।

এখানে একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে জাতীয় পার্টি প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলামসহ চারজন মনোনয়ন পেয়েছেন। অন্য তিনজন হলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য রওশন আরা মান্নান, মাসুদা এম রশিদ ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা নাজমা আক্তার।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান, জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তাদের মনোনয়ন চূড়ান্ত করেছেন।

প্রসঙ্গত একাদশ জাতীয় সংসদের ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনে ভোটগ্রহণ করা হবে আগামী ৪ মার্চ। মনোনয়ন দাখিল ১১ ফেব্রুয়ারি, যাচাই-বাছাই ১২ ফেব্রু়ারি এবং মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৬ ফেব্রুয়ারি।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ সংরক্ষিত নারী আসন থেকে মনোনয়নের প্রত্যাশায় আওয়ামীলীগের ১৫ জন মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলেন। নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশের সকল মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীদের নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করে বরাদ্দকৃত ৪৩টি আসনে মনোনয়ন চূড়ান্ত করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে অনুযায়ী গত ৮ ফেব্রুয়ারী রাতে আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক শেষে মনোনীত প্রার্থীদের তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। আর এসকল প্রার্থী চূড়ান্ত করার ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ প্রধান বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্ট এবং দলের নিজস্ব জরিপকে গুরুত্ব দিয়েছেন। একই সাথে দশম জাতীয় সংসদে বঞ্চিত ২৫ জেলাকে অগ্রাধিকার দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জ থেকে আওয়ামীলীগের ১৫ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন। তারা হলেন বর্তমান সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বাবলী, নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের আওয়ামীলীগের সাবেক এমপি চিত্রনায়িকা সারাহ বেগম কবরী, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদলের সহধর্মিনী কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদা হাসনাত, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রফেসর ড. শিরিন বেগম, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাত জাহান খান স্মৃতি, মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত আসন ১৩, ১৪ ও ১৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নী, ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ও ভাষা সৈনিক মরহুম মফিজুল ইসলামের কন্যা আলিয়া মফিজ, নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনের আওয়ামীলীগের সাবেক সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাতের সহধর্মিনী রুবিয়া সুলতানা, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও স্ট্যামফোর্ড ইউনিভাসিটির আইন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সেলিনা আক্তার, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপ-কমিটির সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক নাসরিন সুলতানা ঝরা, সোনারগাঁ উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী নূরজাহান, বন্দর থানাধীন নবীগঞ্জ এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা রাশেদুল কবিরের কন্যা ও সাবেক কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগ নেত্রী লন্ডন প্রবাসী শারমিন আমির এবং শহরের ২ নং বাবুরাইল ডিপি রোড এলাকার মৃত হাজী আনোয়ার হোসেনের কন্যা ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সদস্য আঞ্জুমা হাসান বিথী।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও