খালেদা জিয়ার মুক্তির স্লোগানে রাজপথ কাঁপালো তৈমূর

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০২:৫৭ পিএম, ২৬ মার্চ ২০১৯ মঙ্গলবার

খালেদা জিয়ার মুক্তির স্লোগানে রাজপথ কাঁপালো তৈমূর

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে পূর্ব থেকেই নারায়ণগঞ্জের রাজপথ কাঁপানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যডাভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার তার বলয়ের নেতাকর্মীরা। তারই ধারাবাহিকতায় ২৬ মার্চ মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জের রাজপথে বিশাল শোডাউন করেছেন তৈমূর আলম খন্দকার।

একই সাথে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির স্লোগানে স্লোগানে প্রকম্পিত করেছেন নারায়ণগঞ্জের রাজপথ। এদিন সকাল থেকেই পূর্ব প্রস্তুতি অনুযায়ী অ্যাডভোকেট আলম খন্দকার সমর্থিত বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ভবনের সামনে একত্রিত হতে থাকেন। এভাবে একের পর এক নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন জায়গা থেকে নেতাকর্মীরা খন্ড খন্ড মিছিল সমবেত হয়ে বিশাল সমাবেশে পরিণত হয়।

এরপর সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবনের সামনে থেকে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা বিশাল আকারের জাতীয় পতাকা, ঢাক-ঢোল পিটিয়ে ও ভুভুজেলা বাজিয়ে র‌্যালি করে নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া বিজয়স্তম্ভে এসে শ্রদ্ধাঞ্জলী জ্ঞাপন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন খান, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, জেলা ওলামাদলের সভাপতি শামসুর রহমান খান বেনু, ফতুল্লা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক খন্দকার মনিরুল ইসলাম, শহর বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি সুরুজ্জামান, হাজী শাহিন ও যুগ্ম সম্পাদক নুরুল হক চৌধুরী দিপু, যুবদলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য গোলাম মোস্তফা সাগর, আইনজীবী ফোরাম নেতা অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ খান ভাষানী, অ্যাডভোকেট সুলতান মাহমুদ ও মহানগর যুবদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আক্তার হোসেন খোকন শাহ।

এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবদলের সহ সভাপতি মনোয়ার হোসেন শোখন, সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে মনতাজ উদ্দিন মন্তু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাগর প্রধান, যুবদল নেতা জুয়েল রানা, বন্দর থানা যুবদলের সভাপতি আমির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক তুষার, জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি নাসির উদ্দীন, জেলা মৎস্যজীবী দলের সভাপতি গিয়াসউদ্দীন প্রধান ও মহানগর ছাত্রদলের সহ সভাপতি সাইদুর রহমান, ২৪ নং ওয়ার্ড সিনিয়র সহ সভাপতি আকমল হোসেন সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

শোডাউন পূর্ব সমাবেশে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, স্বাধীনতা দিবসে সকল মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। শ্রদ্ধা জানাই তাদেরকে যারা মুক্তিযুদ্ধকে সমর্থন জানিয়েছিলেন। আজকে দেশে ক্রান্তিকাল চলছে। এই দেশে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল গণতন্ত্র রক্ষার জন্য। সে গণতন্ত্র আজকে বিপর্যস্ত। গণতন্ত্রের মা আজকে জেলখানায়। আজকে আমাদের শপথ হোক খালেদা জিয়াকে জেলাখানা থেকে মুক্ত না করা পর্যন্ত আমরা ঘরে ফিরবো না।

তিনি আর বলেন, কে কমিটি পাইলো, কে কমিটি পাইলো না, কে দলের মাদবরি করলো কি করলো না, কে লবিং করলো, কে গ্রুপিং করলো, আমরা দলকে তদবিরবাজ দল বানাতে চাই না। দলটা লবিং গ্রুপিংয়ে ভরে গেছে। আমরা লবিং গ্রুপিং চাই না। আমরা চাই, আমাদের একমাত্র দাবী, একমাত্র রাজনীতি, একমাত্র শপথ বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। এজন্য আমরা আলাদাভাবে কর্মসূচি দিব। আইনি লড়াই সহ সকল প্রকার কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। আমাদের অন্য কোন কিছুর দরকার নেই। আমাদের পধান দরকার এখন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। প্রথম শর্ত আন্দোলন হোক, রাজনীতি হোক, সংগঠন হোক, সবকিছুর প্রধান শর্ত হোক খালেদা জিয়ার মুক্তি। আমি বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের উদ্দেশ্য বলছি, আমাদের একমাত্র কাজ হোক বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও