বিএনপির ভরসা আজাদে

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৬:১৭ পিএম, ৫ জুন ২০১৯ বুধবার

বিএনপির ভরসা আজাদে

নারায়ণগঞ্জে বিএনপির দুর্দিনে দলের হাল ধরা নেতাদের সংকীর্ণ তালিকায় রয়েছেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ। হামলা, মামলায় নির্যাতিত ও জর্জরিত নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর নেয়া এই নেতার উপর আস্থা রাখতে শুরু করছে সকলে।

এদিকে বিএনপিতে নিষ্ক্রিয়তার সমালোচনায় পিষ্ঠ নেতাদের ভিড়ে এই নেতা বরাবরের মত সক্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করেছে। ইফতার পার্টিতে সক্রিয়তার নজির দেখিয়েছেন এই নেতা।

এতে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দলের দুর্দিনে হাল ধরা এই নেতার এরুপ ইতিবাচক কর্মকান্ডে দলের নেতাকর্মীরা তার উপর আস্থা রাখতে শুরু করেছে। যেকারণে আজাদ এখন বিএনপির ভরসাস্থালে পরিণত হতে চলেছে।

সম্প্রতি বিএনপি দলটি ইফতার রাজনীতিতে আওয়ামীলীগকে পরাস্ত করেছে। সেই সক্রিয়তার নেপথ্যে বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবকদল ও যুবদল নানা কর্মসূচি পালন করে আসছেন। ধর্মীয় আচারের অংশ হিসেবে রমজানে ইফতার পার্টির আয়োজনের মধ্য দিয়ে দলের নেতাকর্মীরা বেশ সক্রিয় হয়ে উঠে। আর দলের নেতাকর্মীদের অনুপ্রেরণার পেছনে একটি নাম বেশ ঘুরে ফিরেই চলে আসছে। নজরুল ইসলাম আজাদ যে দলের দুর্দিনে দলের নেতাকর্মীদের জাগিয়ে তোলার পেছনে অভূতপূর্ব ভূমিকা পালন করে আসছে তা দলের নেতাকর্মীদের সক্রিয়তা থেকে বোঝা যায়।

অন্যদিকে দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা দলের নেতাকর্মীদের বেকায়দায় ফেরতে দফায় দফায় হামলা, মামলা সহ মামলার মধ্য দিয়ে বেশ কোনঠাসা করে ফেলে। এ অবস্থায় বিএনপি নেতাকর্মীরা আন্দোলন কর্মসূচি তো দূরের কথা কোন শন্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে অনীহা প্রকাশ করতো। এছাড়া দলের সুবিধাবাদী ও ক্ষমতাসীন ঘেঁষা নেতাকর্মীদের কারণে বিএনপি একেবারে কোনঠাসা হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় দলের হাল ধরা নেতাদের বেশ সংকট তৈরি হয়। আর দলের নেতাকর্মী যারা হামলা, মামলায় জর্জরিত হয়েছে তাদের খোঁজ খবর নেয়ার মত কাউকে দেখা যায়নি। সেখান থেকে নজরুল ইসলাম আজাদ একেবারে ভিন্ন চরিত্রের রাজনীতি দেখিয়ে দলের নেতাকর্মীদের মন জয় করে নিয়েছে। এর ফলে দলের নেতাকর্মীরা তার উপর আস্থা রাখতে শুরু করেছে। আর সেই আস্থার অংশ হিসেবে দলের নেতাকর্মীরা বেশ সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

দলের নেতাকর্মীরা বলছেন, নজরুল ইসলাম আজাদ একজন ত্যাগী নেতা। কারণ তিনি দলের দুর্দিনে একাধিকবার নিজে কারাবরণ করেও দলের নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর নিয়েছেন। এমনকি নির্যাতিত ও কারাগারে থাকা নেতাকর্মীদের অর্থ সহ সার্বিকভাবে সহায়তা করেছেন। দুর্দিনে কর্মদের পাশে থাকা নেতা থাকলে সে দলে কখনো ত্রাহিদশার ছায়া মারাতে পারবেনা। তাই এরুপ নেতা প্রত্যেকটি কমিটিতে প্রয়োজন।

এর আগে ৩ জুন খালেদার মুক্তির দাবিতে আন্দোলনের প্রস্তুতির আহবানে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ বলেছেন, আওয়ামীলীগ সরকারের প্রতিহিংসার শিকার হয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ কারারুদ্ধ। অচিরেই ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্যদিয়ে এই সরকারের পতন ঘটিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো। সেই আন্দোলনের জন্য সবাই প্রস্তুত থাকুন ।

এর আগে ৩০ মে দেশে এখন আওয়ামী লীগের দুঃশাসন চলছে উল্লেখ করে এর বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসরাম আজাদ। তিনি বলেন, আগামীতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যেকোন কর্মসূচি ঘোষণা করবে আমরা রাজপথে থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন করবো।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও