সাখাওয়াতের সমালোচনায় কালাম কামাল!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৩৬ পিএম, ২৩ মার্চ ২০১৯ শনিবার

সাখাওয়াতের সমালোচনায় কালাম কামাল!

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির শীর্ষ পদীয় সভাপতি ও সেক্রেটারী দলের সহ সভাপতি পদে থাকা সাখাওয়াত হোসেন খানের সমালোচনায় করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। কারণ হামলা, হামলায় জর্জরিত হয়ে নিজেদের গাঁ বাঁচাতে দলটি সুবিধাবাদীদের তালিকায় থাকা দলটির শীর্ষ পদীয় নেতাকর্মীরা যখন দলীয় কর্মসূচি করতে অনিহা প্রকাশ করে তখন সাখাওয়াত হোসেন খান নিজ উদ্যোগে দলের অকুতোভয়ী নেতাকর্মীদের নিয়ে শত বাধার মধ্যেও কর্মসূচি পালন করে গেছেন।

অন্যদিকে দলটিকে বেহাল দশার মধ্যে রেখে অসুস্থতার কারণে বিদেশ পাড়ি জমানো সেক্রেটারী এটিএম কালাম দীর্ঘদিন বিদেশে অবস্থান করেও দলের সক্রিয় নেতাদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে নিজের অবস্থানকে প্রশ্নবিদ্ধ করছেন।

গত ১৮ মার্চ রাজধানীর পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে এক বৈঠক মহানগর বিএনপির নেতারা বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছেন। সেখানে জাপা ঘেঁষা বিদ্রোহী নেতাদের সমর্থনের কারণে বেশ বিতর্কিত হয়েছেন এই বর্ষিয়ান নেতা।

সভায় উপস্থিত থাকা এক নেতার সূত্রে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান সভাপতি আবুল কালামের বিরুদ্ধে জাতীয় পার্টির সাথে সম্পৃক্ততা, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিস্ক্রীয়তা ও দলীয় কর্মসূচিতে নিস্ক্রিয় থাকার অভিযোগ তুলেন।

এসকল অভিযোগের প্রেক্ষিতে আবুল কালাম বলেন, আমার সাথে যারা থাকে তারা কেউ জাতীয় পার্টি করে না। তবে জাতীয় পার্টির এমপির সাথে তাদের উঠাবসা হয়ে থাকে। কারণ তারা জনপ্রতিনিধি। সেই সূত্র ধরেই বিভিন্ন স্বার্থে তারা জাতীয় পার্টির এমপির সাথে চলাফেরা করে থাকেন। এছাড়া তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়ায় দায়িত্ব হচ্ছে কেন্দ্রের। সেক্ষেত্রে আমার কিছু করার নেই। আমি তো আর তাদের ব্যাপারে সুপারিশ করছি না।

তিনি আরও বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় আমি ও আমার স্ত্রী অসুস্থ ছিলাম, তাই বন্দরে অনুষ্ঠিত হওয়া মহাসচিবের সভাতে উপস্থিত থাকতে পারি নাই। তবে আমার পক্ষ থেকে সেক্রেটারী এটিএম কামাল ঠিকই উপস্থিত ছিলেন। আমি প্রায় সময়ই অসুস্থ থাকি। এজন্য আমাকে বিভিন্ন সময় দেশের বাইরে থাকতে হয়। এটা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া জানতেন। সেই জন্য মাঝে মাঝে কোন কোন কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকতে পারি না। 

আবুল কালাম আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির কমিটি হওয়ার পর ৫ মাস আমাদের মধ্যে কোন বিশৃংখলা সৃষ্টি হয়নি। যখনই সাখাওয়াত হোসেন আলাদা হয়ে যান তখনই মহানগর বিএনপিতে বিশৃংখলা দেখা দেয়। দলের মনোনয়ন যে কেউ চাইতেই পারে। তবে এজন্য আলাদাভাবে কর্মসূচি পালন করতে হবে, সেটা তো কোন নিয়ম হতে পারে না।

অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান প্রসঙ্গে সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, আপনি মহানগর বিএনপির অন্য ব্যানারে গিয়ে দলীয় কর্মসূচি পালন করেন। এটা তো গঠনতন্ত্র বিরোধী কাজ। একটি কমিটি থেকে দুই তিনজন মনোনয়ন চাইতেই পারে। কিন্তু এজন্য কমিটির বাইরে গিয়ে কর্মসূচি পালন করতে হবে সেটা তো ঠিক না। এটিএম কামালের এই অভিযোগে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান কোন সদুত্তর দিতে পারেন নি।

জানাগেছে, নির্বাচনী বছরের শুরুতে বিএনপি দলটির নেতাকর্মীরা হামলা, মামলার মধ্য দিয়ে অনেকটা বেকায়দায় পড়ে যায়। এসব কারণে দলটি সাংগঠনিক দিক দিয়ে অনেকটা দুর্বল হয় পড়ে। এতে করে পুলিশি ঝামেলা এড়াতে বিএনপির সুবিধাবাদী নেতারা দলীয় কর্মসূচিতে নানা অজুহাতে অনুপস্থিত থাকে। সেই তালিকার শীর্ষে মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালামের নাম রয়েছে। এতে করে দলের নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করলে অনেকটা চাপের মুখে এই সংস্থারপন্থী নেতা নামেমাত্র ৫-১০ মিনিটের কর্মসূচি পালন করে হাজিরা দেয়া শুরু করেন।

অন্যদিকে মহানগর বিএনপি যখন দলীয় কর্মসূচিতে অনীহা প্রকাশ করছে তখন মহানগর বিএনপি মাথা উঁচু করেছে দলটির সিনিয়র সহ সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান। কারণ মহানগর বিএনপি দলীয় কর্মসূচি পালন না করলেও তিনি বরাবরের মত শত বাধা ডিঙিয়ে একাই কর্মসূচি পালন করে গেছেন। যার ফলে তাতে পৃথক ব্যানারে কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়। এতে করে মহানগর বিএনপির শীর্ষ পদীয় নেতাদের সাথে তার দূরত্ব তৈরি হয়। একারণে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি অ্যাডভোটেক সাখাওয়ার হোসেন খানের সাথে সভাপতি আবুল কালামের দ্বন্দ্ব বিভক্তির চিত্র দেখা যায়। এছাড়া কেন্দ্রীয় নেতারা আবুল কালাম সহ দলের বিতর্কিত বিভিন্ন নেতাদের নিয়ে কঠোর সমালোচনা করেছেন দলীয় কর্মসূচি করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘বিএনপি দলটি হাল ধরা নেতাদের বিরুদ্ধে সমালোচকদের মুখরোচক সব মন্তব্য শোনা যাচ্ছে। অথচ দলটির দুর্দিনে যেসব নেতারা নিজেদের গাঁ বাঁচাতে দলীয় কর্মসূচিতে অনীহা প্রকাশ করেছে ও দেশ ছেড়েছে তাদের দিয়ে অন্তত পক্ষে দলের ত্যাগী ও সক্রিয়দের বিরুদ্ধে সমালোচনা মানায় না।’


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও