পোড়খাওয়া নেতাদের তালিকায় ছাত্রদল সভাপতি রনি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:২৪ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার

পোড়খাওয়া নেতাদের তালিকায় ছাত্রদল সভাপতি রনি

দীর্ঘ ১৪১ দিন কারাবাসের পর নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। অস্ত্র মামলার অভিযোগে দীর্ঘদিন কারাগারে থাকলেও এর পেছনে রাজনৈতিক কারণ আছে বলেও মনে করা হচ্ছে। বিএনপির কাছে এই ধরনের মামলা রাজনীতিক মামলা হিসেবে বিবেচিত হবে। এতে করে রনির রাজনৈতিক ক্যারিয়ার পোড়খাওয়া নেতাদের তালিকায় উঠে আসবে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, রাজনীতিতে যে নেতা যত বেশি নির্যাতিত হয়েছে সে নেতা তত বেশি লাইমলাইটে উঠে এসেছে। রনির বেলায় ঠিক তেমনই একটি প্রেক্ষাপট দেখা গেছে। আর তাতে করে রনি দীর্ঘদিন নির্যাতন সহ্য করার প্রতিদান স্বরুপ পোড়খাওয়া নেতাদের তালিকায় তার নাম উঠে আসছে। এতে করে রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে কয়েকধাপ এগিয়ে গেছে এই নেতা।

৫ ফেব্রুয়ারি উচ্চ আদালতের জামিনে নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগার থেকে মুক্তি পান রনি। এর আগে ২০১৮ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর মশিউর রহমান রনিকে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। ওইদিন ভোরে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার সাহারা সিটির মাঠ থেকে তাকে আটক করা হয়। ওই ঘটনায় ফতুল্লা থানার এসআই আবদুস সাফিউল আলম বাদী হয়ে রনির বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করে।

এর আগে ১৫ সেপ্টেম্বর রনির ছোট ভাই সাংবাদিকদের জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর আরামবাগ এলাকা থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে কালো হাইস গাড়িতে তুলে নেওয়া হয়েছে। এরপর থেকে তাঁর মুঠোফোন নম্বর বন্ধ রয়েছে। তবে ডিবি পুলিশ রনিকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি অস্বীকার করে।

অস্ত্র মামলায় আদালতে প্রেরণের পর রনি আইনজীবীদের জানান, গত ১৫ তারিখ ঢাকার আরামবাগ থেকে ৭/৮ ডিবি সদস্য পরিচয়ে আটক করা হয়। তাদের পাশে থাকা একটি মাইক্রোতে উঠেই তার হাত, পা এবং চোখ বেঁধে ফেলে ডিবির পরিচয় দানকারী সদস্যরা। আটকের পর ২দিন ধরে তাকে সীমিত পরিমান খাবার সরবরাহ করা হত। এছাড়া ছাত্রদলের সাথে জড়িত থাকা এবং সরকার ও তার নেতাদের বিরুদ্ধে কথা বলার অপরাধে ব্যাপক নির্যাতন করা হয়।

এদিকে রনির অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান এই তথ্য নিশ্চিত করে নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ষড়যন্ত্র মূলক মামলায় রনিকে এই অস্ত্র মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। উচ্চ আদালত দাখিল করা জামিন আবেদন আদালত মঞ্জুর করে রনিকে মুক্তি দেয়।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘বিএনপিকে রনির নাম নতুন করে সবার মনে জায়গা করে নিবে। কারণ হামলা, মামলায় ভয়ে যেখানে দলের অনেক নেতারা ক্ষমতাসীনদের সাথে প্রকাশ্য ও গোপন আতাঁত করে চলছে সেখানে  রনি দলের জন্য নির্যাতন সহ্য করেছে। যেকারণে রনির রাজনীতিক ক্যারিয়ারে কয়েক ধাপ এগিয়ে গিয়ে পোড়খাওয়া নেতাদের তালিকায় উঠে এসেছেন।’


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও